শুক্রবার, নভেম্বর ২২
TheWall
TheWall

শিবসেনা-বিজেপির বিচ্ছেদ প্রায় সম্পূর্ণ, মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ার চেষ্টায় কং-এনসিপি

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কিছুদিন আগেই কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী স্পষ্ট বলেছিলেন, শিবসেনাকে সরকার গঠনে সাহায্য করবেন না। এর মধ্যে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের সময়সীমা শেষ হয়ে এসেছে। শিবসেনা ও বিজেপির মধ্যে বোঝাপড়া হয়নি। এই অবস্থায় শোনা গেল, মহারাষ্ট্রে পরবর্তী সরকার গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারে কংগ্রেস ও এনসিপি। একটি সূত্রের খবর শিবসেনা নেতৃত্বাধীন কোনও সরকারকে সমর্থন করতে এখন আর আপত্তি নেই কংগ্রেস হাইকম্যান্ডের।

এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার মহারাষ্ট্রে অ-বিজেপি সরকার গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চলেছেন। কংগ্রেস ও শিবসেনা, দুই দলের নেতারাই সম্প্রতি দেখা করেছেন পওয়ারের সঙ্গে। একটি সূত্রে খবর, সাউথ মুম্বইয়ে পওয়ারের বাড়িতে গিয়েছিলেন শিবসেনার এমপি সঞ্জয় রাউত এবং কংগ্রেসের বালাসাহেব থোরাট, অশোক চহ্বণ, সুশীলকুমার শিন্ডে, পৃথ্বীরাজ চৌহান ও আরও কয়েকজন। পওয়ার গত দু’সপ্তাহ ধরে বিভিন্ন দলের নেতার সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন। তিনি তিনটি দলকে নিয়ে সরকার গঠনের রোডম্যাপ তৈরি করেছেন বলে জানা গিয়েছে।

কংগ্রেসের এক উচ্চপদস্থ নেতা জানিয়েছেন, শিবসেনা ও এনসিপি-র পক্ষে একজোট হয়ে সরকার গঠন করা কোনও ব্যাপারই নয়। ভোটের ফল বেরোনর পর থেকেই দুই দল পরস্পরের মধ্যে যোগাযোগ রেখে চলছে। কিন্তু কংগ্রেসের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে এমন কোনও জোটে থাকতে রাজি করানোই ছিল সমস্যা। কংগ্রেস হাইকম্যান্ড আশঙ্কা করেছিল, সেক্ষেত্রে তাদের মুসলিম ভোটাররা বিরূপ হতে পারেন। যাই হোক, মহারাষ্ট্রে কংগ্রেসের বিধায়করা শিবসেনার সঙ্গে জোট বেঁধে সরকার গড়তে আগ্রহী। হাইকম্যান্ডও শেষ পর্যন্ত তাতে সম্মতি দেবে বলে মনে হচ্ছে।

কংগ্রেসের দিল্লির এক নেতা বলেন, আমরা শিবসেনা নেতৃত্বাধীন সরকারে যোগ দিতে পারি। অথবা বাইরে থেকেও সমর্থন করতে পারি। যাই হোক না কেন, স্পিকারের পদ আমাদের চাই। আমাদের মহারাষ্ট্রের বিধায়করা অনেকে বলছেন, সরকারে যোগ দেওয়া উচিত। তাহলে সংখ্যালঘু ও অন্যান্য পশ্চাৎপদ শ্রেণির মানুষ ভাববেন, বিজেপি যাতে ক্ষমতায় আসতে না পারে, সেজন্য কংগ্রেস এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

Comments are closed.