Latest News

সেফকে বিয়ে করার জন্য বাড়ি থেকে পালানোর হুমকি দিয়েছিলেন করিনা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সেলেবদের বিয়ে থেকে ডির্ভোস সবকিছুরই চর্চা নেটিজেনদের মধ্যে সারাবছরই থাকে। তেমনই এক সেলেব জুটি সেফ আলি খান এবং করিনা কাপুর খান। তাঁদের প্রেম থেকে বিয়ে – সবকিছু নিয়েই ভক্তদের মধ্যে প্রবল উত্তেজনা। নবাব পরিবারের পুত্রবধূ করিনা কাপুর খান সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে বলেন, একটি সিনেমার সেটেই তাঁর সঙ্গে প্রথম আলাপ হয় সেফের। আর সেখান থেকেই প্রেম আর তারপর বিয়ে। ২০১২তে গাঁটছড়া বাঁধেন এই দুই তারকা। দেখতে দেখতে আট বছরে পার করে দিল তাঁদের বিবাহিত জীবন। কিন্তু আপনি কী জানেন সেফকে বিয়ে করার জন্য করিনা তাঁর বাবা-মা রীতিমতো হুমকি দিয়েছিলেন একসময়!

করিনা এবং সেফ আলি খান চেয়েছিলেন শুধুমাত্র নিজেদের পরিবারের লোকজনদের নিয়েই বিয়ের অনুষ্ঠান সারতে। মিডিয়া কিংবা গ্ল্যামার জগতের চাকচিক্যের সামনে  নিজেদের বৈবাহিক জীবন। আর এতেই আপত্তি ছিল করিনার বাবা রনধীন কাপুর আর মা ববিতার। বাড়ির লোকজন আপত্তি তুললে লন্ডনে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে সারার প্ল্যানও করে রেখেছিলেন সেফ-করিনা।

তবে শেষ পর্যন্ত বাড়ি ছেড়ে পালাতে হয়নি কাউকেই। গত আট বছর ধরে একই ছাদের নীচে বাস করছেন এই স্টার কাপল। করিনা বলেন, ” আমি জীবনে অনেক কিছুই দেখেছি। বিয়েতে লোকজন আসেন, খাওয়াদাওয়া করেন, কে কোন ডিজাইনারের পোশাক পরেছে সেসব নিয়ে কথা হয়- ব্যাস, এটুকুই। আর কিছু থাকে না। তাই আমরা এই চাকচিক্যকে গুরুত্ব দিতে চাইনি। যতটা দরকার, নিয়ম মেনে ততটুকুই হয়েছে। রেজিস্ট্রেশনের পর মিডিয়াকে জানিয়েছি যে আমরা বিবাহিত।”

বলিউডের এই হিট জুটিকে কে না পছন্দ করেন! ২০০৭ থেকেই ভক্তেরা ভালোবেসে তাঁদের জুটির নাম দিয়েছেন ‘সাইফিনা’। সেসময় তাঁরা “তাসান’ মুভির শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন। ডিরেক্টর বিজয় কৃষ্ণ আচার্যের এল. ও. সি. কার্গিল(২০০৩) এবং ওমকারা(২০০৬) এ মুক্তি পাওয়ার পরপরই এই দুজনের সম্পর্ক নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিল ফ্যানেদের মধ্যে।

আজ করিনা একাধারে একজন সফল অভিনেত্রী, স্ত্রী এবং মা। বিয়ের চারবছরের মাথায় ২০১৬তে তাঁদের প্রথম সন্তান তৈমুর জন্মায়।এখনও পর্যন্ত তৈমুরই তাঁদের জীবনের সেরা উপহার, এ কথা জোর গলায় স্বীকার করেন বলিউডের এই পাওয়ার কাপল । তবে খুব তাড়াতাড়িই সেই দুর্লভ মাতৃত্বের স্বাদ আবার পেতে চলেছেন নায়িকা। তিন থেকে চার হওয়ার পথে এগোচ্ছে নবাব পরিবার।

You might also like