সোমবার, ডিসেম্বর ৯
TheWall
TheWall

অন্তঃসত্ত্বা কল্কি, আট মাসের জার্নিটা মোটেও সহজ নয়, বললেন অভিনেত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা অভিনেত্রী কল্কি কোয়েচলিন। কেমন ছিল এই আট মাসের জার্নি, মা হওয়ার আগের এই কয়েক মাস ঠিক কী কী ফিল করতেন কল্কি, মানসিক থেকে শারীরিক পরিবর্তনই বা কতটা হয়েছে অভিনেত্রীর, নিজের সদ্য ইনস্টাগ্রাম পোস্টে সেইসবই শেয়ার করেছেন কল্কি।

View this post on Instagram

I know pregnancy is a celebration of life, and we pregnant women are meant to be grateful and sensitive and glowing throughout, and mostly I've had a healthy, safe and wonderful journey so far, but it is by far not an easy ride, it is not all butterflies and unicorns, and many days are so tough I want to crawl into bed and disappear. So I made this poster based on some of my diary notes of the last 8 months just so the non pregnant people can get a glimpse into what we are going through and may be curious enough to research further and be better prepared to help someone who is carrying. Roughly: The pink is the first trimester The white is the second The red is the third The boxes are the physical symptoms The bubbles around are my feelings and thoughts at that moment

A post shared by Kalki (@kalkikanmani) on

এই আট মাস নিজের ডায়েরিতে নোট লিখে রাখতেন কল্কি। প্রেগনেন্সির বিভিন্ন পর্যায় বোঝাতে ব্যবহার করেছেন নানা রঙ। গোলাপি, আকাশি আর লাল এই তিন রঙয়ের সাহায্যে নিজের প্রেগনেন্সির বিভিন্ন স্টেজ বয়ান করেছেন অভিনেত্রী। তুলে ধরেছেন নিজের মাতৃত্বকালীন পর্যায়ের নানা দিক। কখনও প্রবল যন্ত্রণা, শারীরিক পরিবর্তন, মানসিক বদল আবার কখনও বা ভীষণ আনন্দ সবই ধরা পড়েছে কল্কির এই ইন্সটা পোস্টে।

কল্কির কথায়, যাঁরা এখনও অন্তঃসত্ত্বা হননি তাঁদের জন্যই বিশেষ করে এই পোস্ট। এটা দেখলে প্রেগনেন্সির জার্নি সম্পর্কে একটা ধারণা পাবেন অনেকেই। একজন মা হতে যাওয়া মহিলাকে ঠিক কী কী পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয় তার প্রায় সবটাই রয়েছে এই ডায়েরি নোটস দিয়ে বানানো পোস্টারে। একজন অন্তঃসত্ত্বা মহিলার কোন সময় কী প্রয়োজন সেটাও বুঝতে পারা যাবে। ফলে আশেপাশের মানুষগুলো তাঁর প্রিয়জনকে প্রয়োজনে সাহায্য করতেও পারবেন।

অভিনেত্রী বলেছেন, “মা হওয়ার অনুভূতিটা খুব সুন্দর। আমার জার্নিটা সুস্থতার সঙ্গেই কেটেছে। উপভোগ করেছি আমি। তবে সবটা মোটেও সহজ ছিল না। বিষয়টা এমন নয় যে সারাক্ষণ মনে প্রজাপতি উড়ে বেড়াত। বেশ কিছু দিন তো এত কষ্ট হত যে ভাবতাম যন্ত্রনায় বিছানায় মিশে যাবো এবার। তবে পুরো ব্যাপারটা একটা দারুণ অভিজ্ঞতা।”

বলিউড পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের পর জার্মান চিত্রকর গাই হার্শবার্গের সঙ্গে ডেট করছিলেন কল্কি। অভিনেত্রী নিজেই জানিয়েছিলেন, এই সম্পর্কের মধ্যে তাঁর প্রেগনেন্সি এসেছে একেবারে আচমকাই। এর জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলেন না কল্কি কিংবা তাঁর প্রেমিক। কল্কির কথায়, প্রথম দু’মাস সেভাবে কিছু টেরও পাননি তিনি। বরং শারীরিক সমস্যাগুলো খুব ভুগিয়েছে তাঁকে। তবে প্রথমবার সন্তানের অস্তিত্ব টের পাওয়ার পর আমূল পরিবর্তন এসেছিল কল্কির মধ্যে। অভিনেত্রী বলেন, “প্রথমবার ওর হৃদস্পন্দন অনুভব করতে পেরে বুঝেছিলাম সব বদলে যাচ্ছে। আমার মধ্যে বেড়ে উঠছে ছোট্ট একটা প্রাণ। এই অনুভূতি বলে বোঝানো সম্ভব নয়।”

Comments are closed.