‘জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা’-য় সহ-অভিনেতার মনোনয়নে ডাক পেয়েছিলেন অভয়, ক্ষোভে আর অ্যাওয়ার্ড শোয়ে যাননি

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বলিউডে ঠোঁটকাটা বলেই পরিচিত অভয় দেওল। বিশেষ কোনও পার্টিতেও দেখা যায় না অভয়কে। অ্যাওয়ার্ড শো-র ক্ষেত্রেও অভয়ের উপস্থিতি নৈব নৈব চ। সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সাংবাদিক জর্জ ফ্লয়েড হত্যার ঘটনাতেও সরব হয়েছিলেন অভয়।

ফের একবার সরব হয়েছেন অভয়। তাঁর অভিযোগ ‘জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা’ ছবির অ্যাওয়ার্ডের ক্ষেত্রে মুখ্য অভিনেতা হিসেবে নাম ছিল হৃতিক রোশন এবং ক্যাটরিনা কাইফের। ছবির আরও দুই চরিত্র অভয় দেওল এবং ফারহান আখতারের নাম এসেছিল সহ-অভিনেতার মনোনয়নে। এই মনোনয়ন পদ্ধতিকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন অভয়।

View this post on Instagram

“Zindagi Na Milegi Dobara”, released in 2011. Need to chant this title to myself everyday nowadays! Also a great watch when anxious or stressed. I would like to mention that almost all the award functions demoted me and Farhan from main leads, and nominated us as “supporting actors”. Hrithik and Katrina were nominated as “actors in a leading role”. So by the industry’s own logic, this was a film about a man and a woman falling in love, with the man supported by his friends for whatever decisions he takes. There are many covert and overt ways in which people in the industry lobby against you. In this case it was shamelessly overt. I of course boycotted the awards but Farhan was ok with it. #familyfareawards Very creative artwork @kalakkii

A post shared by Abhay Deol (@abhaydeol) on

অভিনেতার কথায়, “এই ঘটনার পর ফারহান অ্যাওয়ার্ড শোতে গেলেও আমি আর যাইনি। ছবির গল্প অনুযায়ী বন্ধুদের সাহায্যে ছবির মূল চরিত্র প্রেমের সম্পর্কে সাফল্য পেয়েছেন। কিন্তু এই বন্ধুরা নাকি সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্র হতে পারে না। ইন্ডাস্ট্রি এমনই ভাবে। সেখানেই আমার আপত্তি।”

এখানেই থামেননি স্পষ্টবক্তা অভয় দেওল। অভিনেতা নিজের ইনস্টাগ্রামের পোস্টে লিখেছেন, “বলিউডে অনেকেই আপনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করবে। সেটা প্রকাশ্যে এবং পিছনে সবরকম ভাবেই হতে পারে। তবে আমার ক্ষেত্রে প্রকাশ্যে হয়েছে।”

২০১১ সালে রিলিজ হয়েছিল ‘জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা’। জোয়া আখতার পরিচালিত এই ছবি বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় সিনেমাগুলোর মধ্যে একটি। হৃতিক, ফারহান, অভয়—-তিন অভিনেতাই ছবির চরিত্র অনুযায়ী যথাযথ। অভয়ের কথা প্রকাশ্যে না এলে হয়তো দর্শকরাও জানতে পারতেন না এই ঘটনা। তাই দেওল পরিবারের এই অভিনেতার পোস্ট নিয়ে এখন শোরগোল পড়ে গিয়েছে নেট দুনিয়ায়।

মূলত সুশান্ত সিং রাজপুতের আচমকা আত্মহত্যার ঘটনায় স্তম্ভিত বিটাউন। সুশান্তের এমন মর্মান্তিক পরিণতি মেনে নিতে পারছেন না কেউই। তরুণ অভিনেতার মৃত্যুর পর থেকেই বলিউডের নেপোটিজম বা স্বজনপোষণ নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই। এবার সেই তালিকায় নাম জুড়ল অভয় দেওলের।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More