Latest News

ঠেকুয়া বানিয়ে নিন বাড়িতেই, রইল রেসিপি

দেবীমিতা বসু বেরা

দীপাবলি শেষ হয়ে যাওয়ার পর কার্তিক মাসের শুক্লা ষষ্ঠী তিথিতে ছট পুজো। প্রধানত বিহার, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশে এই পুজোর চল থাকলেও ভারতবর্ষের প্রায় সব প্রান্তেই এই পুজো পালিত হয়ে থাকে। সূর্যদেব ও তাঁর স্ত্রী ঊষা (অন্যমতে, বোন) ছট পুজোর আরাধ্যা দেব-দেবী।

এই ছটপুজোর অন্যতম প্রসাদ ঠেকুয়া (thekua)। করোনা প্যানডেমিকের সৌজন্যে প্রতিবেশী বা বন্ধুর বাড়ি থেকে আসা ঠেকুয়ার স্বাদ এবারেও খানিক অধরা। তাই আক্ষেপ করে সময় নষ্ট না করে ময়দানে নেমে পড়তে পারেন হাতা-খুন্তি নিয়ে সহজ রেসিপি দেখে ঘরেই বানিয়ে ফেলুন মুচমুচে, খাস্তা ঠেকুয়া।

উপকরণ

এক কাপ আটা (ঠেকুয়া প্রধানত আটা দিয়েই হয়, চাইলে ময়দা ব্যবহার করতে পারেন), হাফ কাপ সুজি, হাফ কাপ মোটা দানা চিনি (চাইলে গুড়ও দিতে পারেন), এক চা চামচ মৌরী, একটা নারকেলের অর্ধেকটার বেশির ভাগ অংশ কোরানো ও বাকিটা ছোটছোট করে কুচি করা, অল্প কিছু কাজু-কিশমিশ, এক চিমটি নুন, চার-পাঁচ টেবিল চামচ ঘি, ঠেকুয়া ভাজার জন্য পর্যন্ত সাদা তেল।

প্রণালী

তেল বাদে বাকি সমস্ত শুকনো উপকরণ একসাথে মিশিয়ে নিতে হবে। ঘি দিয়ে ভাল করে ময়েন দিতে হবে। ময়েনটা এমন দিতে হবে যাতে শুকনো উপকরণগুলোয় একটা ময়েস্ট (ভেজা-ভাজা) ভাব আসে। এবার অল্প অল্প করে জল দিয়ে একটা বেশ শক্ত ডো বানিয়ে নিতে হবে। এই আটার মন্ডটা কোনওভাবেই রুটি বা লুচি-পরোটার মতো নরম মাখা চলবে না। মেখে নেওয়ার পরে ওই মণ্ডকে ১০ মিনিট রেস্টিং টাইম দিতে হবে।

অপু-অপর্ণার সেই বাড়ি, তাঁরা ‘সংসার’ পেতেছিলেন এখানেই

এবার ঠেকুয়া (thekua) গড়ে নেওয়ার পর্ব

প্রথমে মন্ড থেকে মাঝারি সাইজের লেচি কেটে নিতে হবে। যাঁদের ছাঁচ আছে তাঁরা সেটি ব্যবহার করুন। যাঁদের ঠেকুয়ার ছাঁচ নেই তাঁরা একটি চামচের সাহায্যে নিজেদের শিল্পী সত্ত্বা জাগিয়ে তুলুন। এই রেসিপিতে যেমন আমি পাতার নকশা করেছি, আপনারা ইচ্ছে মতো ঠেকুয়ার নকশা কাটুন।| ঠেকুয়ার দু’পিঠেই কিন্তু নকশা আঁকবেন।

ভেজে নেওয়ার পালা

মাঝারি থেকে কম আঁচে সময় নিয়ে ঠেকুয়া ভেজে নিন। তেলে দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উল্টোতে যাবেন না, ভেঙে যাবে তাহলে। এক পিঠ অল্প লাল হলে তবেই অন্য পিঠ উল্টে দেবেন। গরম অবস্থায় সামান্য নরম থাকবে। ১০ মিনিট বাদে ঠেকুয়াগুলো ঠান্ডা হয়ে গেলেই তৈরি মুচমুচে, খাস্তা ঠেকুয়া, যা একমাস অবধি কোনও এয়ার-টাইট জারে সংরক্ষণ করে খেতে পারবেন।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like