বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪

সত্যিই কি রণবীর-আলিয়ার বিয়ে! কী বলছেন নায়িকা নিজে, দেখুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আগামী বছর ২২ জানুয়ারিই নাকি বিয়ে করছেন রণবীর-আলিয়া!

সোমবার থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে এই গুঞ্জন। সৌজন্যে একটি কার্ড। যেখানে লেখা রেখা রয়েছে ২০২০ সালের ২২ জানুয়ারি রণবীর-আলিয়ার ‘শগুন সেরিমনি’ হতে চলেছে। যোধপুরের উমেদ ভবনে বসবে আসর। ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রণ পত্রে জ্বলজ্বল করছে ঋষি কাপুর এবং নীতু সিংয়ের নামও। তবে গলদ রয়েছে আলিয়ার অভিভাবকের নামের ক্ষেত্রে। মহেশ ভাটের বদলে লেখা হয়েছে মুকেশ ভাটের নাম। সম্পর্কে মুকেশ ভাট আলিয়ার কাকু হন।

গোটা ব্যাপারটা চোখে পড়তে অনেকেই প্রিন্টিং মিসটেক বলে এড়িয়ে যান। কিন্তু এত বড় তারকার বিয়ের কার্ডে এম্ন ভুল? পাত্রীর বাবার নামেই গলদ? সন্দেহ দানা বাঁধতে শুরু করে তখন থেকেই। রণবীর-আলিয়ার নাম দিয়ে ছাপানো এই কার্ড ভুয়ো বলে ধরে নেন অনেকেই। তাও আশায় বুক বেঁধেছিলেন তারকা জুটির ভক্তরা। ভেবেছিলেন হয়তো বাবার বদলে কার্ড ছাপানো হয়েছে আলিয়ার কাকুর নামেই। তবে সব আশায় জল ঢেলে দিলেন আলিয়া নিজেই।

মঙ্গলবার সকালে মুম্বই বিমানবন্দরে দেখা গিয়েছিল আলিয়াকে। তাঁকে দেখা মাত্রই ঘিরে ধরে পাপারাৎজি। অল্প কয়েকটা প্রশ্নের পরেই এক সাংবাদিককে বলতে শোনা যায়, “ম্যাডাম একটা খবর পাওয়া গিয়েছে, ২২ জানুয়ারি ২০২০ সাল, এটা কি সত্যি?” প্রশ্ন শুনেই হেসে ফেলেন আলিয়া। বেশ খানিকক্ষণ হাসার পর ফের ধেয়ে আসে প্রশ্ন, “বলুন না ম্যাডাম?” একটু থেমে আলিয়ার জবাব, “আমি কী বলব…”। তারপর যেন মাথা নেড়ে একবার বুঝিয়েই দিলেন যে এ খবর সত্যি নয়।

সোমবার ভাইরাল হয়েছিল রণবীর-আলিয়ার কার্ডের ছবি। সোনালি আর আকাশি রঙয়ের কম্বিনেশনে কার্ডের উপর পাত্র-পাত্রীর নাম লেখা হয়েছিল গোল্ডেন প্লেটিংয়ে। তবে মঙ্গলবার সকাল থেকেই নেট দুনিয়ায় ট্রেন্ডিং আলিয়ার এই রিঅ্যাকশন। এখন প্রকাশ্যে আসা কার্ড নিয়ে রণবীর কাপুর কী বলেন সেটাই দেখার।

পড়ুন দ্য ওয়াল-এর পুজোসংখ্যার বিশেষ লেখা…

প্রাচীন সচিত্র পোস্টকার্ডে সিপাহিবিদ্রোহ

Comments are closed.