বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮

হার্টের মধ্যে কিডনির বিশেষ জায়গা আছে! বেফাঁস মন্তব্য করে নেট-দুনিয়ায় চরম ট্রোলের শিকার ট্রাম্প

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এর আগেও বহু বার নানা রকম মন্তব্য করে লোক হাসিয়েছেন তিনি। কখনও বলেছেন, তাঁর হাতের আঙুলগুলো ছোট হলেও অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ ছোট নয়। কখনও আবার বলে বসেছেন, ‘‘আমার আইকিউ সাধারণের চেয়ে অনেক বেশি৷ দুঃখিত, এ নিয়ে আপনাদের দুঃখ পাওয়ার কিছু নেই, কারণ, এতে আপনাদের কোনো হাত নেই৷’’ এই বার ফের আরও একটা বেফাঁস কথা বলে বসলেন তিনি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবার বললেন, “হৃদয়ে কিডনির জন্য বিশেষ জায়গা রয়েছে।”

ট্রাম্পের এই মন্তব্যের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হতেই তা ভাইরাল হয়ে যায় এবং নেটিজেনদের তীব্র ব্যঙ্গের মুখে পড়েন তিনি। অনেকেই বলেন, মানুষের শরীরে হার্ট এবং কিডনির মধ্যে কতটা দূরত্ব, তা ট্রাম্পের জানা উচিত। এটুকু আশা করা যায় তাঁর কাছে।

বুধবার মেডিক্যাল পেশার সঙ্গে যুক্ত কিছু মানুষের সঙ্গে একটি বিশেষ বৈঠক ছিল ট্রাম্পের। সেখানেই ডায়ালিসিস নিয়ে কিছু কথা বলার সময়ে ওই বেফাঁস মন্তব্য় করে বসেন তিন। দাবি করেন, হার্টে নাকি বিশেষ জায়গা আছে কিডনির। এই মন্তব্যের ভিডিও টুইটারে আপলোড করেন বৈঠকে উপস্থিত এক সাংবাদিক।
শুনুন ট্রাম্পের মন্তব্য।
https://twitter.com/atrupar/status/1149013891512492033

এই মন্তব্য ভাইরাল হওয়ার পরেই শুরু হয় ব্যঙ্গ, বিদ্রুপ, কাটাছেঁড়া। কেউ বলেন, ট্রাম্প হয়তো জানেনই না, কিডনি শরীরের কোনখানে থাকে। কেউ আবার বলেন, কিডনি নিয়ে হয়তো ট্রাম খুব বেশি সংবেদনশীল, তাই কিডনিকে জায়গা দিয়েছেন হার্টে।

কিডনির ডায়ালিসিস নিয়ে আলোচনা চলছিল ওই বৈঠকে। ট্রাম্প বলেন, “আপনারা কিডনিকে এত গুরুত্ব দিচ্ছেন। সেটা দেখেই বোঝা যাচ্ছে, কিডনির বিশেষ জায়গা আছে হার্টে।”

এ কথা শুনেই ট্রোল শুরু হয় সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। কেউ বলেছেন, ট্রাম্পের হার্টে কি তাঁর কিডনি আছে? কেউ আবার বলেছেন ক্লাস সেভেনে পড়া বাচ্চার মতো ভুল কথা বলছেন ট্রাম্প।

Comments are closed.