কলকাতায় ‘গোলি মারো’ স্লোগানের পাশে বিজেপি, আরও বিস্ফোরক দিলীপ

রবিবার শহিদ মিনার ময়দানে ছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সমাবেশ। সেই সমাবেশে যোগ দিতে যাওয়া মিছিল থেকেই ওই স্লোগান দিতে শোনা যায়। মাথায় গেরুয়া ফেট্টি বাঁধা‌, বিজেপির পতাকা ধারীরা জোর গলায় বলতে থাকেন, ‘‘দেশ কে গদ্দারোঁ কো, গোলি মারো সালোঁ কো!’’

১৬

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দিল্লির স্লোগান কলকাতায়। রবিবার অমিত শাহর সভায় আসা মিছিল থেকে উঠল স্লোগান— ‘‘দেশ কে গদ্দারোঁ কো, গোলি মারো সালোঁ কো!’’এমন স্লোগান দিল্লিতে তুলেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের প্রচার পর্বে এমন স্লোগান নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। দিল্লিতে বিজেপির ভরাডুবির জন্য এই ধরনের উগ্রতাও কারণ বলে দাবি করেছেন অনেকে। এবার এই রাজ্যেও একই সুর শোনার পরেও বিতর্ক তৈরি হয়েছে। কিন্তু তাতে কিছুই যেন আসে যায় না রাজ্য বিজেপির। উল্টে এই স্লোগানকে সমর্থনই করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সোমবার সকালে দিল্লি উড়ে যাওয়ার আগে বললেন, “কে কী স্লোগান দিয়েছে আমি জানি না। তবে আগেও বলেছি, এখনও বলছি যারা দেশের সম্পত্তি নষ্ট করবে তাদের গুলি মারাই উচিত।”

রবিবার শহিদ মিনার ময়দানে ছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সমাবেশ। সেই সমাবেশে যোগ দিতে যাওয়া মিছিল থেকেই ওই স্লোগান দিতে শোনা যায়। মাথায় গেরুয়া ফেট্টি বাঁধা‌, বিজেপির পতাকা ধারীরা জোর গলায় বলতে থাকেন, ‘‘দেশ কে গদ্দারোঁ কো, গোলি মারো সালোঁ কো!’’সেই ভিডিও সংবাদ মাধ্যম তুলে ধরতেই শুরু হয় বিতর্ক। বাম, কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস সব নেতারাই এই স্লোগানের জন্য সমালোচনা করেন। অনেকেই বলেন এটাই বিজেপির সংস্কৃতি। এর পরে অনেক মনে করেছিলেন, বিজেপি এই স্লোগানকে সমর্থন করবে না। কিন্তু দিলীপ ঘোষ বুঝিয়ে দিলেন ‘গোলি মারো’ স্লোগানের পাশেই আছে দল। তবে দিলীপ বলেন, যারা ওই স্লোগান তুলেছে তারা আদৌ বিজেপি সমর্থক কিনা তা নিয়ে তিনি নিশ্চিত নন।

জানা গিয়েছে, পুলিশ ইতিমধ্যেই ওই স্লোগানের জন্য নিউ মার্কেট থানায় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফৌজদারি ধারায় মামলা রুজু করেছে। স্লোগান কারা দিয়েছে তাদের চিহ্নিত করতে দেখা হচ্ছে ফুটেজ। তবে দিলীপ ঘোষের দাবি, “এসব সাজানো কিনা সেটাও দেখতে হবে। হয় তো সবটাই নাটক। কারা বিজেপির মিছিলে ঢুকে এমন স্লোগান তুলল সেটা এখনও স্পষ্ট নয়। কেউ লোক ঢুকিয়ে বিজেপির উপরে দোষ দেওয়ার চেষ্টা করতে পারে।”

যাদের বিরুদ্ধে পুলিশ মামলা করার উদ্যোগ নিচ্ছে তাদের পাশে বিজেপি দাঁড়াবে কিনা সেই প্রশ্ন অবশ্য জিইয়েই রাখলেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘‘কারা কলকাতায় স্লোগান দিয়েছেন, আমি জানি না। আমি দেখিনি। তবে স্পষ্ট করেই বলছি, আমার এতে কোনও বিরোধিতা নেই। আমি তো আগেই বলেছিলাম, দেশের সম্পত্তি যারা নষ্ট করছে, তাদের গুলি করা উচিত। এখনও একই কথা বলছি।’’

দিল্লিতে যে উগ্রতার রাজনীতির খেসারত দিতে হয়েছে বিজেপিকে সেই পথেই কি হাঠতে চায় বাংলা বিজেপিও? নতুন করে এই প্রশ্ন তৈরি করলে দিলীপ ঘোষ। রবিবার শহিদ মিনারের সমাবেশ শেষে রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে বিভিন্ন সাংগঠনিক বৈঠক করেন অমিত শাহ। গভীর রাত পর্যন্ত চলা সেই বৈঠকে অবশ্য এই স্লোগান প্রসঙ্গ ওঠেনি বলেই জানা গিয়েছে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More