শুক্রবার, নভেম্বর ২২
TheWall
TheWall

রুপোলি পর্দা থেকে আবাসনের গেট, এ এক অন্য চৌকিদারের গল্প! পাশে আছেন পরিচালকেরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘চৌকিদার’ শব্দটি বোধ হয় এই মুহূর্তে দেশের সব চেয়ে আলোচিত শব্দ। সঙ্গে বিতর্কিতও বটে। গোটা টুইটার ছেয়ে গেছে চৌকিদারে। চৌকিদারদের নিয়ে নানা রকম মশকরায় মশগুল নেটিজেনরা। কিন্তু এ সবের মাঝেই উঠে এল এক অন্য চৌকিদারের কথা। যে চৌকিদারের কথা শুনলে কোরও বিতর্ক বা বিরক্তি নয়, উদ্রেক হবে যন্ত্রণারই। কারণ স্বেচ্ছায় নয়, জীবনযুদ্ধের ফেরে এই মানুষটিকে রুপোলি পর্দার চরিত্রের ভূমিকা থেকে নেমে আসতে হয়েছে বাস্তবের চৌকিদারের ভূমিকায়।

তিনি সাভি সিধু। বলিউডের এক দক্ষ অভিনেতা। না, পাঁচ জনের মতো হয়তো ডাকসাইটে নায়ক তিনি নন। কিন্তু নায়ক না হয়েও গুলাল, ব্ল্যাক ফ্রাইডে, পাটিয়ালা হাউসের মতো বিভিন্ন সিনেমায় নানা পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করে, দর্শকদের নজর কেড়েছেন বহু বার। অনুরাগ কাশ্যপের সিনেমার প্রায় বাঁধাধরা অভিনেতা ছিলেন তিনি।

এই মানুষটিই এখন মুম্বাইয়ের পারেলের একটি আবাসনে চৌকিদারের কাজ করছেন বলে জানা গিয়েছে। স্বেচ্ছায় নয়, পেটের দায়েই এই কাজ করতে হয় তাঁকে।

এ ভাবেই এখন কাজ করছেন সাভি সিধু।

সম্প্রতি তাঁর একটি সাক্ষাৎকারের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, অভিনয় জীবন যখন তুঙ্গে, তখনই এক সময়ে অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে তাঁকে অভিনয় থেকে বিরতি নিতে হয়েছিল কয়েক মাস। কিন্তু সব সারিয়ে যখন তিনি ফিরে এলেন, তখন ফের সিনেমা জগতে যোগ দেওয়ার পথ কার্যত বন্ধ হয়ে গিয়েছিল তাঁর। তবু চেষ্টা করেছিলেন, বেশ কিছু দিন। শেষমেশ কোনও সুযোগ না পেয়ে, পরিবার ও পেট চালাতে একটি আবাসনের নিরাপত্তরক্ষী হিসেবেই কাজ নেন তিনি।

তবে অভিনয়ের ইচ্ছে তো মরেনি, ফুরোয়নি আশাও। তিনি নতুন কাজ পাওয়ার জন্য পরিচালকদের সঙ্গে নতুন করে কথা বলার পরিকল্পনা করছেন। সাভির কথায়, “আমার আশা, কেউ না কেউ আমায় অভিনয়ের কাজ দেবেনই। হয়তো আমার জন্যই কোনও সিনেমানির্মাতা অপেক্ষা করছেন। আসছি আমি….।”

পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ এবং রাজকুমার রাও, অভিনেতা সাভি সিধুর এই লড়াইয়ে গল্পকে অনুপ্রেরণা হিসেবেই দেখছেন। তাঁরা সাভিকে তাঁদের শুভেচ্ছাও জানিয়েছেন। রাজকুমার তাঁর সিনেমা জগতের বন্ধুদের তাঁদের পরবর্তী সিনেমায় যাতে সাভি সিধুকে অবশ্যই কাজ দেওয়া হয়, সেই অনুরোধ করেন।

রাজকুমার রাওয়ের টুইটে তিনি বলেন, “আপনার গল্প শুনে অনুপ্রাণিত হয়েছি সাভি সিধু স্যার। আপনার সমস্ত চলচ্চিত্রে আপনার কাজের প্রশংসাই করেছি সর্বদা। আপনার মধ্যে এই ইতিবাচক মানসিকতা ভালোবাসি। অবশ্যই আমার সমস্ত কাস্টিং বন্ধুদের আপনার কাছে পৌঁছাতে বলবে… স্থিরতাই সব বাধা অতিক্রম করার চাবিকাঠি।”

দেখুন সেই টুইট।

অনুরাগ কাশ্যপের ‘পাঁচ’ সিনেমায় প্রথম অভিনয় করেছিলেন সাভি সিধু। এর পরে তিনি অনুরাগ কাশ্যপেরই ‘ব্ল্যাক ফ্রাইডে’তে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ওই সিনেমায় সাভি সিধুকে কমিশনার সামরার ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখেছেন দর্শকরা। অনুরাগ কশ্যপ পরিচালিত ‘গুলাল’ সিনেমাতেও ছোটো অথচ গুরুত্বপূর্ণ একটি ভূমিকায় দেখা গিয়েছে তাঁকে। এ ছাড়া নিখিল আডবানির পাটিয়ালা হাউসেও অভিনয় করেছেন সাভি সিধু।

এক সময়ে দাপিয়ে অভিনয় করেছেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায়।

অনুরাগ কাশ্যপও সাভি সিধুর পাশে দাঁড়ানোর কথা বলে বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন। অনুরাগ লিখেছেন, “এখানে এমন অনেক অভিনেতা আছেন, যারা কাজ পাচ্ছেন না। আমি অভিনেতা হিসাবে সাভি সিধুকে সম্মান করি এবং আমার সিনেমায় তিন বার তিনি নিজের যোগ্যতায় কাজ করেছেন। মর্যাদাপূর্ণ জীবন বাঁচতে তিনি একটা যেমনই হোক চাকরি বেছেছেন। যেখানে অনেককেই জানি, যারা অভিনেতা ছিলেন, কাজ না পেয়ে পেয়ে মদ্যপ হয়ে গেছেন বা নিজেকে নষ্ট করে ফেলেছেন।”

দেখুন তাঁর টুইট।

Comments are closed.