Latest News

Exclusive Jewellery: ভেলভেটের গয়নায় জরির জারদৌসি কাজ, তামা-পেতলে ইন্দো-ওয়েস্টার্ন লুক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কস্টিউম জুয়েলারির চিরাচরিত লুককে ভেঙ্গেচুরে সম্পূর্ণ নতুন কনসেপ্টে গয়না সাজান ডিজাইনার ইরানি মিত্র (Exclusive Jewellery)। তাঁর ইন্দো-ওয়েস্টার্ন শাড়ির মতো গয়নাতেও মিশেছে পূর্ব পশ্চিম। তাই এই জুয়েলারি দেখতে একেবারে অন্য রকম। শাড়ির সঙ্গে যেমন মানায় ,তেমনই টিম আপ করা যায় ওয়েস্টার্ন আউটফিটের সঙ্গে।

কীভাবে তৈরি হয় এই জুয়েলারি (Exclusive Jewellery)?

ডিজাইনার ইরানি জানালেন , প্রথমে ঠিক করা হয় কী শেপের এবং কেমন সাইজের হবে পেন্ডেন্ট বা ইয়ার রিংস। সেই অনুযায়ী কাটা হয় ভেলভেট বা স্যাটিন ফ্যব্রিক। তারপর সেই মাপ মতো ডিজাইন আঁকেন ট্রেসিং পেপারে। জরি আর রেশম সুতো মিলিয়ে মিশিয়ে জারদৌসি কাজ করা হয়। এরপর কার্ডবোর্ড,স্পঞ্জ দিয়ে গয়নার নকশা বানানো হয়। কোনওটা গোল, কোনওটা ওভাল, কোনওটা চারচৌকো , কোনওটা আবার ত্রিভুজের আকার। প্রত্যেকটাই স্মার্ট লুক এবং ঝকঝকে।

কীসেগাঁথা হয় এই গয়না?

সাধারণত রঙবেরঙের বিডস, আর না হলে হরেক রঙের ট্রাসল বা নকল মুক্তোয় গাঁথা হয় কস্টিউম জুয়েলারি (Exclusive Jewellery)। কিন্তু ডিজাইনার ইরানি মিত্রর কনসেপ্ট একেবারে অন্য রকম। পেতলের বা তামার বালা, শিফন, জর্জেট , নেট, সিল্ক বা জুট ফ্যাব্রিক দিয়ে ডিজাইন করে গাঁথা হয় জরির জারদৌসি কাজের পেন্ডেন্ট। পেতলের ছোট্ট ডিশকেও ডিজাইনের জন্য ব্যবহার করেন ইরানি।

কেমন শাড়ি বা পোশাকের সঙ্গে মানায় জারদৌসি জুয়েলারি?

সোনার দাম যেভাবে বেড়েছে তাতে সব সময় তো সোনার গয়না কেনা সম্ভব নয়। অথচ অনুষ্ঠানে যেতে বা পার্টির সাজে একটু জমকালো গয়না তো চাইই। জাঙ্ক জুয়েলারির বদলে যদি ডিজাইনার জারদৌসি কাজের জুয়েলারি পাওয়া যায় তাহলে নিঃসন্দেহে স্টাইল স্টেটমেন্টে আপনি পৌঁছে যাবেন পয়লা নম্বরে।

জরির কাজ করা সিল্ক তসরের সঙ্গে তো বটেই, এমনকী ঢাকাই , শিফন ,জর্জেট ও ডিজাইনার কটনের শাড়ির সঙ্গে জারদৌসি জুয়েলারি খুব ভাল লাগে। আবার এই গয়না শুধু শাড়ি নয়, যে কোনও ইন্দো ওয়েস্টার্ন ড্রেসের সঙ্গেও মানিয়ে যায়। কেউ বিশেষ কোনও রঙ বা ডিজাইনের গয়না চাইলে তাও করে দেন ডিজাইনার ইরানি মিত্র।

যোগাযোগ করতে পারেন ৯৮৩০৫৯১৯৭৩ নম্বরে। 

You might also like