রবিবার, জুন ১৬

রোগা-মোটা, বডি শেমিং পিছে হটো! বিদ্যার বালি-হলিডের ছবি আগুন লাগিয়ে দিল ইন্টারনেটে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তিনি বরাবরই ডাকাবুকো। স্বতন্ত্র তাঁর দৃষ্টিভঙ্গি। মুখের উপর ফটাফট স্পষ্ট কথা বলতে ছাড়েন না। চেহারা নিয়ে মন্তব্য তাঁর না পসন্দ, তবে বাঁকা চাউনিকেও পাত্তা দেন না। হ্যাঁ, তিনিই বিদ্যা বালন। ‘কহানি’ নায়িকা প্রায়শই তাঁর নিজস্ব ভঙ্গিতে চমক দিয়ে থাকেন। এ বারে আর চমক নয়, এক্সোটিক হলিডে ট্রিপে সমুদ্র স্নানে বিদ্যার ছবি রীতিমতো আগুন জ্বালিয়ে দিন ইন্টারনেটে। বলিউড স্টার থেকে সশ্যাল মিডিয়া ভিউয়ার- সকলেই একবাক্যে স্বীকার করলেন, ‘বিদ্যা..আহা!’

সম্প্রতি বালিতে ছুটি কাটাতে গিয়েছেন নায়িকা। সমুদ্রের মাঝে তারই একটা ছোট্ট ট্রেলার দেখিয়েছেন বিদ্যা। তাঁর ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে সেই ছবি হু হু করে ছড়িয়ে পড়েছে নেট দুনিয়ায়। ছবির ক্যাপশনে বিদ্যা লিখেছেন, “আনন্দ, মজা, খুশি…রোদ্দুর মাখা দিনের চূড়ান্ত মজা।”

সোনাক্ষী সিনহা সেই ছবি দেখে যেমন প্রশংসায় উচ্ছ্বসিত হযেছেন, তেমনি আবার আফশোস করে বলেছেন, “আমাকে তোমার সঙ্গে নিয়ে গেলে না কেন?” প্রশংসা শুধু সোনাক্ষীতেই থেমে থাকেনি, একে একে কমেন্টের বন্যা বইয়ে দিয়েছেন প্রিয়ঙ্কা চোপড়া, একতা কাপূর, অদিতি রাও হায়দারি। ‘স্টানিং’ একবাক্যে স্বীকার করেছেন প্রিয়ঙ্কা, অন্যদিকে একতার মন্তব্য, ‘চমকপ্রদ।’ অদিতি রাও হায়দারি আবার একগুচ্ছ আগুনের ইমোজি দিয়ে ভরিয়ে দিয়েছেন বিদ্যার ইনস্টাগ্রামের দেওয়াল।

বলিউডে অভিনয় শুরুর পর থেকেই তাঁকে চেহারা নিয়ে সমালোচনা শুনতে হয়েছে বলে আগেই দাবি করেছিলেন বিদ্যা। জানিয়েছিলেন, একাধিকবার বডি শেমিংয়েরও শিকার হতে হয়েছে তাঁকে। অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে মিডিয়ার সামনে চোখের জলও ফেলেছেন তিনি। বলেছেন, নিজের শরীর, মন, আত্মাকে ভালবাসুন। আপনি যেমন, ঠিক তেমন ভাবে নিজেকে ভালবাসতে শিখুন। রোগা, ফর্সা বা ধনী হওয়াটা লক্ষ্য থাকা উচিত নয়। তুলনা না করে নিজস্বতায় বিশ্বাস রাখুন।

বডি শেমিং-এর প্রতিবাদ জানিয়ে একটি ভিডিও বানিয়েছেন বিদ্যা ‘লেট’স টক অ্যাবাউট বডি শেমিং’। গানের মাধ্যমে বোঝাতে চেয়েছেন একজন নারীকে তাঁর রূপ, চেহারা দিয়ে বিচার করা যায় না। বিদ্যার এই দৃষ্টিভঙ্গীর প্রশংসাও করেছেন বলি মহলের একটা বড় অংশ।

Comments are closed.