মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৮
TheWall
TheWall

পাকিস্তানে রোজ খুন হচ্ছে হিন্দু, শিখরা, ভারতে আশ্রয় নিতে চান ইমরানের দলের প্রাক্তন বিধায়ক

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো : পাকিস্তানের খাইবার-পাখতুনখাওয়া প্রদেশের বারিকোট সংরক্ষিত আসন থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন বলদেব কুমার। তিনি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল তেহরিক ই ইনসাফের নেতা। ৪৩ বছরের বলদেব সপরিবারে ভারতে চলে এসেছেন সোমবার। তিনি আর পাকিস্তানে ফিরতে চান না। তাঁর কথায়, সেদেশে সংখ্যালঘু হিন্দু ও শিখরা রোজ খুন হন।

২০১৬ সালে বলদেবের নির্বাচন কেন্দ্রের এক এমপিএ খুন হন। তখন বলদেবের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। ২০১৮ সালে তিনি অভিযোগ থেকে মুক্তি পান। তিনি জানিয়েছেন, আমাকে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হয়েছিল। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

পাকিস্তানে মোহাজির ও বালুচরা আগে বহুবার অভিযোগ করেছে, বিভিন্ন নিরাপত্তারক্ষী সংস্থা তাদের মানবাধিকার লঙ্ঘন করে। গত ৩ সেপ্টেম্বর পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে এক হিন্দু তরুণীকে অপহরণ করা হয়। পরে তাকে ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত করা হয়। এর আগেও একাধিকবার সিন্ধু প্রদেশে অপহরণ ও জোর করে ধর্মান্তরের অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। গত জুলাই মাসে সিন্ধু বিধানসভায় সর্বসম্মতভাবে একটি বিল পাশ করানো হয়। তাতে হিন্দু তরুণীদের অপহরণ ও জোর করে ধর্মান্তকরণকে কঠোরভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

গত এপ্রিলে পাকিস্তানের হিউম্যান রাইটস কমিশন বার্ষিক রিপোর্টে হিন্দু ও খ্রিস্টান মেয়েদের অপহরণ ও জোর করে ধর্মান্তর নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল। গত বছরে শুধু সিন্ধু প্রদেশেই ১ হাজার অপহরণ ও ধর্মান্তরের অভিযোগ ওঠে।

পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের মধ্যে হিন্দুদের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, সেদেশে ৭৫ লক্ষ হিন্দু বাস করেন। কিন্তু হিন্দুরা বলে, পাকিস্তানে তাদের সম্প্রদায়ের ৯০ লক্ষ মানুষ মাস করে। তাদের এক বড় অংশ থাকে সিন্ধু প্রদেশে।

Share.

Comments are closed.