Latest News

খড়্গপুরে লুকিয়ে ছোট্ট এক ঝর্না, শীতের বেলায় ঘুরে আসতে পারেন, দেখুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: খড়্গপুর বললেই চোখে ভেসে ওঠে, পুরোনো এক রেলশহর। শহুরে আধুনিকতার সবরকম ছাপই সেখানে স্পষ্ট। কিন্তু মূল শহরের বাইরে একটু পা রাখলেই যে কী অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের খনি রয়েছে, তা যেন চোখে না দেখলে বিশ্বাস হয় না!এমনই একটি জায়গা হল, ভেঁটিয়া গ্রাম। ছোট্ট এক ঝর্না আত্মগোপন করে রয়েছে সেখানে। কালো পাথরের ভিড়ে আপনমনে বয়ে চলেছে জল। সবুজের ক্যানভাসে আঁকা এক অপূর্ব জলছবি!খড়্গপুর থেকে কেশিয়াড়ী যাওয়ার যে রাজ্য সড়ক তা দিয়ে সোজা চলে যেতে হবে সালুয়া পেরিয়ে। চামরুসাই থেকে বেঁকতে হবে বাঁ দিকে। যেতে হবে আরও খানিকটা। সব মিলিয়ে খড়গপুর থেকে মাত্র ১৬ কিলোমিটার দূরত্বে রয়েছে এই ভেঁটিয়া গ্রাম। দু’চাকা বা চারচাকা গাড়ি নিয়ে গ্রামের দিকে ঢুকে লালমাটির পথ দিয়ে খানিক এগোলেই সোজা পৌঁছে যাওয়া যাবে এই ঝর্নায়।সপরিবারে হোক বা যুগলে, অথবা সঙ্গীহীন একাকীত্বে, একবেলার এক আদর্শ ভ্রমণ সারতে পারেন এখানেই। ঝর্নার অন্যপাশেই রয়েছে বিশাল এক ঝিল, চকচকে নীল ডানার মাছরাঙারা আপনাকে স্বাগত জানাবেই।

দেখুন ভিডিও।

ঝর্নার কোলে বসেই উপভোগ করতে পারেন অপূর্ব সূর্যাস্ত। ঝর্নার উপরের বনপথ দিয়ে হেঁটে পৌঁছে যেতে পারেন কোনও আদিবাসী গ্রামেও।ভেঁটিয়ার ঝর্নায় এখনও খুব বেশি পর্যটকদের পা পড়েনি। ভিড়ভাট্টার বালাই নেই। বর্ষাকালে অবশ্য স্থানীয় মানুষরা অনেকেই আসেন, আর শীতকালে আসেন পিকনিকপ্রেমীরা। জায়গাটির আশপাশে বিশেষ দোকানপাট নেই, তাই সময় নিয়ে এলে সঙ্গে খাবার, জল এসব নিয়ে আসাই ভাল।শীতকালে তিরতির করে বইলেও, বর্ষায় এই ঝর্নার রূপ দেখলে যেন বিশ্বাসই হয় না, খড়্গপুরেই আত্মগোপন করে আছে এত সুন্দর ঝর্না!

You might also like