রবিবার, অক্টোবর ২০

খাওয়ার লোক নেই, রান্না ডিম পাহারা দিয়েছে পুলিশ, দিলীপের আক্রমণে ‘তৃণমূল ও ডিম’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তৃণমূল কংগ্রেসের মেনু ডিম-ভাত থেকে একুশের সমাবেশে মমতার বক্তব্য, সব নিয়েই একের পর এক আক্রমণ শানালেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। দেখে নেওয়া যাক সমাবেশের শেষে কী কী বললেন দিলীপ ঘোষ–

১। ডিম রান্না হয়েছে। খাওয়ার লোক মেলেনি। পুলিশ রান্না করা ডিম পাহারা দিয়েছে।

২। এদিন ছিল সব থেকে বড় ফ্লপ-শো। একুশে জুলাই এখন বিশ্ব ডিম-ভাত দিবস।

৩। অনেক ডিম নষ্ট হয়েছে। এক এক জন চারটে করে ডিম খেয়েও শেষ হয়নি। বললে আমরা লোক পাঠাতে পারতাম ডিম খাওয়ার জন্য।

৪। সমাবেশে যা লোক হয়, তার চার ভাগের এক ভাগও হয়নি। আগে বললে আমরা লোক পাঠিয়ে দিতাম।

৫। বাংলাদেশ থেকে অনেক কিছু আমদানি করছেন মমতা। এখন ‘জয় বাংলা’ স্লোগান আমদানি করেছেন।

৬। ‘দিল্লি চলো’ স্লোগান তুলে দিল্লি যেতে গিয়ে রাজ্যেই চাকা পাংচার হয়ে গিয়েছে। বাংলাও নয়, আগে তৃণমূল কংগ্রেসকে বাঁচান মমতা।

৭। বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো বড় গদ্দার আর কেউ হয় না। কংগ্রেসে থেকে কংগ্রেসের বিরুদ্ধেই রাজনীতি করেছেন।

৮। মমতা অভিযোগ করেছেন তাঁর দলের এক বিধায়ককে ২ কোটি টাকা অফার করা হয়েছে। কিন্তু তৃণমূলে কোনও নেতার অত দর নেই। ওনারও মার্কেট ভ্যালু এত নয়।

৯। কালো টাকার কোনও প্রমাণ থাকলে তদন্ত করুন। যদিও মমতার তদন্তকে কেউ বিশ্বাস করে না।

১০। তৃণমূলের আন্দোলন করার মতো দম নেই। যাঁরা লোক আনবে তাঁরাই বিজেপির দিকে পা বাড়িয়ে আছে। হতাশা থেকে এসব আওয়াজ দিচ্ছেন।

১১। ইভিএম নয়, মানুষকে ভয় পাচ্ছে তৃণমূল। সিন্ডিকেট, তোলাবাজি, কাটমানি সবাই ওনার অনুপ্রেরণায়।

১২। চাইলে ব্যালটেই ভোট করান মমতা। আসলে ভোটেই ভয় পাচ্ছেন মমতা। পঞ্চায়েতে কেন ভোট করতে দিলেন না?

Comments are closed.