Latest News

Akshay Tritiya: অক্ষয় তৃতীয়ার অফারে বিয়ের বিকিকিনি! দেখুন ১০টি এক্সক্লুসিভ ডিজাইন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বৈশাখ থেকে শ্রাবণ চারমাস জুড়ে বিয়ের লগন রয়েছে। মেয়ের বিয়ে হোক বা ছেলের, গয়না তো কিনতেই হয়। আত্মীয়-স্বজনের বিয়েতে উপহার দিতেও সোনার গয়নায় হাত বাড়াতে হয়। সোনার দাম যতই বাড়ুক, কোনও কোনও ক্ষেত্রে উপায় থাকে না সোনা কেনা ছাড়া।

এসবের মধ্যেই এসে পড়েছে অক্ষয় তৃতীয়া (Akshay Tritiya)। প্রায় সব গয়নাবিপণীই এই সময় নানারকম অফার দিচ্ছে। শ্যাম সুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্সও তার ব্যতিক্রম নয়। এখানে অক্ষয় তৃতীয়া উপলক্ষে অফার ও উপহারের বন্যা। সেই সঙ্গে এদের বৈশাখী কালেকশনে ডিজাইনেরও বন্যা। রইল দশটা এক্সক্লুসিভ ডিজাইনের হদিশ।

জোড়া মাছ পেন্ডেন্ট (Akshay Tritiya)

বাঙালির যে কোনও সমাজিক অনুষ্ঠানে মাছ শুভ। তাই সোনার গয়নার মোটিফ হিসেবে মাছের গুরুত্ব আছে। এই পেন্ডেন্টে চিরাচরিত মাছের নকশাকে ভেঙেছেন অলংকার শিল্পী। একটা মাছে ছিলার কাজ অন্যটায় জালি ডিজাইন। চেনে গাঁথা এই পেন্ডেন্টে সোনা আছে ২৬ গ্রাম।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

ফ্লোরাল মোটিফের সঙ্গে ঝোলানো চেন

অনেকেই নেকলেস ধরনের গয়নার থেকে চওড়া চেনে একটু ভারী লকেট পরতে পছন্দ করেন। তাঁদের জন্য শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্সের ডিজাইনাররা তৈরি করেছেন ৪৫ গ্রাম ওজনের লকেট-হার। লকেটে ফ্লোরাল ডিজাইনের সঙ্গে ঝোলানো চেনের মিলমিশ নজরকাড়া।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

নেকলেসে ফুলের মাঝে লালের শোভা

একেবারে নতুন ধরনের নেকলেস আর ঝোলানো দুলের সেট মাত্র ৫৮ গ্রাম সোনায়। নেকলেসের মাঝখানে তিনটে বড় ফুল। নকশায় ফুলের মাঝে লালের ছোঁয়া গয়নায় অন্য্ মাত্রা যোগ করেছে। ঝোলানো দুলেও দুটো ফুল।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

নেকপিসে গোলাপ ,সঙ্গে গোলাপ কান পাশা

যাঁদের বাজেট কম অথচ মেয়েকে বিয়েতে একটু অফবিট ডিজাইনের গয়না দিতে চান তাঁরা গোলাপ ফুল ও পাতার সাজে সাজানো নেকপিসটা কিনতে পারেন। সঙ্গে দুটো গোলাপ ফুল কান পাশাও পাবেন। ৩৬ গ্রামে পাবেন পুরো সেটটা।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

ইউনিক তিন লহরী সীতাহার

ঠিক ট্র্যাডিশনাল সীতাহার নয়, একটু স্টাইলিশ কিছু চাইলে চোখ রাখতে পারেন শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্সের এই ইউনিক কালেকশনে। নানান সাইজের বলের তিন লহরী বুক পর্যন্ত ঝোলানো চেন। দু’দিকে ফুল দিয়ে গাঁথা। এই লহরী সীতাহারের সঙ্গে গলায় আর কিছু পরার দরকার নেই। এতে ৬০ গ্রাম সোনা রয়েছে।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

বিয়ে স্পেশাল নেকলেস আর ঝোলানো দুল

মাত্র ৩৬ গ্রাম সোনায় গলা ভরানো নেকলেস আর ঝোলানো কানের দুলের এক্সক্লুসিভ  সেট তৈরি করেছে শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্সের স্বর্ণশিল্পীরা। ছোট্ট ছোট্ট ঘুঙরু ডিজাইনে নতুনত্ব এনেছে।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

অ্যান্টিক পলিশ স্টোনসেটিং জুয়েলারি

ছোট্ট ছোট্ট মুক্তোর  গোছায় গাঁথা  হারে বড় একটা লকেট। লকেট ও ইয়ার রিংয়ের ডিজাইন কিছুটা গুজরাতি স্টাইলের। আন্টিক পলিশ সোনায় রংবেরঙের স্টোন বসানো এই জুয়েলারিতে ছোট্ট ছোট্ট মুক্তোর ঝিরি নকশা। এই সেটটা এতই সুন্দর যে একে আর্ট পিস বলা যায়। এতে ৮৫ গ্রাম সোনা আছে।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

আধুনিক পাটি হার ও কানবালার কম্বো সেট

আমাদের ঠাকুমা-দিদিমারা যে চওড়া ভারী পাটি হার পরতেন, তাকেই আধুনিক রূপ দিয়েছেন অলংকারশিল্পীরা। আগেকার দিনে এইরকম পাটি হারে সাত আট ভরি সোনা লাগত। আধুনিক নকশায় তৈরি এই পাটি নেকপিস ও কানবালার সেট করতে সোনা লেগেছে মাত্র ৫২ গ্রাম।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

পকেট ফ্রেন্ডলি চেন পেন্ডেন্ট

মেয়েকে বিয়েতে একটা হেভি ব্রাইডাল সেট তো সকলেই দেন। সঙ্গে বারো মাস পরার জন্য একটা চেনও দিতে চান অনেকে। আবার অক্ষয় তৃতীয়াতে নিজে পরার জন্য যাঁরা মোটামুটি বাজেটের মধ্যে চেন চাইছেন তাঁরাও শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলারেসের পকেট ফ্রেন্ডলি চেন পেন্ডেন্ট কিনতে পারেন। এতে ২৩ গ্রাম সোনা আছে।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

টাই হারে বড় পেন্ডেন্ট এখন ট্রেন্ডে

স্টাইলিশ মেয়েরা বেশ কয়েক বছর ধরেই টাই হার পরতে পছন্দ করছেন। ইচ্ছেমতো ছোটো বড় করা যায়। টাই হারে বড় পেন্ডেন্ট এখন ট্রেন্ডে। তসর, সিল্ক বা ঢাকাইযের মতো অভিজাত শাড়ির সঙ্গে খুব মানায়। শ্যাম সুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স নানান ডিজাইনে টাই হার করছে। এই টাই হারের পেন্ডেন্টটা বেশ অভিনব। এতে ৪১ গ্রাম সোনা আছে।

সৌজন্যে: শ্যামসুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স

অক্ষয় তৃতীয়ার অফার ও উপহার

অক্ষয় তৃতীয়া স্পেশাল দশটা ডিজাইন থেকে বেছে নিতে পারেন পছন্দের গয়না। এখন স্টোরগুলোতেও প্রচুর ডিজাইন। বাজেটমতো বেছে নিতে পারেন মনের মতো গয়না। এখন সোনার গয়নার মজুরিতে শতকরা ২০% ডিসকাউন্ট পাবেন। হীরের গয়নার মজুরিতে একশো পার্সেন্ট ছাড়, অর্থাৎ মজুরি লাগবে না।

সেইসঙ্গে, প্রত্যেক কেনাকাটায় রয়েছে আকর্ষণীয় উপহার। গয়নার ওজন পনেরো গ্রাম হলেই উপহারে থাকছে সোনার কয়েন। গয়নার ওজন যত বাড়বে গোল্ড কয়েনও তত বড় হবে। এছাড়া রোজ লাকি ড্রতে থাকছে তিনটে করে গোল্ড কয়েন। রয়েছে মেগা ড্রতে তিনতে নামী কোম্পানির বাইক জেতার সুযোগ। 

আভিজাত্যে সোনাকে টক্কর দেবে মেহগনি কাঠের এই গয়না

You might also like