Latest News

‘দিদি আপনি আমায় লাথি মারতে পারেন, বাংলার বিকাশে লাথি মারতে দেব না’: বাঁকুড়া থেকে প্রধানমন্ত্রীর লাইভ হাইলাইটস

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এই নিয়ে চতুর্থবার নির্বাচনী প্রচারে বাংলায় এলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গতকাল অভিনেতা হিরণের সমর্থনে খড়্গপুরে গিয়ে প্রচার করেছেন মোদী। তার পরে, আজ রবিবার, বাঁকুড়ার তিলাবেদিয়া ময়দানের জনসভায় এসে পৌঁছেছেন তিনি। দেখুন সেখান থেকে তাঁর বক্তৃতার লাইভ হাইলাইটস।

  • ভারত মাতাকি জয়। জয় জোহার।
  • লালমাটির দেশ এই বাঁকুড়া। লালমাটির রাঙাধুলোয় আমার মন ভুলায় রে। এই পবিত্র মাটিকে আমি প্রণাম করি মাথা ঝুঁকিয়ে।
  • আমার মনে হয় আপনারা ব্রিগেড ময়দান থেকে অনুপ্রাণিত। আমি চারদিকে লোক আর লোক দেখছি। আজ হেলিকপ্টার থেকে নেমে গাড়িতে আসার সময়ও দেখেছি, কত লোক।
  • মা, বোন আপনাদের প্রণাম করছি, আপনারা আমায় আশীর্বাদ করুন।
  • বন্ধুরা, আমার মনে আছে, আমি যখন লোকসভা নির্বাচনের সময়ে আপনাদের আশীর্বাদ চাইতে এসেছিলেন, তখন বাঁকুড়ায় দিদি কী কী করেছিলেন! সব রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছিলেন, পুলিশ লাগিয়েছিলেন, তবু আমরা করেছিলাম প্রচার।
  • এখানকার মানুষদের ভয় দেখাতে কী করেননি দিদি! কিন্তু আমি বাঁকুড়ার মানুষদের প্রশংসা করব, দিদির সব চেষ্টার পরেও তাঁরা ভোটের দিন চুপচাপ পদ্মফুলে ছাপ দিয়েছিলেন। আপনারা বিজেপিতে জিতিয়ে দিয়েছিলেন।
  • আজও আপনারা এত মানুষ বিজেপিকে আশীর্বাদ করতে এসেছেন। ২ মে দিদি যাচ্ছে। আসল পরিবর্তন আসছে।
  • আসল পরিবর্তন বাংলার বিকাশের জন্য, গরিবি দূর করার জন্য। এমন সরকার আসবে বাংলায়, যারা একশো শতাংশ পয়সা গরিবদের পৌঁছে দেবে। বাংলায় এক এমন সরকার আনার পরিবর্তন, যা তোলাবাজ ও সিন্ডিকেটদের জেলে পাঠাবে।
  • দিদি, ও দিদি, ভ্রষ্টাচারের খেলা চলবে না চলবে না।
  • আজকাল সারা দেশে রামপালা চলছে। সকলেই শ্রী রামের নাম নিচ্ছেন। আর ভাবুন, দিদি রাম নিয়ে কী না কী বলেছেন। ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতি ওঁর আসল চেহারা বার করেছে।
  • দিদি, আপনি আসল চেহারা দশ বছর আগে দেখালে বাংলায় আপনার সরকার হতো না।
  • এই হিংসা, এই অত্যাচারই যদি করার ছিল, তাহলে মা, মাটি, মানুষের কথা কেন বললেন!
  • আজ বাংলার ভোটে টিএমসি-কে সবক শেখানোর সময় এসেছে।
  • দিদি ওঁর রাগ আমার ওপর উগরে দিচ্ছেন। আমি দেখেছি, দিদির লোক দেওয়ালে ছবি এঁকেছে, আমার মাথায় দিদির পা। আমার মাথা নিয়ে দিদি ফুটবল খেলছেন।
  • বাংলার সংস্কার, পরম্পরার অপমান কেন করছেন দিদি! এই বাংলা তো দেশকে দিশা দেখাবে।
  • আমি আজ বাঁকুড়া থেকে দিদিকে কিছু স্পষ্ট কথা বলছি। আমি তো আমার মাথা দেশের ১৩০ কোটি নাগরিকের সেবায় ঝুঁকিয়ে রাখি।
  • আমায় বা আমার পার্টিকে ডক্টর শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী এই সংস্কারই শিখিয়েছে।
  • তাই দিদি, যদি আপনি চান, আমার মাথায় পা রাখতে পারেন, লাথিও মারতে পারেন।
  • কিন্তু দিদি, আমার আর একটা কথাও শুনে নিন। আমি আমার গরিব ভাইবোনদের লাথি মারতে দেব না।
  • দিদি, আরে দিদি, ও দিদি, আপনি ভাবছিলেন আপনাকে কেউ কোনও প্রশ্ন করবে না। কিন্তু আজ পুরো বাংলা আপনাকে প্রশ্ন করছে।
  • যুবকরা হয়রান হয়ে গেছে। চারদিকে হতাশা। আপনি দশ বছরে শুধু ফাঁপা ঘোষণা করেছেন। এই জন্য আপনি বলছেন খেলা হবে, খেলা হবে। দশ বছর খেলে আপনার মন ভরেনি? এখনও খেলা হবে বলছেন?
  • পশ্চিমবঙ্গ হাঁপিয়ে গেছে। খেলা শেষ হবে, বিকাশ আরম্ভ হবে।
  • দিদি ও ওঁর সরকার দশ বছর ধরে পশ্চিমবঙ্গে কী খেলা করেছেন, তা সকলে জানেন। আমাদের অনেক আদিবাসী সাথী এই খেলায় শহিদ হয়েছেন। টিএমসির নেতারা অবশ্য মালামাল হয়ে উঠেছেন।
  • বড়বড় গাড়ি, বাড়ি কার পয়সায় করেছে ওরা দিদি? এগুলো গরিবের পয়সা, আপনাদের পয়সা লোঠা হয়েছে।
  • ঘর বানানোর সব জিনিসে কাটমানি। সিন্ডিকেটওয়ালাদের পকেট ভরছে।
  • আমি দিদির কাছে যত প্রশ্ন করি, উনি তত আমার ওপর রাগ করেন।
  • দিদির তো আমার চেহারাও পছন্দ নয়। আরে দিদি, লোকতন্ত্রের চেহারা নয়, মানুষের সেবা দেখুন।
  • আমার চেহারা আপনি খারাপ দেখেছেন, কিন্তু বাঁকুড়ার মেয়ে, আমাদের প্রার্থী চন্দনার চেহারা আপনি কখনও ভুলবেন না। চন্দনা বাংলার বিকাশের প্রতীক। এ সেই চেহারা, যাঁকে আপনি বঞ্চিত করেছেন, যাঁকে তোলাবাজরা হেনস্থা করেছে।
  • এখন এই চেহারাই পশ্চিমবঙ্গের হক পাইয়ে দেবে। এটাই আসল পরিবর্তনের চেহারা। এটাই সোনার বাংলা নির্মাণের চেহারা।
  • বন্ধুরা, এইবার আমাদের বিধানসভা পাইয়ে দিন, যাতে চন্দনা আপনাদের সেবা করতে পারে।
  • বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে নতুন আশা নিয়ে আসবে। সোনার বাংলা আরও এগোবে। উন্নত সরকার তৈরি হবে।
  • আপনাদের অনেকগুলো বছর বরবাদ করেছে কংগ্রেস, সিপিএম, তৃণমূল। আপনাদের ভবিষ্যৎ আর বরবাদ হতে দেব না। এই তিন পার্টির জন্য বাংলা অনেক পিছিয়ে গেছে।
  • আর ২৫ বছর পরে এ দেশে স্বাধীনতার ১০০ বছর হবে। তার মধ্যে দেশকে ভ্রষ্টাচারমুক্ত করতে হবে। তাই এইবার বাংলায় বিজেপি সরকার খুব জরুরি।
  • বিজেপির ডবল ইঞ্জিন সরকার হওয়া মাত্র শিক্ষায় বিপুল পরিবর্তন আসবে।
  • বাংলার সমস্ত গ্রামে ফাইবার অপটিক্যাল বসিয়ে ইন্টারনেট পৌঁছে দেওয়া হবে।
  • আয়ুষ্মান ভারত যোজনা চালু করা হবে।
  • বিষ্ণুপুর টেরাকোটার ভূমি। পরম্পরা আর ঐতিহ্যের ভূমি। বাঁকুড়ায় ঐতিহাসিক স্থাপত্য আছে। এখানে পর্যটন শিল্প করা যাবে। এখানকার কারিগরদের হাতে জাদু আছে। ডোকরা, টেরাকোটার শিল্প আত্মনির্ভর ভারত গড়ে তুলবে। লোকালদের প্রতিভা সারা দেশে ভোকাল করা হবে।
  • এখানকার টোরাকোটা শিল্প দেশদুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়বে। আমাদের সরকার সকলের কথা বুঝেছে।
  • ডবল ইঞ্জিন সরকারকে আনতে যারা বাধা দেবে, তাদের দূর করে দিন।
  • বিজেপি স্কিমে চলে, টিএমসি স্ক্যামে চলে। স্কিম যে সরকারই করুক না কেন, টিএমসি শুধু স্ক্যামই করেছে।
  • বন্ধুরা, আসুন আমরা সঙ্কল্প করি। এবার হবে আসল পরিবর্তন। এবার গড়ব সোনার বাংলা। এবার আসছে বিজেপি। নিশ্চয় আসছে বিজেপি।
  • ভারত মাতাকি জয়। বন্দে মাতরম।

You might also like