Latest News

মুখ রাখলেন বাবার, কুস্তিতে মারণপ্যাঁচে কাবু করলেন বিপক্ষকে, সহজেই ব্রোঞ্জ জয় বজরংয়ের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: লড়াইয়ের আগে গ্রামের বাড়িতে বসে বজরং পুনিয়ার বাবা জানিয়েছিলেন, ছেলের বিষয়ে তিনি একশোভাগ নিশ্চিত, ছেলে পদক নিয়েই ফিরবেনই।

বাবাই বজরংয়ের প্রথম কোচ, ছোটবেলায় হাতেখড়ি বাবার কাছে। তিনিও ছিলেন নামী কুস্তিগির। পারেননি চালিয়ে যেতে, ছেলের মাধ্যমে স্বপ্নপূরণ হল তাঁর। হরিয়ানার খুদান গ্রামের বাড়িতে তিনি হয়তো এর পরে উৎসবে মাতবেন, গ্রামবাসীকে আনন্দে লাড্ডু বিলোবেন।

তাঁর সুযোগ্য ছেলে যে কথা রেখেছেন, জিতলেন ব্রোঞ্জ, হারালেন কাজাখস্তানের দৌলত নিয়াজবেকভকে।  ফল বজরংয়ের পক্ষে ৮-০। মারণপ্যাঁচে বিপক্ষকে পয়েন্টই তুলতেই দেননি বজরং। তিনি কেন এশিয়ান গেমসে সোনা জয়ী, বারবার লড়াইয়ে বুঝিয়েছেন। তিনি সোনা হারানোর পরে বাবাকে কথা দিয়েছিলেন, পদক নিয়ে ফিরবেন, বাবার কথা রাখলেন, দেশকে গৌরবান্বিত করলেন দেশের অন্যতম সেরা পালোয়ান।

গতকাল দুটি ম্যাচে নেমেছিলেন বজরং, প্রথম ম্যাচে জিতে সেমিফাইনালে গেলেও পরের ম্যাচে নেমে হারেন। এবং সেখানেই শেষ হয়ে যায় সোনা জয়ের স্বপ্ন। কিন্তু তিনি যে সোনা হারানোর পরে যে কোনও মূল্যে পদক জিততে প্রস্তুত ছিলেন, সেটি এদিনের লড়াইয়ে বোঝা গিয়েছে। তিনি বিপক্ষকে মাথা তুলে দাঁড়াতেই দেননি। না হলে ৮-০ স্কোর তো স্বপ্নের স্কোরে প্রমাণিত হয়েছে।

গতকাল যদিও বজরং আজারবাইজানের হাজি অ্যালাইভের কাছে ৫-১২ ব্যবধানে হেরে হতাশই করেছিলেন। সেমিফাইনাল বাউটেও বজরং ভালই শুরু করেছিলেন, কিন্তু বিপক্ষের আক্রমণাত্মক মেজাজ থামাতে কী কৌশল নিতে হবে, সেটি তিনি বুঝতে পারেননি।

এমনকি চাপের মুখে কিভাবে মাথা ঠান্ডা করে ম্যাচ বের করতে হবে, তাও অজানা ছিল সোনপতের কুস্তিগিরের। বিপক্ষের কুস্তিগির তাঁকে দু’বার টেকডাউন করে দিয়েছিলেন।

সব সুদে আসলে পূরণ করলেন বজরং, তিনি সব ত্রুটি শুধরে দেশকে গর্বিত করলেন। গতকালই যদিও দিনের শুরুতে সকালে স্বপ্নের লড়াই লড়ে সেমিফাইনালে চলে গিয়েছিলেন বজরং। সোনপতের ২৭ বছরের এই কুস্তিগির কোয়ার্টার ফাইনালে হারান ইরানের মোরতেজা ইয়াসি চেকাকে। প্রথমে পিছিয়ে থাকলেও শেষ রাউন্ডে প্রত্যাঘাত হানেন বজরং, তাতেই বাজিমাত।

চেকার বিরুদ্ধে কোয়ার্টার ফাইনাল বাউটে কোনও রকম তাড়াহুড়ো করেননি বজরং। প্রথম পিরিয়ডে নিতান্ত সতর্ক দেখায় ভারতীয় তারকাকে। বরং ইরানের কুস্তিগীর প্রথম পিরিডয়ে ১ পয়েন্ট সংগ্রহ করেন এবং ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকেন।পরের রাউন্ডের শুরুতেই ২ পয়েন্ট সংগ্রহ করেন বজরং এবং গিয়াসিকে টেক ডাউন করে (ভিকট্রি বাই ফল) জয় নিশ্চিত করেন তিনি।

You might also like