Latest News

দিদি পালাল বিয়ের রাতে, সিঁদুর উঠল বোনের সিঁথিতে! মহা ধূমধামে গাছে উঠছে সিরিয়ালের গরু

শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়

কথায় আছে জন্ম, মৃত্যু, বিয়ে, তিন বিধাতা নিয়ে। সেই প্রবাদ মিলে যাচ্ছে স্টার জলসার সম্প্রতি জনপ্রিয় হওয়া সিরিয়াল ‘গাঁটছড়া’র প্লটের সঙ্গে। তিনটি জুটি, তিনটি প্রেম। যে যাকে ভালবাসছে বিয়ে হচ্ছে তাঁর উল্টো জনের সঙ্গে। আসলে সবই যে আছে আগে থেকে লেখা, বাঁধা যে আছে মনের গাঁটছড়া।

গৌরব চট্যোপাধ্যায় ও শোলাঙ্কি রায় অভিনীত ‘গাঁটছড়া’ বর্তমানে সবথেকে জনপ্রিয় সিরিয়াল হয়ে উঠেছে।তিন বোনের গল্প। দ্যুতি, খড়ি ও বনি। বড়লোক বাড়িতে মেয়ের বিয়ে দিতে তাঁদের মা মরিয়া। মা লোক দেখানোতে বিশ্বাসী। মায়ের পথেই চলে বড় মেয়ে রূপসী দ্যুতি। কিন্তু মেজো মেয়ে খড়ি একদম উল্টো, যে বড়লোকদের অপছন্দ করে। সিংহরায় পরিবারের জগদ্ধাত্রী পুজোতে ধুনচি নাচ নেচেই দ্যুতি ওরফে শ্রীমা তাক লাগিয়ে দিয়েছে সিংহরায় পরিবারের বড় ছেলে ঋদ্ধিমান ওরফে গৌরবকে। প্রথম দেখাতেই সুন্দরী দ্যুতির প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছে ঋদ্ধিমান। অথচ তাঁকে দু’চক্ষে সহ্য করতে পারে না দ্যুতির বোন খড়ি ওরফে শোলাঙ্কি। তার কাছে ঋদ্ধিমান বদমেজাজী, বড়লোক বাড়ির উদ্ধত ছেলে। অথচ ভাগ্যচক্রে লেখা আছে ঋদ্ধিমান-খড়ির গাঁটছড়া বাঁধা হবেই। তাই জগদ্ধাত্রী পুজোর ভাসানে ঋদ্ধিমানের হাতে লাগা সিঁদুরের থালা উল্টে পড়ে গিয়ে খড়ির সিঁথিতে। কিন্তু এবার সত্যিসত্যি প্রকাশ্যে ঋদ্ধিমানের হাতে সিঁদুর পরতে চলেছে খড়ি।গত মাসেই শুরু হয়েছে স্টার জলসার নতুন মেগা ‘গাঁটছড়া’। বর্তমান সময়ে দর্শকদের কাছে সবথেকে জনপ্রিয় সিরিয়াল।

ঋদ্ধিমান আর দ্যুতির বিয়ের পাকা কথা হয়ে গেছে। কিন্তু দ্যুতি ভালবেসে ফেলেছে ঋদ্ধিমানের পিসতুতো ভাই রাহুল ওরফে অনিন্দ্যকে। রাহুল চিরকাল ঋদ্ধিমানের সব জিনিস কেড়েই নিতে জানে। তাই ঋদ্ধির বউকেও সে কেড়ে নিতে চায়। যা ঘুনাক্ষরেও জানে না ঋদ্ধি।এবার বিয়ে হতে চলেছে ঋদ্ধি ও দ্যুতির। বিয়ের সন্ধ্যেতে এদিকে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় নতুন হবু বউ দ্যুতি। মেয়ে পালিয়েছে, তাই দ্যুতির মায়ের এত চেষ্টা, এত মিথ্যে কথা বলা, বড়লোকদের মতো সাজার চেষ্টা বিফলে গেছে। তাই আত্মহত্যার চেষ্টা করছে খড়ি-দ্যুতির মা। সে গলায় দড়ি দেবে, যদি এই বিয়ে না হয়! দড়ি হাতে মায়ের আদেশ মেয়ে খড়ির উদ্দেশে, ‘হয় তুই দ্যুতির জায়গায় কনের সাজে মন্ডপে যাবি, নয়তো আমার মরা মুখ দেখবি’।এরপর এসে গেছে ‘গাঁটছড়া’ সিরিয়ালের নতুন প্রোমো। সেখানে দেখা যাচ্ছে, ঋদ্ধি ও খড়ির বিয়ে হয়ে গেল, বিয়ের আগের মুহূর্তেই খড়ি যে দ্যুতি নয় তা জেনে গেছে ঋদ্ধি। খড়িই জানিয়েছে ঋদ্ধিকে। দ্যুতির সঙ্গে বিয়ের কথা থাকা সত্ত্বেও ঋদ্ধি কেন বিয়ে করল খড়িকে? তাহলে কি দ্যুতিকে বাদ দিয়ে খড়িকেই ভালবাসে ঋদ্ধি? এদিকে ঋদ্ধি অর্থাৎ গৌরব বিয়ের মণ্ডপেই খড়িকে জানিয়ে দিয়েছে, ‘ঠকিয়ে বড়লোকের বউ হওয়ার মাশুল দেবেন আপনি সারাজীবন’। কী মাশুল দেবে খড়ি। সেটাই তো দেখবার বিষয়। এ কী অপবাদ পেল শোলাঙ্কি? সত্যিই কি খড়ি বড়লোককে বিয়ের লোভ সামলাতে পারেননি! একদমই না, মাকে অপমানের জ্বালায় আত্মহত্যা করা থেকে বিরত করতে বাধ্য হয়েই খড়ি মেনে নিয়েছিল ঋদ্ধিকে বিয়ে করতে।‘গাঁটছড়া’ সিরিয়ালের চিত্রনাট্য বেশ কাল্পনিক। বাস্তবে এসব অনেক কিছুই অসম্ভব। কিন্তু সিরিয়ালে গল্পের গরু গাছে ওঠে, একেবারে জমজমাট আয়োজনে। তাই সেসব দেখতে অনেকেরই মন্দ লাগছে না। বিশেষত খড়ির মা তনুকা দেবীর কমেডি অভিনয় টিআরপি তুলছে সিরিয়ালের। অতি অভিনয় তিনি করলেও চরিত্রটি ফাটাফাটি। জুন মালিয়াও নজর কাড়ছেন আধুনিকা ঐতিহ্যশালী শাশুড়ি মায়ের রোলে। ছোট বোন বনির রোলে অনুষ্কা গোস্বামীও জমিয়ে দিয়েছে সিরিয়ালের প্লট।গৌরব-শোলাঙ্কি জুটি বিয়ের পরে এবার কী ভাবে জমিয়ে তুলবে সিরিয়াল? খড়ি কী দশকর্মা ভাণ্ডার সামলে সিংহরায় পরিবারের হীরের ব্যবসারও হাল ধরবে? সেটাই এখন দেখার। গৌরব-শোলাঙ্কির রাগের পর অনুরাগ দেখতেও আকুল দর্শককুল।

You might also like