মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২১
TheWall
TheWall

পুজোর ভিড়ে খুঁজে নিন শান্তিতে পেটপুজোর ব্যবস্থা

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

মধুরিমা রায়

পুজো মানেই হুল্লোড়, সাজ-গোজ। সঙ্গে অবশ্যই পেটপুজো। তবে পেটে যখন ইঁদুর দৌড়য় তখন পুজোর ভিড়ে হোটেল-রেস্তোরাঁয় দীর্ঘ অপেক্ষা করতে হয়। আরাম করে বসে লাঞ্চ আর ডিনারের করতে এ বার হাওয়ার্ড জনসন অ্যান্ড গ্রুপ।
চিনার পার্ক স্পেনসারের পাশেই রয়েছে এই চার তারা হোটেল ও রেস্তোরাঁ।


পুজোর কদিন ঢাকের আওয়াজের সঙ্গে বুফেতে বাঙালি খাবার খেতে চাইলে চলে যান এই রেস্তোরাঁয়। আর কন্টিনেন্টাল ওরিয়েন্টাল বা অন্য স্বাদের জন্য তো থাকছেই বসে খাওয়ার ব্যবস্থা। ৭২ আসনের কফিশপ-সহ এই হোটেল অতিথিদের পকেটের দিকেও নজর দিচ্ছেন সমানভাবে। হোটেলের জিএম মহিন্দার রাওয়াতের মতে, তাঁদের উদ্দেশ্যই হলো মানুষকে আনন্দ দেওয়া। পুজোর স্পেশাল প্যাকেজে ৭৯৯ টাকার স্পেশাল অফার পাওয়া যাচ্ছে এখানে। থাকছে কর্পোরেটদের জন্য স্পেশাল অফারও। ষষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্ত লাঞ্চে থাকছে বিশেষ ব্যবস্থাও।

পুজো মানেই পেটপুজো। পেটপুজো মানেই বাতানুকূল পরিবেশে ফুরফুরে মনে প্লেটে সাজানো পদের উপর লোলুপ দৃষ্টি। এটি চেনা ছবি প্রায় সব হোটেলেই। কিন্তু সঙ্গে যদি আয়োজন থাকে বাউল গানের কিম্বা কচিকাঁচার জন্য ম্যাজিক শো-য়ের? আর সেটাও গঙ্গার হাওয়া খেতে খেতে জলে ভাসতে ভাসতে?

ফ্লোটেলের ”খাদ্যাঞ্জলি ৫ দিন রোজ-উৎসবের মহাভোজ” এই ভাবনাতেই বুফেতে থাকছে পশ্চিম বাংলার হারিয়ে যাওয়া সব রান্না, সঙ্গে বাড়ির আল্হাদি মেয়ে বা দুরন্ত ছেলেটির ওরিয়েন্টাল বা কন্টিনেন্টাল স্বাদের আয়োজনও থাকছে। এ বারে আপনাদের পকেটের কথা ভেবেই বুফেতে ১২৯৯ প্লাস ট্যাক্সের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আর সঙ্গের পাঁচ বছরের কম বাচ্চাটির জন্য আপনাকে দিতে হচ্ছে না কোনও রেস্তই। ৫-৮ যাদের বয়স তাদের জন্য ব্যয় করুন, মাত্র ৯৯৯ প্লাস ট্যাক্স।

কাজেই কাশের বনের দোলা শিউলির চাপা গন্ধের মরসুমে পকেটে খুব বেশী চাপ যাতে না পড়ে পৌঁছে যেতেই পারেন শহরের প্রাণকেন্দ্রে বাবুঘাটে সমৃদ্ধি ভবনের ঠিক উল্টোদিকে ফ্লোটেলে।

Share.

Comments are closed.