ওয়েব প্ল্যাটফর্মে ছবি রিলিজেও ব্রাত্য সুশান্ত, কুণাল, বিদ্যুৎরা! করণ, আলিয়া, অক্ষয়দের ছবি ঘিরেই প্রচার

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: লকডাউনের জেরে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল সিনেমার শ্যুটিং। ছবির কাজ অল্প অল্প করে স্বাভাবিকের দিকে এগোলেও এখনও বন্ধ রয়েছে সিনেমা হল। এদিকে বেশ কিছু ছবি তৈরি হয়ে পড়ে রয়েছে অনেকদিন। তাই এ বার অনলাইন বা ওটিটি প্ল্যাটফর্মে ছবি রিলিজের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নির্মাতারা।

    ইতিমধ্যেই বেশ কিছু সিনেমা রিলিজও হয়েছে ওয়েব প্ল্যাটফর্মে। তার মধ্যে অন্যতম সুজিত সরকারের ছবি ‘গুলাবো সিতাবো’। রিলিজ হয়েছে অ্যামাজন প্রাইমে। অমিতাভ বচ্চনের দুরন্ত অভিনয়, আয়ুষ্মান খুরানার যোগ্য সঙ্গত এবং সর্বোপরি সুজিতের অসামান্য পরিচালনা এই ছবিকে অনন্য মাত্রা দিয়েছে। দর্শকমহলে ব্যাপক প্রসংশাও পেয়েছে এই ছবি।

    এ বার একগুচ্ছ ছবি রিলিজ হতে চলেছে ডিজনি হটস্টারেও। মোট সাতটি ছবি রিলিজের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তালিকায় রয়েছে করণ জোহর, আলিয়া ভাট, অক্ষয় কুমার, অজয় দেবগণ, বরুণ ধাওয়ান, অভিষেক বচ্চন, বিদ্যুৎ জামাল, কুনাল খেমু এবং সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ ছবি। ছবির প্রিমিয়ারের আগে একটা লাইভ সেশনে আসবেন তারকারা। রীতিমতো পোস্টার ছাপিয়ে ডিজিটাল মাধ্যমে তার প্রচার চলছে। কিন্তু পোস্টারে ছবিই নেই বিদ্যুৎ, কুনাল এবং সুশান্তের।

    পোস্টার তো দূরে থাক, অর্ধেক লোকে বিদ্যুৎ এবং কুনালের সিনেমা দুটোর নামও জানেন না। অথচ পর্দায় জনপ্রিয়তা এই দুই অভিনেতার কম নয়। বিশেষ করে ‘কম্যান্ডো’ সিরিজে বিদ্যুতের দুরন্ত স্টান্ট, সুপারফিট ফিজিক দর্শকদের বেশ পছন্দের। অন্যদিকে ‘গোলমাল’ সিরিজে কমেডি হোক কিংবা থ্রিলার—- সবেতেই নিজের সেরাটা অভিনয় করেন কুনাল খেমুও। তাহলে সমস্যা কোথায়? দুই অভিনেতাই অভিযোগ করেছেন যে ওই প্রিমিয়ার বা লাইভে উপস্থিত থাকার কোনও নিমন্ত্রণই পাননি তাঁরা।

    অন্যদিকে সুশান্ত সিং রাজপুতের মর্মান্তিক এমন পরিণতি না হলে বোধহয় তাঁর ছবির নামও লোকে জানতেন না। আর মানুষটাই যেখানে নেই, সেখানে নিমন্ত্রণের প্রশ্নও আসে না। তবে সুশান্ত বেঁচে থাকলেও কতটা সম্মান পেতেন সেটা বলা মুশকিল। কুনাল এবং বিদ্যুৎ তবু নিজের হয়ে গলা ফাটাতে পেরেছেন। সুশান্তের কাছে সেই সুযোগও নেই। তবে তাঁর ‘গডফাদার’ ভক্তরা নিঃসন্দেহে এর বিচার চাইবেন। এমনিতেই সুশান্তের শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’ হল রিলিজ না হওয়ায় যথেষ্টই ক্ষুব্ধ সুশান্তের অনুরাগীরা।

    গোটা ঘটনায় যথেষ্টই ক্ষুব্ধ বিদ্যুৎ জামাল এবং কুনাল খেমু। ট্রেড অ্যানালিস্ট তরণ আদর্শের একটি টুইট রিটুইট করে বিদ্যুৎ লিখেছেন, “নিঃসন্দেহে বড় খবর। সাত সাতটা ছবি রিলিজ হবে। তবে আলোচনা চলছে পাঁচটা নিয়েই। বাকি দুটো সিনেমা নিয়ে কোনও কথা নেই। এখনও অনেক লম্বা রাস্তা যেতে হবে। ঝড় এখনও থামেনি।“ টুইট করেছেন কুনাল খেমুও। অভিনেতা লিখেছেন, “সম্মান এবং ভালবাসা চেয়ে পাওয়া যায় না। অর্জন করতে হয়। কেউ সেটা না দিলে কেউ ছোটও হয়ে যায় না। তবে খেলার মাঠ সকলের জন্য সমান হলে বুঝিয়ে দেওয়া যায় যে বড় লাফ আমরাও দিতে পারি।“

    সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে বলিউডের স্বজনপোষণ ওরফে নেপোটিজমের সঙ্গে ফের একবার নতুন করে পরিচয় হয়েছে সকলের। অনেকেই মনে করছেন, বলিউডের ‘এলিট ক্লাস’-এর আচরণের কারণেই বোধহয় মাত্র ৩৪ বছর বয়সে এমন মারাত্মক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অভিনেতা। বেঁচে থাকার বদলে মৃত্যুই শ্রেয় মনে হয়েছে সুশান্তের কাছে। ১৪ জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্তের ঝুলন্ত দেহ। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে বলা হয়েছে অভিনেতা আত্মহত্যা করেছেন। গলায় ফাঁস লাগার কারণে দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে অভিনেতার।

    যদিও একথা মানতে নারাজ অভিনেতার ভক্তরা। বিশ্বাস করতে পারেননি আরও অনেকেই। গত দু’হপ্তা ধরে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে সর্বত্র। কিন্তু তার পরেও অনলাইনে রিলিজের ক্ষেত্রে পোস্টারে সুশান্তের উল্লেখই নেই। নেই তাঁর ছবির নামও। সেই তালিকায় রয়েছেন আরও দুই অভিনেতা। তাহলে কী ফের ‘নেপোটিজম’-এরই শিকার হচ্ছেন সুশান্ত, বিদ্যুৎ, কুনালরা! প্রশ্ন উঠছে বিভিন্ন মহলে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More