বৃহস্পতিবার, জুন ২০

‘বস এক বার ইশারা করলেই ক্ষমতা কেড়ে নেব!’ কৈলাস বিজয়বর্গীয়র বেফাঁস মন্তব্যে বিতর্ক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভোপালের তখতের দিকে তাঁর যে নজর রয়েছে বিজেপি-র কে না জানে! সেই তিনি বিজেপি সাধারণ সম্পাদক তথা পশ্চিমবঙ্গের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়র বেফাঁস মন্তব্য নিয়ে হই হই পড়ে গেল।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দলের এক অনুষ্ঠানে গিয়ে কৈলাস বলেন, “মধ্যপ্রদেশে তো আমাদের দয়ায় সরকার চলছে। বস এক বার ইশারা করলেই ক্ষমতা দখল করে নেব।” সন্দেহ নেই, এখানে ‘বস’ বলতে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকেই বোঝাতে চেয়েছেন কৈলাস। দলে ঘরোয়া আলোচনাতেও অমিত শাহকে বস বলেন তিনি।

হিন্দি বলয়ের অন্যতম এই রাজ্যে সদ্য বিধানসভা ভোটে নাম মাত্র ব্যবধানে হেরেছে বিজেপি। বিধানসভার ২৩০টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস পেয়েছে ১১৪টি আসন। বিজেপি পেয়েছে ১০৯টি আসন। অতীতে দেখা গিয়েছে এ হেন পরিস্থিতিতে কম আসন পেয়েও যেন তেন প্রকারে সরকার গঠনে মরিয়া থাকে বিজেপি। যেমন, গোয়া, মণিপুরে এর আগে হয়েছে। কিন্তু এ বার তা হয়নি। উনিশের ভোটের আগে সেই ঝুঁকি নেয়নি। ফলে কংগ্রেস সরকার গঠন করেছে, কমলনাথ মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন।
কিন্তু বিজেপি শিবিরের আফসোস যেন চুঁইয়ে পড়ছে। দলের ওই অনুষ্ঠানে কৈলাস বলেন, “মধ্যপ্রদেশে এখন যে সরকার চলছে তাকে আবার সরকার বলে নাকি! ও তো আমাদের দয়ায় চলছে। দিল্লি থেকে বস একবার ইশারা করলেই ক্ষমতা কেড়ে নেব!” এমনকি কৈলাস এও বলেন, ১৫ বছর মধ্যপ্রদেশে সরকারে ছিলাম বলে কাউকে কখনও খারাপ কথা আমরা বলিনি। অফিসাররা এ বার কথা না শুনলে ব্যবস্থা হবে।

প্রসঙ্গত, ক’দিন আগেই মধ্যপ্রদেশের প্রবীণ কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিংহ অভিযোগ করেছিলেন যে কংগ্রেসের বিধায়ককে একশ কোটি টাকা ঘুষ দিয়ে কিনতে চাইছে বিজেপি। তার পরপরই কৈলাসের এই মন্তব্য চাউর হতেই দিগ্বিজয় বলেন, বিজেপি-র চরিত্র বেরিয়ে পড়ছে। টাকা দিয়ে মধ্যপ্রদেশে সরকার উল্টে দিতে চায়।

কৈলাসের এই মন্তব্য নিয়ে বিজেপি শীর্ষ নেতারাও অস্বস্তিতে পড়েছেন। দলের এক কেন্দ্রীয় নেতার কথায়, কৈলাসের নজর রয়েছে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর আসনের উপর। এর আগে রাজ্যে বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহানকেও সারা ক্ষণ বিরক্ত করতেন কৈলাস। সে জন্যই রাজ্য থেকে বার করে এনে ওঁকে কেন্দ্রীয় সংগঠনে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল। তা ছাড়া ওঁর এই মন্তব্যের নেপথ্যে আরও একটা কারণ থাকতে পারে। মধ্যপ্রদেশে নানা রকম কাজ কারবার রয়েছে কৈলাসের। উনি হয়তো আশঙ্কা করছেন, বিজেপি সরকার থেকে চলে যাওয়ার পর আমলারা আর ওঁর কথা শুনবেন না।

তাই তাঁদের বার্তা দিতেই এ সব কথা বলছেন। বোঝাতে চাইছেন, যে কোনও দিন বিজেপি ক্ষমতায় চলে আসতে পারে। তাই বেগতিক যেন কেউ না করেন।

Comments are closed.