শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩
TheWall
TheWall

শরীরী মিলন থেকে খাওয়া-দাওয়া, পুজোর সময়ে অনেক নিয়ম রয়েছে শাস্ত্রে

নবকুমার ভট্টাচার্য

১. নিত্য গঙ্গাস্নান করুন, কারণ গঙ্গাস্নানে শরীর ও মন শুদ্ধ হয়। গঙ্গা নিকটে না থাকলে গঙ্গাজল মাথায় দিয়ে তিনবার ‘গঙ্গা’ নাম উচ্চারণ করুন।

২. নিত্য ১০৮ বার দুর্গানাম জপ করুন। এই নাম স্মরণ করলে সকল বিপদ আপদ দূর হয়।

৩. ষষ্ঠী থেকে নবমী পর্যন্ত নিরামিষ আহার করুন। তবে দেবীর ভোগ আমিষ হলে এই নিয়ম মানতে হবে না।

৪. ষষ্ঠীর দিন সকালে সন্তানের সুস্থ জীবন ও মঙ্গল কামনায় ষষ্ঠী দেবীর পুজো দিন এবং সন্তানের কপালে দই-হলুদের ফোঁটাদিয়ে সন্তানের দীর্ঘ জীবন ও মঙ্গল কামনা করুন।

৫. শাস্ত্রে বছরে চারটি দিন— জন্মাষ্টমী, রামনবমী, শিবরাত্রি ও দুর্গাষ্টমীতে অন্নগ্রহণ নিষিদ্ধ বলে জানানো হয়। দুর্গাষ্টমীতে অন্নগ্রহণ করলে সহস্র বর্ষ নরকবাস হয় বলে ‘কালিকাপুরাণ’-এ বলা হয়েছে। তবে দেবির ভোগ অন্ন হলে এই নিয়ম গ্রাহ্য নয়।

৬. এই সময় নারী-পুরুষের দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন বা কোনরূপ যৌনাচার নিষিদ্ধ বলা হয়েছে। এমনকী, পুজোর সঙ্গে যারা যুক্ত তাঁদের চুল এবং দাড়ি কামানোও নিষিদ্ধ।

৭. সপ্তমী ও অষ্টমী তিথিতে পুষ্পাঞ্জলি না দিতে পারলেও সন্ধিপুজোর সময়ে অবশ্যই অঞ্জলি দিন।

৮. দশমীর সন্ধ্যায় গুরুজনদের প্রণাম করে আশীর্বাদ নিন এবং সামান্য সিদ্ধির সরবৎ পান করুন। তাহলে সারা বছর সকল কাজে সিদ্ধি লাভ হবে।

Comments are closed.