বুধবার, মার্চ ২০

‘ক্যানসার মুক্ত ছেলে আয়ান, যুদ্ধ জিতে গেছি আমরা’, গর্বের সঙ্গে জানালেন ইমরান

দ্য় ওয়াল ব্য়ুরো: ‘‘লড়াইটা ছিল পাঁচ বছরের। আমার ছেলে আয়ান এখন ক্যানসার মুক্ত,’’ একই সঙ্গে গর্ব ও আনন্দের ঝিলিক খেলে গেল ইমরান হাসমির মুখে। ২০১৪ সাল থেকে মারণ রোগ থাবা বসিয়েছিল আয়ানের ছোট্ট শরীরে। তখন তার বয়স চার। ‘‘চিকিৎসকদের পরিশ্রম, আমার ভক্তদের প্রার্থনা ও ঈশ্বরের আশীর্বাদ, পাঁচ বছর ধরে এরাই ছিল আমার যন্ত্রণার সঙ্গী। এখন বিপদ কেটে গেছে। যুদ্ধ জিতে নিয়েছি আমরা,’’ সোমবার মিডিয়ার সামনে এমনটাই জানিয়েছেন বলিউডের ‘সিরিয়াল কিসার।’

‘তুমসা নাহি দেখা: এ লাভ স্টোরি’র শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত ইমরান। ইনস্টাগ্রামে ছেলের সঙ্গে প্রায়ই নানা মুহূর্তের ছবি শেয়ার করেন তিনি। ছেলের শারীরিক অবস্থার কথা জানিয়ে সম্প্রতি একটি পোস্টও করেছেন ইমরান। আয়ানের প্রতি ভালোবাসা জানিয়ে সেখানে কমেন্ট করতে দেখা গেছে  ছবির সহ অভিনেতা টাইগার স্রফ ও দিয়া মির্জাকে।

পর্দায় তাঁর ঘনিষ্ঠ দৃশ্য নিয়ে কথা হয়েছে বারবার, চুমুর দৃশ্যে অভিনয় করতে তাঁর মতো নাকি কেউ পারেন না। ‘সিরিয়াল কিসার’ বলেও ডাকা হয় বি-টাউনের এই অভিনেতাকে।  ইমরান বেশ কৌতুকভরেই জানিয়েছেন, নায়িকাদের সঙ্গে এই চুমুর দৃশ্য নিয়ে বউ নাকি বেশ রেগেই থাকতেন তাঁর ওপর। অনেক বুঝিয়ে তাঁকে বউয়ের মান ভাঙাতে হয়। সঙ্গে ‘শাস্তি’ হিসেবে চুমু পিছু বউয়ের একটি করে ব্যাগের আবদারও মেটাতে হয়! কারণ ইমরানের বউয়ের সবচেয়ে পছন্দের জিনিস ব্যাগ। তাই সেটা কিনে দিয়েই মানভঞ্জন করেন নায়ক।

সম্প্রতি আয়ানের ক্যানসার ও নিজের ব্যক্তিগত জীবনের নানা কথা নিয়ে ‘দ্য কিস অফ লাইফ: হাউ এ সুপারহিরো অ্যান্ড মাই সন ডিফিটেড ক্যানসার’ নামে একটি বইও লিখেছেন অভিনেতা। বিলাল সিদ্দিকি এই বইয়ের সহলেখক। সেখানেই চুমু সংক্রান্ত এই মজার কথা শেয়ার করেছেন তিনি। পাশাপাশি, মারণ রোগের সঙ্গে কী ভাবে দীর্ঘদিন লড়াই করে গেছে ছোট্ট আয়ান সেই কাহিনীও তুলে ধরেছেন পাঠকের সামনে। জানিয়েছেন, মেয়েরা মানসিক ভাবে ছেলেদের থেকে অনেক বেশি শক্তপোক্ত হয়। ছেলে ক্যানসারে আক্রান্ত শুনে ইমরান কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন, কিন্তু সেই পরিস্থিতিতে নিজের মনকে টলতে দেননি তাঁর স্ত্রী। ছেলের হাত ধরেই গোটা লড়াইটা লড়েছেন তিনি। এই বই অন্যদেরও জীবনের প্রতিটি জটিল মুহূর্তে চলার প্রেরণা দেবে বলেই জানিয়েছেন ইমরান।

 

Shares

Comments are closed.