বাংলার বহু জায়গায় লকডাউনের শর্ত ঠিকমতো মানা হচ্ছে না, রাজ্যকে কড়া চিঠি দিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক

৪৫

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাংলার বহু জায়গায় লকডাউনের শর্ত ঠিকমতো মানা হচ্ছে না বলে রাজ্য সরকারকে চিঠি দিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। ১০ এপ্রিল তথা গতকাল শুক্রবার রাজ্যের মুখ্য সচিব ও রাজ্য পুলিশের ডিজিকে ওই চিঠি পাঠানো হয়েছে।

কেন্দ্রের পাঠানো ওই চিঠিতে বলা হয়েছে যে, লকডাউনের আওতা থেকে বেশ কিছু পরিষেবাকে রাজ্য সরকার ছাড় দেওয়ার পর থেকেই লকডাউনের শর্ত ক্রমশ শিথিল করার খবর মিলেছে পশ্চিমবঙ্গ থেকে। যেমন, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য না হলেও বেশ কিছু দোকান খুলে দেওয়া হয়েছে। কলকাতার রাজাবাজার, ইকবালপুর, নারকেলডাঙা, তপসিয়া, মেটিয়াবুরজ, গার্ডেনরিচ, নারকেলডাঙা, মানিকতলা এলাকায় শাক সবজি, মাছ, মাংসের বাজারে মানুষের ভিড় হচ্ছে। সেখানে কোনওরকমই সোশাল ডিস্টেন্সিংয়ের শর্ত মানা হচ্ছে না। বিশেষ করে নারকেলডাঙা এলাকায় যখন বেশ কয়েকজনের শরীরে কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তার পরেও এরকম চলছে।

করোনা সংক্রমণের পরিস্থিতিতে গোটা দেশেই কেন্দ্র-রাজ্য মোটামুটি সমন্বয়ের ছবিই এখনও পর্যন্ত দেখা গিয়েছে। সহযোগিতামূলক যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় সেটাই প্রত্যাশিত। কিন্তু কেন্দ্রের পাঠানো এই চিঠিতে অনেকেই দিল্লি-কলকাতা সংঘাতের আশঙ্কা করছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পাঠানো ওই চিঠিতে লেখা হয়েছে, বহু জায়গাতেই ধর্মীয় সমাবেশ হতে দিচ্ছে পুলিশ। তা ছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থায় রেশন সামগ্রী বিতরণ না করে বহু এলাকায় রাজনৈতিক কর্মীরা তা বন্টন করছেন বলেও খবর রয়েছে তাদের কাছে।

প্রসঙ্গত, রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখা রাজ্য সরকারের এক্তিয়ারের মধ্যেই পড়ে। কিন্তু কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের বক্তব্য, কেন্দ্রের উদ্বেগ থাকা স্বাভাবিক। কারণ, তা বিপর্যয় মোকাবিলা আইন (২০০৫) এর শর্তকে লঙ্ঘন করছে।

এ ব্যাপারে অবিলম্বে পদক্ষেপ করে কেন্দ্রকে রিপোর্ট পাঠানোর জন্যও ওই চিঠিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে ওই চিঠি পাঠিয়েছেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের ডেপুটি সেক্রেটারি শ্রীনিবাসু কে।
এই চিঠির প্রসঙ্গে দ্য ওয়ালের তরফে মুখ্য সচিবের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে। তবে তিনি এ ব্যাপারে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি। রাজ্য সরকারের তরফে কিছু জানানো হলেই প্রতিবেদনে আপডেট করা হবে।

তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় এই চিঠির সত্যতা স্বীকার করেছেন। নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে এই চিঠি পোস্টও করেছেন তিনি। সঙ্গে লিখেছেন, “মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন দোকান খুলে রেখে আইন অমান্য করছেন।” দেখুন সেই টুইট।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More