শনিবার, নভেম্বর ২৩
TheWall
TheWall

দ্রৌপদীর চরিত্রে দীপিকা! ‘জীবনের অন্যতম সেরা পাওনা’, বললেন অভিনেত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দ্রৌপদীর ভূমিকায় এ বার দীপিকা পাড়ুকোন। শুধু তাই নয়। বলিউডের আপকামিং বিগ বাজেট ছবি ‘মহাভারত’-এর কো-প্রোডিউসারও তিনি।

এর আগে ‘বাজিরাও মাস্তানি’ এবং ‘পদ্মাবত’-এর মতো পিরিয়ডিকাল ছবিতে অভিনয় করেছেন দীপিকা। ‘মাস্তানি বাঈ’ এবং ‘রানি পদ্মাবতী’-র চরিত্রে তাঁর অভিনয় বিপুল প্রশংসাও পেয়েছিল দর্শক মহলে। ফের একবার পৌরাণিক চরিত্রে অভিনয় করলেও দ্রৌপদীর চরিত্র যে দীপিকার কাছে খুবই চ্যালেঞ্জিং সে কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী নিজেই। দীপিকার কথায়, “এই চরিত্রে অভিনয়ের সুযোগ দেওয়া হয়েছে বলে আমি গর্বিত। ভীষণ উত্তেজিতও রয়েছি দ্রৌপদীর চরিত্রে অভিনয় করার জন্য। এমন চরিত্র জীবনের অন্যতম সেরা পাওনা।” পাশাপাশি অভিনেত্রী জানিয়েছেন, দ্রৌপদীর দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই বানানো হয়েছে এই ছবি।

কিন্তু হঠাৎ দ্রৌপদীর দৃষ্টিভঙ্গি থেকে কেন ‘মহাভারত’ বানাচ্ছেন নির্মাতারা?

এই প্রসঙ্গে ছবির নির্মাতা মধু মান্টেনা জানিয়েছেন, দ্রৌপদীর দৃষ্টিভঙ্গি থেকে মহাভারতের কাহিনী বর্ণনা করাই এই ছবির ইউএসপি। একই মত দীপিকা পড়ুকোনেরও। তাঁর কথায়, “আমাদের জীবনের অনেক কিছুর সঙ্গেই ওতোপ্রোত ভাবে জড়িয়ে রয়েছে মহাভারতের কাহিনী। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মহাভারতের পুরুষ চরিত্র এবং তাঁদের ধ্যানধারনাকেই এতদিন প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। কিন্তু মহাভারতের অন্যতম গুরত্বপূর্ণ চরিত্র দ্রৌপদী। তাই এ বার তাঁর দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই ব্যাখ্যা করা হবে মহাভারতের কাহিনী।”

প্রসঙ্গত এর আগে দ্রৌপদীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। অভিনয় জগত থেকে অবশ্য অনেকদিনই নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন রূপা। এখন তিনি পুরদস্তুর রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ। তবে তাঁর অভিনয় কেরিয়ারের কথা বললে এখনও দর্শক মহল থেকে একটি চরিত্রের নাম উঠে আসবেই। মহাভারতে দ্রৌপদীর চরিত্রে রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের অভিনয়ে আজও মজে রয়েছেন দর্শকরা।

সেই চরিত্রেই এ বার অভিনয় করবেন দীপিকা পাড়ুকোন। বাকি পৌরাণিক গল্পের মতো এই চরিত্রেও অভিনয়ে বাজিমাত করবেন দীপিকা, তেমনটাই আশা ভক্তদের। ২০২১ সালের দিওয়ালিতে রিলিজের সম্ভাবনা রয়েছে নতুন মহাভারতের। ছবির বাকি কাস্টিং নিয়েও এখন উন্মাদনা তুঙ্গে। যদিও বাকি চরিত্রগুলিতে কে কে অভিনয় করবেন সে ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত করে কিছু জানা যায়নি। তবে বাজেট এবং স্টার কাস্ট, দুইয়েই যে এই ছবি হেভিওয়েট হতে চলেছে সে ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই।

Comments are closed.