বুধবার, জানুয়ারি ২২
TheWall
TheWall

শিল্পে উৎপাদন বৃদ্ধি কমে মাত্র ২ শতাংশ

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কিছুদিন আগেই শোনা গিয়েছিল, গাড়ি শিল্পের অবস্থা খুব খারাপ। এদেশে বিভিন্ন গাড়ি ও মোটর সাইকেল ও তার যন্ত্রাংশ নির্মাতা সংস্থা ও ডিলাররা সাড়ে তিন লক্ষ কর্মী ছাঁটাই করেছেন। এবার জানা গেল, শুধু গাড়ি নয়, সামগ্রিকভাবে শিল্পে উৎপাদন বৃদ্ধির হারই কমছে।

শিল্পে উৎপাদন বৃদ্ধির হার মাপা হয় ইনডেক্স অব ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোডাকশন নামে এক সূচক দিয়ে। তাতে দেখা যাচ্ছে, গত মে মাসে শিল্পে উৎপাদন বৃদ্ধির হার ছিল ৩.১ শতাংশ। জুন মাসে আরও কমে হয়েছে দুই শতাংশ। ২০১৮ সালের জুন মাসে শিল্পে উৎপাদন বৃদ্ধির হার ছিল সাত শতাংশ। এবছর শিল্পে বৃদ্ধির হার কয়েক মাস ধরে টানা কমছে। কেন্দ্রী সরকারের স্ট্যাটিসটিকস অ্যান্ড প্রোগ্রাম মন্ত্রক থেকে এই তথ্য জানা যায়।

এর পাশাপাশি গাড়ি শিল্প নিয়েও ফের খারাপ খবর শোনা গিয়েছে শুক্রবার। দেশের দুই প্রথম সারির গাড়ি নির্মাতা সংস্থা টাটা মোটরস ও মাহিন্দ্রা অ্যান্ড মাহিন্দ্রা শুক্রবার জানিয়েছে, বাজারে চাহিদা যে হারে কমেছে, তাতে তারা কয়েকটি কারখানায় উৎপাদন কমিয়ে দেবে। গাড়ি শিল্পের কর্তারা জানিয়েছেন, অর্থনীতির এই ক্ষেত্রে এতবড় মন্দা খুব কমই এসেছে।

শিল্পে উৎপাদন বৃদ্ধি কমার জন্য দায়ী করা হচ্ছে মূলত খনি ও ম্যানুফ্যাকচারিং ক্ষেত্রকে। ম্যানুফ্যাকচারিং ক্ষেত্রে জুন মাসে উৎপাদন বেড়েছে মাত্র ১.২ শতাংশ। ২০১৮ সালের জুন মাসে বেড়েছিল ৬.৯ শতাংশ। খনি ক্ষেত্রে জুনে উৎপাদন বেড়েছে মাত্র ১.৬ শতাংশ। গত বছর এইসময় উৎপাদন বৃদ্ধির হার ছিল ৬.৫ শতাংশ।

টাটা মোটরস আগেই বলেছিল, বাজারের অবস্থা বেশ চ্যালেঞ্জিং। শুক্রবার জানিয়েছে, পুনেয় তাদের প্ল্যান্টে বেশ কয়েকটি ব্লক বন্ধ আছে। গত মাসে ওই সংস্থা জানিয়েছিল, তার আগের ত্রৈমাসিকে তাদের এত ক্ষতি হয়েছে, যা কেউ ভাবতেই পারেনি। দেশের বাজারে চাহিদা কম। তার ওপর ব্রিটিশ লাক্সারি কার ইউনিটেও কিছু সমস্যা ছিল। তাই এত ক্ষতি হয়েছে।

মাহিন্দ্রা অ্যান্ড মাহিন্দ্রা শুক্রবার জানিয়েছে, তারা বিভিন্ন কারখানায় আগামী আট থেকে ১৪ দিন পর্যন্ত যাত্রীবাহী ও বাণিজ্যিক গাড়ি এবং যন্ত্রাংশ নির্মাণ কমিয়ে দেবে।

Share.

Comments are closed.