বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ২১
TheWall
TheWall

অ্যাডমিশন পুরোটাই অনলাইনে, ক্লাস শুরুর আগে ক্যাম্পাসে পা-ই রাখবে না পড়ুয়ারা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যে দিন ক্লাস শুরু হবে, সে দিনই প্রথম কলেজে পা রাখবে ছাত্র-ছাত্রী। তার আগে অ্যাডমিশন সংক্রান্ত কাজে বা অন্য কোনও ব্যাপারে কলেজে যাওয়ার প্রয়োজনই পড়বে না। সোমবার নিউটাউনের অ্যামিটি ইউনিভার্সিটিতে রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি এবং সরকারি ও সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত অধ্যক্ষদের নিয়ে আয়োজিত বৈঠকে এমনটাই নির্দেশ দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

উচ্চমাধ্যমিকের রেজ়াল্ট বেরোনোর পরে বিভিন্ন কলেজে আসন্ন অ্যাডমিশন নিয়ে আলোচনা করার জন্য সবাইকে নিয়ে বৈঠক ডেকেছিলেন পার্থ। উচ্চ শিক্ষা সচিব রাজেন্দ্র এস শুক্লা ছিলেন তাঁর সঙ্গে।

এ দিনের বৈঠকে সব কলেজের অধ্যক্ষ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের নির্দেশ দেওয়া হয়, স্নাতক স্তরের ভর্তি প্রক্রিয়া এই বছর থেকে পুরোপুরি অনলাইন পদ্ধতির মাধ্যমে করার জন্য। অনলাইনেই সমস্ত সার্টিফিকেট আপলোড করে অ্যাপ্লাই করতে হবে। সেখানেই বেরোবে তালিকা। এমনকী কোনও কলেজে কোনও ‘হেল্প ডেস্ক’-ও থাকবে না। আবেদন করতে গিয়ে কারও কোনও সাহায্যের প্রয়োজন হলে, তা-ও মিটবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই।

গত বছর কলেজে অ্যাডমিশনের সময়ে দুর্নীতি নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল সারা রাজ্য। শাসকদল আশ্রিত ছাত্রনেতারা রীতিমতো টাকার বিনিময়ে ছাত্রভর্তি করিয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল। নিন্দায় ফেটে পড়েছিল রাজ্যের শিক্ষামহল।প্রশ্ন উঠেছিল, কিছু কলেজে অনলাইন এবং কিছু কলেজে সামনাসামনি– এই আধাখ্যাঁচড়া পদ্ধতির মানে কী।

এই অভিযোগের যাতে আর কোনও অবকাশ না থাকে, সে জন্যই এই বছর অ্যাডমিশন পদ্ধতিতে বড়সড় রদবদল আনার কথা জানানো হল আজকের বৈঠকে। গত বছরেই গোটা পদ্ধতি অনলাইের মাধ্যমে করার কথা উঠেছিল। এ বছর সেটাই কার্যকরী করা হল।

বৈঠক শেষে রাজেন্দ্র এস শুক্লা সাংবাদিকদের জানান, ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষ শুরুর আগে গোটা রাজ্যের কলেজগুলির উপাচার্যদের ডেকে আলোচনা করা হয়েছে অ্যাডমিশন পদ্ধতি নিয়ে। সেখান থেকে যা যা উঠে এসেছে:

১। পুরো অ্যাডমিশনের পদ্ধতিই অনলাইনে হবে, যাতে স্বচ্ছতা বজায় থাকে।
২। মেধার ভিত্তিতে তালিকা প্রকাশ হবে।
৩। অ্যাডমিশন চলাকালীন ছাত্র-ছাত্রী কোনও কারণেই ক্যাম্পাসে আসবে না।
৪। টাকা জমাও দেওয়া হবে অনলাইনে।
৫। ভর্তির খবরও আসবে ইমেলে।
৬। ক্লাস শুরু হলে তখনই কলেজে রিপোর্ট করবে পড়ুয়ারা।
৭। অ্যাডমিশনের সময়ে আপলোড করা ডকুমেন্টের ভেরিফিকেশনও তখনই হবে। সে সময়ে কোনও ডকুমেন্টে গন্ডগোল পাওয়া গেলে অ্যাডমিশন বাতিল হয়ে যেতে পারে। 

দেখুন সাংবাদিক বৈঠকে কী বলা হলো:

Comments are closed.