বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১৭

স্লোগান-চিৎকারে উত্তাল দুবাই বিমানবন্দর, মোদীর অস্ত্রেই মোদী-বধে রাহুল, দেখুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এ যেন পাঁচ বছর আগের সেই ছবি! উপুর্যুপরি দুর্নীতির অভিযোগ আর নীতি পঙ্গুতার কারণে ধুঁকছে দ্বিতীয় মনমোহন সরকার। দেশ জুড়ে প্রবল কংগ্রেস বিরোধী হাওয়া বইছে। আর তা উস্কে দিতে, কখনও দেশের মধ্যে কখনও বিদেশে গিয়ে অনাবাসী ভারতীয়দের সামনে কংগ্রেস ও গান্ধী পরিবারের মুণ্ডপাত করছেন নরেন্দ্র দামোদরদাস মোদী। এবং প্রচার কৌশলে বিজেপি এমন জাল বুনতে শুরু করে দিয়েছে, যেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীই মসীহা। তিনিই পারেন মুক্তি দিতে!

কাট টু: ১১ জানুয়ারি, ২০১৯। রাফায়েল, নীরব মোদী, মেহুল চোস্কি কাণ্ডের মতো দুর্নীতির অভিযোগে এখন কাঠগড়ায় মোদী সরকার। নোটবন্দি, কৃষক আত্মহত্যা, কর্মসংস্থানের অভাব, আর্থিক বৃদ্ধির মন্দগতি নিয়ে সমালোচনার ঝড় আছড়ে সাত নম্বর রেসকোর্স রোডের পঞ্চবটীর দরজায়। এবং তা নিয়ে দেশ ও অনাবাসী ভারতীয়দের মনে ক্ষোভের জ্বালামুখ খুলে দিতে রীতিমতো গুছিয়ে নেমে পড়লেন রাহুল গান্ধী।

বৃহস্পতিবার মধ্য রাতে তাঁকে ঘিরে দুবাই বিমানবন্দরে উৎসাহের ছবিটা ছিল দেখার মতই। পাঁচ বছর আগে মোদীকে নিয়ে ঠিক যে রকম হয়েছিল। পোস্টার, ব্যানারে স্বাগত জানানোর বার্তা। সেই সঙ্গে প্রবল চিৎকার রাহুল রাহুল!

দেখুন এক্সক্লুসিভ ভিডিও!

দুবাইয়ে রাহুল গান্ধী।

মধ্যরাতে দুবাই বিমানবন্দরে 'রাহুল! রাহুল!' স্লোগান তুলল উত্তাল জনতা।দেখুন এক্সক্লুসিভ ভিডিও!

The Wall এতে পোস্ট করেছেন বৃহস্পতিবার, 10 জানুয়ারি, 2019

বৃহস্পতিবার দু’দিনের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরশাহী সফরে গিয়েছেন রাহুল। শুক্রবার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে চারটেয় দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনাবাসী ভারতীয়দের সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন রাহুল। সন্দেহ নেই, দুবাইয়ে বসেও তাঁর নিশানা হবে নরেন্দ্র মোদীর ছাপ্পান্ন ইঞ্চি ছাতির ভাবমূর্তিকে চুরমার করে দেওয়া।

বিজেপি অবশ্য দাবি করছে এ সব সাজানো! যদিও পর্যবেক্ষকদের পাল্টা মত হল, এমনই সাজসজ্জা তো মোদীও দেখিয়েছিলেন। এ বার মোদীকে তাঁর অস্ত্রেই বিঁধতে চান রাহুল। এমন নয় উনিশের নির্বাচনে দুবাইয়ের অনাবাসীরা ভারতে এসে কংগ্রেসকে ভোট দেবে। এর তাৎপর্য বৃহত্তর। একে তো রাহুলকে নিয়ে অনাবাসীদের মধ্যে আগ্রহের ছবিটা ঘরোয়া রাজনীতিতে দেখিয়ে তাঁকে নিয়ে দেশের মানুষের আগ্রহ ও আস্থা বাড়াতে চাইছে কংগ্রেস।

দ্বিতীয় কথা হল, অনাবাসী ভারতীয়দের আর্থিক সাহায্য পেতে চাইছেন কংগ্রেস নেতারা। চোদ্দোর ভোটের আগে এ ভাবে অনাবাসীদের থেকে বিপুল আর্থিক সাহায্য পেয়েছিল বিজেপি। কংগ্রেস তথা বিরোধী শিবিরের নেতাদের আশঙ্কা, উনিশের নির্বাচনে জলের মতো টাকা খরচ করবে গেরুয়া শিবির। তাদের সঙ্গে পাল্লা দেওয়ার শক্তি কারও নেই। এই অবস্থায় ওভারসিস কংগ্রেসকে সক্রিয় করেছে চব্বিশ আকবর রোড। ইতিমধ্যে আমেরিকা, ব্রিটেন, জার্মানি সফরে গিয়েছেন রাহুল। উনিশের ভোটের আগে আরও এক বার বা দু’বার এ রকমই বিদেশ সফরে গিয়ে অনাবাসীদের সম্মেলনে যোগ দিতে পারেন কংগ্রেস সভাপতি।

Shares

Comments are closed.