জিদান যখন ছবি আঁকছেন এই ছেলেটা মায়ের পেটে

0

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বেশ ঠান্ডা সেদিন। ফ্রান্সের সেন্ট ডেনিস স্টেডিয়াম। নির্ধারিত সময়ের অনেক আগেই ৮০ হাজার মানুষ যে যাঁর চেয়ার নিয়ে বসে পড়েছেন গ্যালারিতে। স্টেডিয়ামের বাইরের ফ্যান জোনে সংখ্যাটা ভিতরের দ্বিগুণ। ১২ জুলাই, ১৯৯৮।

ফিফা বিশ্বকাপের ফাইনাল। ব্রাজিল বনাম ফ্রান্স। ঠিক আগেরবার রোমারিও, বেবেতোর নেতৃত্বে চতুর্থবার বিশ্বকাপ জেতা ব্রাজিল জার্সির বাঁদিকে পাঁচ তারা খোদাই করার লক্ষ্যে খেলতে নেমেছে। অপর দিকে ফ্রান্স। আয়োজক দেশ। ততটা ফেভারিট নয়। ব্রাজিলকে এগিয়ে রাখার পাশাপাশি সেবার সমস্ত ফুটবল বিশেষজ্ঞই প্রায় ছুঁয়ে গিয়েছিলেন এক ভদ্রলোকের নাম। টাক মাথা। সুঠাম চেহারা। যা খুশি করতে পারেন তিনি। সবুজ ক্যানভাসে ছবি আঁকেন। ফুটবলের পাবলো পিকাসো। জিনেদিন জিদান। খাতায়-কলমে এগিয়ে থাকা ব্রাজিলকে ৩-০ গোলে শুইয়ে দিয়ে ফুটবলের ফরাসী বিপ্লব সংগঠিত হলো।

শুরু হলো তুলনা। ৮৬তে মারাদোনা যেমন প্রায় একা কাঁধে করে বুয়েনস আয়ার্সে ট্রফি নিয়ে গিয়েছিলেন। ঠিক তেমনই জিদানও একাই চ্যাম্পিয়ন করলেন ফ্রান্সকে। মারাদোনার সঙ্গে তুলনা না করলেও, ৯৮ বিশ্বকাপ যে জিদানের বিশ্বকাপ এ বিষয়ে কোনও সন্দেহের অবকাশ নেই।

তারপর স্যেন নদী দিয়ে বয়ে গিয়েছে অনেক জল। ২০০৬-এ ফ্রান্স আবার ফাইনাল খেলেছে। কিন্তু ৯৮-এর জাদুকর জিদান ২০০৬-এ অভিশপ্ত রাত নামিয়ে এনেছিলেন ফরাসী জনতার জন্য। ইতালীর বিরুদ্ধে ফাইনাল। তারপর সেই মুহূর্ত। মাতারাজ্জি বনাম জিদান। গুঁতোগুঁতি। লাল কার্ড। সব শেষে ১৯৮২-র পাওলো রোসির পর আবার মিলানে বিশ্বকাপ নিয়ে গেলেন দেলপিয়েরোরা।

জিদান যখন ১৯৯৮-এর ১২ জুলাই ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন করছেন তখন এই ছেলেটা মায়ের গর্ভে। রূপকথার সেই রাতের ৫ মাস ৮ দিনের মাথায় ভূমিষ্ঠ হল সেই শিশু। যে এবার ফ্রান্সের স্বপ্নের ফিরিওয়ালা। জিদানের বিশ্বকাপ জয়ের বিশ বছরের মাথায় যাঁকে নিয়ে স্বপ্ন বুনছে গোটা ফ্রান্স।

এমবাপে লত্তিন। ৫ফুট ১০ইঞ্চি উচ্চতার এই কৃষ্ণাঙ্গই কোচ দেশঁর বাজি। বাবার জন্যই মাঠে যাওয়া শুরু প্যারিস সেন্ট জার্মানের এই ফরওয়ার্ডের। ১৯ বছর ৬মাস বয়সে বিশ্বকাপে নামবেন প্রাক্তন মোনাকো স্টার। একদিকে দেশঁ’র ‘সংস্কার।’ পল পোগবা থেকে বেঞ্জিমাদের বাদ পড়া। এর মধ্যেই ১৯ বছরের ছেলেটার কাঁধে বিশ বছরের খরা কাটানোর পাহাড় প্রমাণ চাপ। প্রতিটা বিশ্বকাপই অসংখ্য তারকার জন্ম দিয়ে যায়। ফুটবল মহলের একটা বড় অংশের মতে, ফরাসী জার্সি গায়ে রাশিয়া কাঁপাবেন এমবাপে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Leave A Reply

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More