Latest News

‘মহিষাসুরমর্দিনী’ সৃষ্টির নেপথ্যে ছদ্মনামে লুকিয়ে আছেন এই বাঙালি কবি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মহালয়ার ভোরে রেডিওতে বেজে ওঠা ‘মহিষাসুরমর্দিনী’ ছাড়া আজও বাংলার বুকে পুজো শুরু হয় না। ‘মহিষাসুরমর্দিনী’কে নিয়ে বাঙালির নস্টালজিয়া কিছু কম নয়। আর সেই নস্টালজিয়ার সঙ্গে ওতপ্রোত জড়িয়ে আছে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের নাম। তাঁর কণ্ঠের জনপ্রিয়তার সামনে হার মানতে হয়েছিল স্বয়ং মহানায়ক উত্তমকুমারকেও। কিন্তু শুধু বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্র বা পঙ্কজ মল্লিক নয়, ‘মহিষাসুরমর্দিনী’ সৃষ্টির আড়ালে লুকিয়ে আছে আরও এক বঙ্গসন্তানের নাম। পরনে কোঁচানো ধুতি-পাঞ্জাবি, ঝকঝকে কালো পাম্পশু, মুখে পান, চোখে সোনালি ফ্রেমের চশমার সেই সৌম্যকান্তি মানুষটির হাতেই রূপ পেয়েছিল এই গীতিআলেখ্য। হ্যাঁ, কথা হচ্ছে সেকালের বিখ্যাত কবি, নাট্যকার বাণীকুমারকে নিয়ে। (Banikumar)

Image - 'মহিষাসুরমর্দিনী' সৃষ্টির নেপথ্যে ছদ্মনামে লুকিয়ে আছেন এই বাঙালি কবি
সেই বিখ্যাত ত্রয়ী- বাণীকুমার, পঙ্কজ মল্লিক আর বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্র

বাণীকুমার তাঁর ছদ্মনাম। আসল নাম বৈদ্যনাথ ভট্টাচার্য। জন্ম ১৯০৭ সালের ২৩ নভেম্বর। বাবা বিধুভূষণ ভট্টাচার্য ছিলেন সেকালের বেশ নামকরা পণ্ডিত। বিধুভূষণ এবং তাঁর স্ত্রী অপর্ণাদেবীর দুই ছেলে দুই মেয়ে। বড় ছেলে বৈদ্যনাথ জন্মেছিলেন মামারবাড়ি হাওড়ার কানপুর গ্রামে। পড়াশোনাও হাওড়া জেলাতেই। তাঁর স্কুলের শিক্ষক ছিলেন বিখ্যাত কবি করুণানিধান বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁরই উৎসাহে ছাত্র বৈদ্যনাথের কবিতা লেখায় হাতেখড়ি।

প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে ইংরেজি অনার্সে ফার্স্ট ক্লাস ফার্স্ট হয়েছিলেন মেধাবী ছাত্র বৈদ্যনাথ। আর উত্তরাধিকারসূত্রে পেয়েছিলেন সংস্কৃতের প্রতি ভালোবাসা। প্রথাগত ডিগ্রির পাশাপাশি চলে সংস্কৃতচর্চাও। দেবভাষায় কবিতা লিখে ‘কাব্যসরস্বতী’ উপাধিও পান বৈদ্যনাথ। (Banikumar)

১৯৩০ সাল নাগাদ মার্কণ্ডেয় পুরাণের কাহিনি অবলম্বন করে একটি চম্পুকাব্য রচনা করেন বাণীকুমার। নাম দেন ‘বসন্তেশ্বরী’। বাণীকুমারের বয়স তখন মাত্র ২৫ বছর। সে বছরই বাসন্তী পুজোর ষষ্ঠীতে আকাশবাণীর এক অনুষ্ঠানে সম্প্রচারিত হয় ‘বসন্তেশ্বরী’। গানের দিকে পঙ্কজ মল্লিক, রাইচাঁদ বড়াল তো ছিলেনই, তার সঙ্গে ছিলেন হরিশচন্দ্র বালি। কাব্যপাঠে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্র আর শ্লোকপাঠে স্বয়ং বাণীকুমার। কিছুদিন পর দুর্গাষষ্ঠীর ভোরে সেই আলেখ্য সম্প্রসারিত হল ‘মহিষাসুর বধ’ নামে। ১৯৩৭ এ করে নাম বদলে নতুন চেহারা নেয় সেই রচনা। জন্ম নেয় ঐতিহাসিক গীতিআলেখ্য ‘মহিষাসুরমর্দিনী’।

You might also like