রবিবার, অক্টোবর ২০

৩৭০ ধারা বিলোপের সমর্থন না বিরোধিতা? আড়াআড়ি দু’ভাগ কংগ্রেস

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সোমবার সংবিধানের ৩৭০ ধারা বিলোপের উদ্যোগ নিয়েছে বিজেপি। জম্মু-কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে। প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস স্বীকার করেছে, মোদী সরকার যে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসেই এমন পদক্ষেপ করবে, তা তারা ভাবতে পারেনি। কংগ্রেসের সামনে তার চেয়েও বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকারের প্রস্তাবকে সমর্থন করবে না বিরোধিতা করবে। কংগ্রেসের বেশ কয়েকজন প্রথম সারির নেতা বিজেপির ওই প্রস্তাবের পক্ষে দাঁড়িয়েছেন। দলগতভাবে বিষয়টি নিয়ে কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছতে সমস্যায় পড়েছে দেশের প্রাচীনতম দল।

মঙ্গলবার লোকসভার অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে বিভিন্ন বিরোধী দলের কয়েকজন সাংসদ কংগ্রেসের দুই প্রাক্তন প্রধান সনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীর সঙ্গে দেখা করেন। তাঁরা চাইছিলেন, সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীরা ঐক্যবদ্ধভাবে কোনও অবস্থান নিন। সনিয়া তাঁদের বলেন, জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে সংসদে প্রস্তাব আনার আগে সেখানকার বিধানসভা অথবা সাধারণ মানুষের সঙ্গে কোনও আলোচনা করা হয়নি। সেজন্য আমরা ওই প্রস্তাবের বিরোধিতা করব।

গত সোমবার জম্মু-কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার প্রস্তাব পেশ হয় রাজ্যসভায়। সংসদের ওই কক্ষে সরকারের গরিষ্ঠতা নেই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ওই বিল পেশ করার পরে কয়েকটি বিরোধী দল ওয়াক আউট করে। মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি, নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল, জগন রেড্ডির ওয়াই এস আর কংগ্রেস, চন্দ্রবাবু নায়ডুর তেলুগু দেশম পার্টি ও অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি কেন্দ্রীয় সরকারকে সমর্থন করে।

সোমবার কংগ্রেসের মুখপাত্র অভিষেক মনু সিংভি স্বীকার করেন, সরকার তাঁদের বোকা বানিয়েছে। যে চার-পাঁচটি দল ৩৭০ ধারা বিলোপের বিরোধিতা করেছে, তার মধ্যে কংগ্রেস একটি। অভিষেক মনু সিংভি বলেন, গত এক সপ্তাহ ধরে গুলাম নবি আজাদ এবং পি চিদম্বরমের মতো নেতা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছেন। আমরা আন্দাজ করেছিলাম, এইরকম একটা বিল আসতে পারে। কিন্তু আগে থেকে এসব ব্যাপারে নিশ্চিন্ত হওয়া যায় না।

তিনি শেষে বলেন, খুব কম সংখ্যক দলই সরকারের ওই পদক্ষেপের বিরোধিতা করেছে। কিন্তু গণতন্ত্র তো গণতন্ত্রই। যাদের সংখ্যা বেশি, তাদের মতই চলবে।

রাহুল গান্ধীকে প্রশ্ন করা হয়, এই পরিস্থিতিতে আপনারা কি কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির আলাদা বৈঠক ডাকবেন? রাহুল বলেন, আমি এখন মিটিং ডাকতে পারি না। আমি আর দলের সভাপতি নই।

Comments are closed.