রবিবার, অক্টোবর ২০

‘কাটমানি’ অভিযুক্তদের নেবে না বিজেপি, যাচাই করবেন দিলীপ ঘোষ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যে সব তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদের বিরুদ্ধে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তাদের দলে নেবে না বিজেপি। সদস্যতা অভিযানের মধ্যেই এমন ঘোষণা করলেন রাজ্যে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয়। রবিবার সদস্যতা অভিযান নিয়ে কলকাতায় এক দলীয় বৈঠকে হাজির ছিলেন বিজেপির সাংসদ ও বিধায়করা। হাজির ছিলেন রাজ্য নেতারা। আর সেখানেই কৈলাশ বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেসের অনেক নেতা, বিধায়ক মন্ত্রী বিজেপিতে যোগ দিতে চাইছেন। কিন্তু যাঁরা কাটমানি নেওয়ায় অভিযুক্ত তাঁদের বিজেপিতে জায়গা হবে না।” একই সঙ্গে তিনি বলেন, কাদের নেওয়া হবে আর কাদের হবে না সেটা যাচাই করবেন খোদ রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এদিনই বিজেপির ওই কর্মসূচিতে উপস্থিত থেকে পদ্ম বাহিনীতে যোগ দিয়েছেন বাম আমলের গ্রন্থাগার মন্ত্রী বঙ্কিম ঘোষ। উত্তর ২৪ পরগনার ওই সিপিএম নেতার হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন দিলীপ ঘোষ।

এদিনের সভায় কৈলাস বিজয়বর্গীয় কাটমানি ইস্যুতে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন তৃণমূল কংগ্রেসকে। তিনি বলেন, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনেই এই পথে হাঁটছেন তৃণমূলনেত্রী। তাঁর আরও দাবি, তৃণমূল নেতারা যত কাটমানি তুলেছেন তার ৭৫ ভাগই গিয়েছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঝুলিতে।

যবে থেকে কাটমানি ইস্যু সামনে এসেছে তবে থেকেই তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী বলছেন, অভিযুক্তরাই বিজেপিতে যেতে চাইছে। এর পর থেকে নানা বিতর্ক তৈরি হতে থাকে। এদিন বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক স্পষ্ট করে দিলেন দলের নীতি। এমনিতেও লাভপুরের বিধায়ক মনিরুল ইসলামের বিজেপিতে যোগাদান নিয়ে দলের ভিতরে অনেক ঝড় বয়েছে। এসবের পরে এদিন কৈলাস স্পষ্ট ভাবেই জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদের কাকে দলে নেওয়া হবে বা নেওয়া হবে না তা ঠিক করার দায়িত্ব সম্পূর্ণ ভাবে দিলীপ ঘোষের উপরে।

Comments are closed.