Latest News

পঞ্চাশে পা দিলেন হিমাদ্রিকিশোর, পঞ্চাশতম বইতে গেঁথে দিলেন ‘অন্ধকারের কল্পগাথা’

সোমা লাহিড়ী

শীত তখন যাই যাই করছে। বাতাসের হিম ছাপিয়ে বসন্তের উষ্ণতা ছড়িয়ে পড়ছে শহরে। তেমনই এক সন্ধেতে দক্ষিণ কলকাতার কোল্যাব কফি কলকাতা ক্যাফেতে ডাক এসেছিল সাহিত্যিকের তরফে। বেশ মিঠেকড়া আমন্ত্রণ।
‘ আমার পঞ্চাশতম বই ছাপছে পত্রভারতী। উদ্বোধনে আপনাকে আসতেই হবে। না এলে কিন্তু আপনাকে ব্লক করে দেব।’
এমন উত্তাপ ছড়ানো আহ্বান উপেক্ষা করতে মন চায় না। তাই অফিসের মিটিং থেকে অব্যাহতি চেয়ে ,পড়ি কি মরি করে উপস্থিত হলাম ক্যাফেতে। ততক্ষণে শুরু হয়ে গেছে অনুষ্ঠান। বলছেন, বাচিক শিল্পী সতীনাথ মুখোপাধ্যায়। হিমাদ্রিকিশোরের লেখা রহস্য গল্প, থ্রিলার, ইতিহাসের প্রেক্ষাপটে লেখা উপন্যাস নিয়ে অনেক গভীর কথা উঠে এল তাঁর আলোচনায়। এমনকী পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত সাহিত্যের ইলাস্ট্রেশন প্রসঙ্গেও বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা শোনা গেল তাঁর মুখে। অভিনেতা রজতাভ দত্তের বক্তব্যে উঠে এল হিমাদ্রিকিশোরের থ্রিলারের টানটান ঘটনাপ্রবাহ আর রহস্যময় আবহের প্রসঙ্গ। অডিও বইপাঠের মাধ্যমেই তাঁর সঙ্গে লেখকের ঘনিষ্ঠতা তৈরি হয়েছে, সেকথাও বললেন অকপটে।প্রকাশনা সংস্থা ‘পত্রভারতী’র অন্যতম কর্ণধার সাহিত্যিক চুমকি চট্টোপাধ্যায়, হিমাদ্রিকিশোরের সাহিত্যের অভিনবত্বর দিকটিতে আলোকপাত করেন। আমার সম্পাদক জীবনে বহু সাহিত্যিকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা হয়েছে। তাঁদের লেখা পড়তে পড়তে দিন কেটেছে। কখনও তাঁদের লেখায় মুগ্ধ হয়েছি, আবার কখনও নিজের তেমন ভালো না লাগলেও নির্দিষ্ট পত্রিকার পাঠকের ভালো লাগাকে গুরুত্ব দিয়ে তাঁদের লেখা ছেপেছি।  লিখতে দ্বিধা নেই একমাত্র হিমাদ্রিকিশোরের প্রতিটা রহস্য উপন্যাস ও ভৌতিক গল্প আমি নিজেরও ভালো লেগেছে বলে ছেপেছি। কারণ মনে হয়েছে তা শুধু আমার নয়, পাঠকদেরও মনোরঞ্জন করবে। এবং তা করেছেও।অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি ফিরলাম ‘সাদা বিড়াল’ সঙ্গে  নিয়ে। বইটা পড়ার অবসর পাচ্ছিলাম না। পড়া শেষ হতেই কলম ধরলাম। পত্রভারতী থেকে প্রকাশিত এই বইটিতে চারটে গল্প আর দুটো উপন্যাস আছে। প্রত্যেকটাই ডার্ক ফ্যান্টাসি। লেখক যার বাংলাকরণ করেছেন, ‘অন্ধকারের কল্পগাথা’। মানুষের মনের যেমন একটা আলোকময় দিক আছে, তেমন আছে গহন কালো দিকও। হিংসা, দ্বেষ, অপরাধপ্রবণতা, প্রতিশোধের অদম্য ইচ্ছা, অমার্জিত যৌন আকাঙ্ক্ষা আশ্রয় করে মনের কালো দিকটাকে।এই বইয়ের প্রতিটা গল্পে লেখক ডুব দিয়েছেন মানব মনের এই অন্ধকার পঙ্কিল আবর্তে। তার সঙ্গে মিশেছে নানান অতিপ্রাকৃত ঘটনা। একটা হাড় হিম করা অনুভূতি পাঠককে স্তব্ধ করে রাখবে অনেকক্ষণ। বইটি প্রাপ্তমনস্কদের জন্য। ‘পত্রভারতী’ খুব যত্ন করে ছেপেছে বইটা। প্রচ্ছদ অলংকরণ করেছেন কৃষ্ণেন্দু মণ্ডল। দাম ২৯৯ টাকা।
আজ থেকে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক কলকাতা পুস্তক মেলা। পত্রভারতী থেকে প্রকাশিত হিমাদ্রিকিশোর দাশগুপ্তর রহস্য কাহিনি ও থ্রিলার ছাড়াও ঐতিহাসিক কাহিনিনির্ভর গ্রন্থ ‘চন্দ্রকলা ও চন্দন পুরুষ’, ‘কর্ণসুবর্ণর কড়ি’, ‘খাজুরাহো সুন্দরী’, ‘সোমনাথ সুন্দরী’ ইত্যাদি পাওয়া যাবে পত্রভারতীর স্টলে।এছাড়া দে’জ পাবলিশিংয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষে হিমাদ্রিকিশোরের তিনটি ইতিহাস আশ্রিত উপন্যাস নিয়ে প্রকাশিত হচ্ছে ‘বাজে গো বীণা’।
আর ‘সাহিত্যম’ থেকে প্রকাশিত হচ্ছে বিদেশের পটভূমিতে লেখা দুটি আডভেঞ্চার উপন্যাস নিয়ে তৈরি ‘ভুতুড়ে গুপ্তধন’। এটা কিশোরদেরও ভালো লাগবে।

You might also like