Latest News

মুখে ‘মাদার টেরিজা’র বাণী, ক্ষুধার্তদের অন্নসংস্থান করলেন জ্যাকলিন ফার্ণাণ্ডেজ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দেশব্যাপী মহামারী। করোনার রক্তচক্ষু মানুষের জীবনকে অনিশ্চিত করে তুলছে। এইসময় যে যেমন ভাবে পারছেন এসে দাঁড়াচ্ছেন মানুষের পাশে। বলিপাড়াতে সোনু সুদ সেই কাজের নজির গড়েছেন, এবার এগিয়ে এলেন বি-টাউনের ‘ব্লোড অ্যান্ড বিউটিফুল গার্ল’ জ্যাকলিন ফার্ণাণ্ডেজ।

জ্যাকলিন সম্প্রতি একটি সংস্থা খুলেছেন। নাম দিয়েছেন ‘ওয়াই ও এল ও’ (ইউ ওনলি লিভ ওয়ান্স)। এই সংস্থা দয়া-মায়া-মমতার কথা বলবে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটা এনজিও-র সঙ্গে জুটি বেঁধেছে জ্যাকলিনের সংস্থা।

সদ্যই জ্যাকলিন তাঁর সংস্থার হয়ে রোটি ব্যাঙ্ক ফাউন্ডেশনে গিয়েছিলেন। খুব ঘনিষ্ঠভাবে এই এনজিও-র সঙ্গে কাজ করে জ্যাকলিনের সংস্থা। কী করলেন সেখানে গিয়ে নায়িকা? যাঁদের দুবেলা দুমুঠো অন্ন জোটে না, তাঁদের জন্য রান্না করলেন জ্যাকলিন এবং তাঁর গোটা টিম। তারপর সেই খাবার ক্ষুধার্তের মুখে তুলে দিলেন তিনি। এই প্রসঙ্গে তিনি মাদার টেরিদার কথা বলেন। জ্যাকলিন মাদারের কথা উল্লেখ করে বলেন, “ক্ষুধার্তদের মুখে খাবার তুলে দিলেই একমাত্র শান্তি পাওয়া যায়।” এই কঠিন পরিস্থিতিতে শান্তির খোঁজে বেরিয়েছেন জ্যাকলিন।

সোশ্যাল মিডিয়াতে এই বিষয়ে পোস্ট করার সময় জ্যাকলিন জানান যে তিনি অনাবিল আনন্দ পেয়েছেন এই কাজটি করতে পারছেন বলে। তিনি লিখেন, “প্রাক্তন মুম্বই পুলিশ কমিশনার মিঃ ডি শিবানন্দ এই রোটি ব্যাঙ্ক ফাউন্ডেশন এনডিওটি চালান। আমি এই এনজিও-র সঙ্গে কাজ করতে পেরে সত্যি খুব উৎসাহিত বোধ করছি। লাখ লাখ মানুষের দুবেলা খাবারের দায়িত্ব নিয়েছে এই এনজিও। আমি নিজে এই ধরণের কাজে যুক্ত হতে পেরে গর্বিত বোধ করছি।” জ্যাকলিন এই কঠিন পরিস্থিতিতে শুধু ক্ষুধার্ত মানুষ নয়, রাস্তার পশুদেরও খাবারের ব্যবস্থা করেছেন।

You might also like