Latest News

ফ্যাশনেবল শীতের পোশাক খুঁজছেন? সরকারি শোরুমে কোথায় কী ছাড় চলছে জানেন?

শীত মানেই রঙের উৎসব, নিত্যনতুন নানা রঙের পোশাকে নিজেকে ফ্যাশনিস্তা করে তোলা। তবে রংবাহারি শীতপোশাক যতই আধুনিক আর স্মার্ট হোক না কেন,পার্টি, বিয়েবাড়ি থেকে প্রাত্যহিক জীবনে শাল বা চাদরের কোনও বিকল্প নেই। আপনি কি ট্রেন্ডি শীতবস্ত্রের সন্ধানে রয়েছেন? তবে ঢুঁ মারতে পারেন দক্ষিণ কলকাতার দক্ষিণাপন শপিং কমপ্লেক্সে। এখানে রয়েছে চোখধাঁধানো উইন্টার কালেকশন, আর সেইসঙ্গে বাড়তি চমক সরকারি ডিসকাউন্টের বড় ছাড়। কোথায় কী পাওয়া যাবে ঘুরে দেখলেন চৈতালি দত্ত

মধ্যপ্রদেশ সরকার দ্বারা অনুমোদিত ‘মৃগনয়নী’ (ফোন ০৩৩- ২৪২৩৬৭১৫)তে রয়েছে কাশ্মীরি শাল, স্টোল, জ্যাকেট,পঞ্চু ইত্যাদির রকমারি সম্ভার। উৎসব কিংবা পার্টিতে পরার জন্য মহিলাদের জন্য রয়েছে মধ্যপ্রদেশের বিখ্যাত ‘কোসা’ তসর শাড়ি। উইভ এবং প্রিন্টেড এই শাড়ির দাম শুরু হয় ৪১৫৮ টাকার থেকে।এছাড়া মহিলাদের পরার জন্য রয়েছে নানা রঙের ফ্যাশনেবল লেডিস স্টোল। যার দাম শুরু ১৫০০ টাকার থেকে। ৫ হাজার ৫০০ টাকার থেকে শালের দাম শুরু হলেও এখানে কানি পশমিনা স্টোল পাবেন মাত্র ৪ হাজার ৫০০ টাকা থেকেই। হ্যান্ডওয়ার্ক করা ট্রাডিশনাল কাশ্মীরি শাল বা স্টোলের ক্ষেত্রে প্লেন বডি উইথ বর্ডার এবং অলওভার কারুকাজ, মিলবে দুরকমই।৩ হাজার ৫০০ টাকার থেকে সরু কিংবা চওড়া বর্ডারের পুরুষদের শাল পাওয়া যায় । লেডিস পঞ্চুর দাম শুরু হয় ১৫০০ টাকার থেকে। উল্লিখিত দামের ওপর মিলবে ফ্ল্যাট ২০% বিশেষ ছাড়ও।এই শীতে যাঁরা খদ্দর পরতে ভালোবাসেন তাঁদের জন্য খাদি সিল্ক এম্পোরিয়াম(০৩৩- ৪০০৭৩৮০৯) এ রয়েছে খদ্দরের উইন্টার স্মার্ট কালেকশন। নারী-পুরুষ উভয়েরই খদ্দরের পোশাক মিলবে এখানে। মহিলাদের জন্য আছে মোটা খদ্দরের লং ড্রেস যার দাম শুরু ১২০০ টাকার থেকে। ৪০০-৭০০ টাকার মধ্যে মিলবে জ্যাকেট।কটন, সিল্ক ,তসর, র-সিল্ক ইত্যাদি ফ্যাব্রিকের ওপর আছে বাটিক,কাঁথাস্টিচ, হ্যান্ড ব্লক প্রিন্ট, উইভিং করা আকর্ষণীয় স্টোল, যার দাম পড়বে ৪০০-৩০০০ টাকা।পুরুষদের জন্য রয়েছে ৬৫০-৭০০ টাকা দামের ফুল স্লিভ খদ্দরের শার্ট। ৭৩৫- ৮০০ টাকার মধ্যে মিলবে খদ্দরের পাঞ্জাবি। জহর কোটের দাম শুরু হয় ৭৪৫ টাকার থেকে। ২১০০ টাকার থেকে তসর কেটিয়ার ফুল স্লিভ শার্ট পাওয়া যাবে, আর পাঞ্জাবির দাম শুরু হচ্ছে ২৭০০ টাকার থেকে। র-সিল্ক জহর কোট মিলবে ১৭০০- ২০০০ টাকার মধ্যে। উল্লিখিত দামের ওপর এখন ১৫% বিশেষ ছাড় চলছে।

শীতে যাঁরা নিজেদের কালারফুল পোশাকে দেখতে চান তাঁদের জন্য রংবাহারি আজরখ, লাহেরিয়া, বাঁধনি, চুনরি প্রিন্টেড ইউনিসেক্স ‘কটি’ মিলবে রাজস্থান সরকার অনুমোদিত রাজস্থালী (০৩৩-২৪২৩৭০৮৫) তে।নিউবর্ন থেকে শুরু করে বড়দের জন্য কটন ও সিল্কের ফুল এবং হাফ স্লিভের রিভার্সেবল এই ‘কটি’ র দাম পড়বে পাঁচশো- সাড়ে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত।এই ধরনের ‘কটি’তে আবার ট্র্যাডিশনাল প্রিন্টেড হাতি ও উট ডিজাইনও পাওয়া যায়।এছাড়াও উলেন, সিল্ক, রেওন ফ্যাব্রিকের আজরক, হাতি এবং উট প্রিন্টেড লেডিস স্টোলের দাম শুরু হয় ৭০০ টাকার থেকে। ফ্যাব্রিকের ওপর দাম নির্ভর করে। মহিলাদের জন্য বাঁধনি প্রিন্টেড চাদরের দাম শুরু ১২৬০ টাকা থেকে। সিল্কের স্কার্ফের দাম শুরু হচ্ছে ১১৩৪ টাকা থেকে।এখন উল্লিখিত সমস্ত আইটেমের ওপর ১০% ছাড় চলছ, যা মিলবে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। এছাড়াও কটন, মলমল, সিল্ক ফ্যাব্রিকের ওপর আজরক, ব্লক প্রিন্টেড রজাই পাওয়া যায়, যা বিছানায় লেপের বিকল্প হিসেবে খুবই আরামদায়ক। সিঙ্গল এবং ডাবল দুরকম সাইজেরই রজাই মিলবে এখানে। কটনও সিল্কের ক্ষেত্রে দাম শুরু হচ্ছে যথাক্রমে ১৬০০ ও ২০০০ টাকা থেকে।শীতের খাঁটি কাশ্মীরি শালের হদিশ পেতে যেতে হবে কাশ্মীর সরকার অনুমোদিত কাশ্মীর গভর্নমেন্ট আর্টস এম্পোরিয়াম (০৩৩- ২৪২৩৭৬৯২)-এ। এখানে রয়েছে চোখধাঁধানো সুজনি ,আড়ি, হ্যান্ডস্টিচ উলেন স্টোল থেকে শাল। যা আভিজাত্যে, বৈচিত্র্যে আজও অপ্রতিদ্বন্দ্বি। দাম শুরু মাত্র ২ হাজার ৫০০ টাকার থেকে। কাজের ওপর দাম নির্ভর করে।২ হাজার ৫০০ টাকা থেকে পাবেন নানা রঙের পঞ্চু আর ফিরনের দাম শুরু হয় ৩ হাজার ৫০০ টাকা থেকে। ৪ হাজার টাকার থেকে কাশ্মীরি কোট মিলবে।পরুষদের কাশ্মীরি শালের দাম শুরু হয় ৩ হাজার টাকা থেকে। চাইলে খাঁটি পশমিনা শালও পাবেন। ২০ হাজার টাকা থেকে খাঁটি কাশ্মিরী কার্পেট মিলবে। উল্লিখিত আইটেমের দামের ওপর ফ্ল্যাট ২০% ছাড় চলছে এখন।

যাঁদের কটকির ওপর দুর্বলতা রয়েছে তাঁদের জন্য রয়েছে উড়িষ্যা সরকার দ্বারা অনুমোদিত শোরুম বয়নিকা(০৩৩-২৪২৩৭৪৫২)। পাবেন নানা রঙের সুতির লেডিস কটকির চাদর, দাম শুরু মাত্র ৩৬৩ টাক থেকে। এছাড়াও রয়েছে উট, ঘোড়া, ফুলের মোটিভের সুতোর কাজের তসরের চাদর। যার দাম শুরু হয় ১০৭৮ টাকার থেকে। সেইসঙ্গে বোমকাই, কটকি বর্ডারের তসরের প্লেন বা বুটি দেওয়া কাজের লেডিস চাদর রয়েছে, যা এঁদের সিগনেচার। দাম শুরু ১৫০০ টাকা থেকে।এছাড়াও কটন এবং তসরের ইউনিসেক্স কোট রয়েছে। এই ধরনের কোটের ক্ষেত্রে ২৩০০ টাকার থেকে কটনের দাম শুরু হলেও তসরের দাম পড়বে ৩ হাজার টাকার অধিক। এছাড়াও তসরের শাড়ি রয়েছে যা শীতে পরিধানযোগ্য এবং আরামদায়ক বটে। ন্যাচারাল এবং কালার দুরকমই পাওয়া যায়। গঙ্গা-যমুনা ছাড়াও বড় বা ছোট টেম্পল বর্ডার কিংবা পাটলিপাল্লু স্টাইলের এই ধরনের তসরের শাড়ি যে কোনও উৎসব অনুষ্ঠানে পরার জন্য আদর্শ। এই ধরনের ন্যাচারাল এবং কালার তসর শাড়ির দাম শুরু হয় যথাক্রমে ৫৪৫৬ এবং ৬৪৪৬ টাকার থেকে। এখন উল্লিখিত দামের ওপর ২০%+১০% ছাড় চলছে। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত এই অফার প্রযোজ্য।

You might also like