বুধবার, জুন ১৯

সেরাটা দিলে বিশ্বকাপ এ বার এ দেশেই, বিলেতে উড়ে যাওয়ার আগে আত্মবিশ্বাসী বিরাট

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিলেতে বিশ্বকাপ খেলতে উড়ে যাওয়ার আগে আত্মবিশ্বাসী ভারতীয় ক্রিকেট দলের কোচ রবি শাস্ত্রী এবং অধিনায়ক বিরাট কোহলি। মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠকে কোচ ক্যাপ্টেন দু’জনেই বললেন, উনিশের বিশ্বকাপ চ্যালেঞ্জিং। তবে ভারতীয় টিমের প্রত্যেকে যদি নিজের সেরাটা দিতে পারে, এ দেশেই আসছে এ বারের বিশ্বকাপ।
বুধবার ভোরের বিমানেই লণ্ডনের উদ্দেশে রওনা দেবে টিম ইণ্ডিয়া। বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার আগে মঙ্গলবার মুম্বইয়ে বিসিসিআই হেড কোয়ার্টারে সাংবাদিক বৈঠকে মুখোমুখি হয়েছিলেন শাস্ত্রী এবং কোহলি। সেখানেই তাঁদের গলা থেকে আত্মবিশ্বাস ঝরে পড়ে। শাস্ত্রী বলেন, “ইংল্যান্ডের ফ্ল্যাট পিচে খেলা। ওদের সব মাঠেই পিচ খুব ভাল। ওখানে পৌঁছেই আমরা দ্রুত পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নেব।”

কোহলি এ দিন সাংবাদিক বৈঠকে স্পষ্ট জানিয়ে দেন, “কেদার যাদব ১০০ শতাংশ ফিট।” তাঁর অনুমানের কথা জানাতে গিয়ে বিরাট বলেন, “আমার মনে হয় এ বার বেশ কয়েকটি ম্যাচ হবে, যেখানে প্রচুর রান উঠবে। এবং তা তাড়া করে জিততে হবে প্রতিপক্ষকে।” আত্মবিশ্বাসী অধিনায়ক বলেন, “আমাদের ক্ষমতা আছে বিশ্বকাপ এ বার এ দেশে নিয়ে আসার। কিন্তু আমাদের প্রত্যেককে তার জন্য সেরাটা দিতে হবে। আমরা তৈরি।”

গত এক বছরে দেখা গিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট দলের পেস লাইন আপের ত্রয়ী ভুবনেশ্বর কুমার, যশপ্রীত বুমরা এবং মহম্মদ শামি সেটঁ হয়ে গিয়েছেন। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে, ইংল্যান্ডের ফ্ল্যাট পিচে এই তিনজনের পারফরম্যান্সই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে বিশ্বকাপে।

শাস্ত্রীকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, আইপিএল-এর জন্য কি ভারতীয় ক্রিকেটারদের ক্লান্তি দলকে সমস্যায় ফেলবে না? এই আশঙ্কার কথা ফুৎকারে উড়িয়ে দিয়েছেন বিরাট কোহলিদের হেড স্যার। তাঁর কথায়, “আইপিএল শেষের পর টিমের সদস্যরা বিশ্রাম নিয়েছে। তাছাড়া ইংল্যান্ডে পৌঁছেও প্রথম ক’দিন হাল্কা অনুশীলনেই কাটবে।” জুনের ৫ তারিখে গ্রুপ লিগে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে ইন্ডিয়া। তার আগে দুটি অনুশীলন ম্যাচ খেলবে নিউজিল্যান্ড এবং বাংলাদেশের বিরুদ্ধে।

Comments are closed.