শনিবার, ডিসেম্বর ১৪
TheWall
TheWall

সস্তায় এসি ট্রেনে চাপার দিন শেষ, খরচ কমাতে বড় সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় রেল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গরিবের জন্য আর গরিব রথ চালাবে না কেন্দ্র। তাই সস্তায় এসিতে রেল সফরের দিন শেষ হতে চলেছে। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের দাবি, দফায় দফায় গরিব রথ এক্সপ্রেস বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল। ইতিমধ্যেই গরিব রথের জন্য বগি তৈরি বন্ধ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর পরে কিছু গরিব রথ এক্সপ্রেস বন্ধ করে দেওয়া হবে এবং কিছু ট্রেনকে সাধারণ এসি থ্রি টিয়ার মেল বা এক্সপ্রেসে পরিণত করা হবে।

লালুপ্রসাদ যাদব রেলমন্ত্রী থাকার সময়ে ২০০৬ সালে মধ্যবিত্তকে এসি ট্রেনে চড়ার সুযোগ করে দিতে গরিব রথ এক্সপ্রেস নামে দেশ জুড়ে ট্রেন পরিষেবা চালু হয়। বিহারের সহর্ষ থেকে পাঞ্জাবের অমৃতসর প্রথম গরিব রথ এক্সপ্রেসটি লালুপ্রসাদ যাদব উদ্বোধন করেছিলেন। এর পরে দফায় দফায় গরিব রথের সংখ্যা বাড়ে। এখন দেশে ২৬ জোড়া গরিব রথ চলে।

ইতিমধ্যেই কাঠগগোদাম টু জম্মু আপ ও ডাউন গরিব রথ এক্সপ্রেসটি বন্ধ করে দিয়েছে রেল। একই পরিণতি হয়েছ কাঠগোদাম থেকে কানপুর গরিব রথেরও। তার বদলে ওই রুটে সাধারণ এসি থ্রি টিয়ার এক্সপ্রেস ট্রেন চালানো হচ্ছে। গরিব রথের ভাড়াও কোনও কোনও রুটে বাড়ানো হচ্ছে। আগে দিল্লি-বান্দ্রা গরিব রথে ভাড়া ছিল ১০৫০ টাকা। এখন সেটাই দিতে হবে ১৫০০ থেকে ১৬০০ টাকার মতো।

এখন যে সব গরিব রথ এক্সপ্রেস চলছে সেগুলির বয়স ১০ থেকে ১৪ বছর। ফলে ট্রেনগুলির রক্ষণাবেক্ষণই অনেক খরচসাপেক্ষ হয়ে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে নতুন বগি দরকার। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে ইতিমধ্যেই গরিব রথ এক্সপ্রেসের জন্য বগি তৈরির কাজ পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গিয়েছে।

Comments are closed.