Latest News

ভোটের আগে রক্তাক্ত বারুইপুর, তৃণমূল-আইএসএফ সংঘর্ষে মৃত ১

দ্য ওয়াল ব্যুরো, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: ভোটের আবহে তেতে উঠল বারুইপুর। তৃণমূল ও সংযুক্ত মোর্চার কর্মী সমর্থকদের লড়াইয়ে প্রাণ গেল একজনের। তিনি তৃণমূলের কর্মী হিসেবে পরিচিত। মৃতের নাম রুহুল আমিন মিদ্দে(৬০)। গুরুতর জখম অবস্থায় বারুইপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তাঁকে। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর।

বুধবার সন্ধে নাগাদ বারুইপুর পূর্ব বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী বিভাস সরদারের সমর্থনে প্রচারে বেরিয়েছিলেন তৃণমূলের কর্মী সমর্থকেরা। তৃণমূলের অভিযোগ, বেলেগাছি গ্রামে প্রচার চলার সময় আইএসএফের কর্মী সমর্থকরা মিছিলে হামলা চালায়। তাঁদের মারে গুরুতর জখম হন রুহুল আমিন মিদ্দে সহ আরও বেশ কয়েকজন। এরমধ্যে রুহুল আমিনের আঘাতই ছিল সবথেকে গুরুতর।

সঙ্গে সঙ্গে আহতদের নিয়ে ভর্তি করা হয় বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে। অবস্থা আশ্ঙ্কাজনক হওয়ায় রুহুল আমিনকে কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়। পরে কলকাতায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর।

তৃণমূলকর্মীর মৃত্যু খবর আসতেই তেতে ওঠে গোটা এলাকা। শুরু হয় একের পর এক বাড়ি ভাঙচুর। আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু হয় বারুইপুরের বিভিন্ন এলাকায়। বিশাল পুলিশ বাহিনী রাতভর পরিস্থিতি সামলায়। এখনও উত্তেজনা থাকায় গ্রামে টহল দিচ্ছে পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী।

তৃণমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি শ্যামসুন্দর চক্রবর্তী বলেন, “রাতে আইএসএফ, সিপিআইএম ও বিজেপি গোপন বৈঠক করছিল বেলেগাছি এলাকায়। সেই সময় অতর্কিতে আমাদের উপর তারা হামলা চালায়। যার ফলে আমাদের ৫ জন কর্মী সমর্থক গুরুতর আহত হয়। তাঁদের মধ্যে মৃত্যু হয় একজনের।”

যদিও তৃণমূলের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ এনেছেন সংযুক্ত মোর্চা সমর্থিত সিপিআইএম প্রার্থী স্বপন নস্কর। তাঁর অভিযোগ বেলেগাছিতে সংযুক্ত মোর্চার এক কর্মীর বাড়িতে বুধবার রাতে বৈঠক চলছিল। অতর্কিতে তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা সেখানে হামলা চালায়। হামলার ঘটনায় ৫ জন সংযুক্ত মোর্চা কর্মী আহত হয়েছেন। যার মধ্যে তিনজন এখনও নিখোঁজ।

 

You might also like