মঙ্গলবার, জুন ২৫

চোখে চারটে জ্যান্ত মৌমাছি, খাচ্ছিল চোখের জল!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রিয়জনকে আমরা প্রায়শই বলি, চোখের জল ফেলো না গো, চোখের জল নষ্ট করতে নেই।  চোখের জল খুব দামি।  সেই চোখের জলই কিনা বসে বসে খাচ্ছিল চারটে মৌমাছি!

তারা চোখের জল খাচ্ছিল।  সাধারণত মানুষের ঘামে আকৃষ্ট হয়ে এরা মানুষের কাছে আসে।  এদের বলা হয় হ্যালিকটিডাই বা হ্যালিকটিডি।  এরা ‘সোয়েট বি’ নামেও পরিচিত।  পাহাড়ের কাছে, কবরের কাছের এই মৌমাছিরাই মিস হি-এর চোখের জল খাচ্ছিল।  মিস হি তাইওয়ানের বাসিন্দা।  চোখের সমস্যা হওয়ায় তিনি একদিন দেখে পৌঁছে যান তাইওয়ানের ফুইন বিশ্ববিদ্যালয়ের হাসপাতালে।  সেখানেই হি-এর চোখ থেকে ৪টে এই সোয়েট বি বের করা হয়।

একটি বিদেশি পত্রিকা বলছে, ওই চক্ষুবিভাগের প্রধান ডঃ হাং শি টিং সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেছেন, “আমি মিস হি-এর চোখের ভিতরে প্রথমে পোকার পা দেখতে পাই, সেই পাগুলোকে টেনে বের করতে গিয়ে একে একে চারটে সোয়েট মৌমাছি বেরিয়ে আসে।  আমরা প্রতিটা মৌমাছিকেই জীবিত বের করতে পেরেছি, এটাই ভালো লাগছে।”

এই ঘটনা পৃথিবীতে প্রথমবার ঘটল।  মিস হি তাঁর এক আত্মীয়ের কবরে গিয়ে যখন আগাছা পরিষ্কার করছিলেন, তখনই তাঁর চোখে একটা অস্বস্তি হতে থাকে।  প্রথমে তিনি ভাবেন, তাঁর চোখে কোনও ধুলোবালি গেছে হয় তো।  পরে সারাদিন অস্বস্তির পরে, তাঁর চোখ থেকে জল পড়তে থাকে।  পরের দিনই তিনি ছোটেন হাসপাতালে।  ওই মৌমাছিগুলোকে বের করার পরেও হি-এর চোখে বিশেষ ক্ষতি হয়নি।  পাঁচ দিন হাসপাতালে থেকে চিকিৎসা চলে তাঁর।  তাঁর দৃষ্টিশক্তি ৮০ শতাংশই ঠিক আছে।  তবে তাঁর চোখ ঠিক আছে, কারণ তিনি চোখ ঘষেননি বারবার।  নইলে হয় তো সমস্যাই হতো।

তাহলে কী বুঝলেন! পৃথিবীতে কোনও কিছুই অসম্ভব নয়।  তাই খুব সাবধান…

Comments are closed.