সোমবার, এপ্রিল ২২

রোগী-সার্জেনের দূরত্ব তিন হাজার কিলোমিটার! ৫জি প্রযুক্তি সফল করল অস্ত্রোপচার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তিন কিলোমিটার নয়, তিরিশ নয়, তিনশোও নয়। সুদূর তিন হাজার কিমি দূরে বসে মস্তিষ্কের অস্ত্রোপচার সারলেন চিকিৎসক! আর সফল সেই অস্ত্রোপচারের হাত ধরেই টেলিমেডিসিনের ক্ষেত্রে যুগান্তকারী নিদর্শন তৈরি করল চিন।

চিনের বিশিষ্ট চিকিৎসক, স্নায়ু বিশেষজ্ঞ লিং ঝিপেই বেজিংয়ের পিএলএ জেনারেল হাসপাতালে, একটি বিশেষ মোবাইল ও ৫জি নেটওয়ার্ক প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে, তিন হাজার কিলোমিটার দূরের সান্যা সিটি থেকে ওই সার্জারি করেছেন। জটিল পার্কিনসন্স রোগে আক্রান্ত এক ব্যক্তির মস্তিষ্কে ডিপ ব্রেন স্টিমুলেশন ইমপ্লান্ট করতে সফল হয়েছেন ঝিপেই ও তাঁর দল।

এমন অস্ত্রোপচার চিনে তথা সারা বিশ্বে এই প্রথম হল বলে দাবি করেছে বেজিং।

জানা গিয়েছে, বেজিং থেকে তিন হাজার কিলোমিটার দূরের সান্যা সিটিতে বসে, সকাল ন’টায় অস্ত্রোপচার শুরু করেন ঝিপেই। অত দূর থেকেই ৫জি প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে তিনি অপারেট করেন নিজের ঘরে বসেই। সেই পদ্ধতিই প্রযুক্তির সাহায্যে নিখুঁত ভাবে বেজিংয়ের অপারেশন থিয়েটারে শুয়ে থাকা রোগীর মস্তিষ্কে ডিবিএস প্রতিস্থাপন করেন। অস্ত্রোপচারের পরে রোগী জানিয়েছেন, ভাল আছেন তিনি।

অত্যন্ত দক্ষ এবং তুমুল ব্যস্ত ব্রেন সার্জেন, ডক্টর লিং ঝিপেই চিনের বিভিন্ন শহরে ঘুরে-ফিরে রোগী দেখেন। নানা হাসপাতালে অস্ত্রোপচার করতে হয় তাঁকে। এই সময়ে, হাইনানের সান্যা শহরে থাকার সময়ে বেজিংয়ের এক রোগীর মস্তিষ্কে তৎক্ষণাৎ অস্ত্রোপচার জরুরি হয়ে পড়ে।

বেজিং থেকে হাইনানে উড়ে আসা সম্ভব ছিল না রোগীর। চিকিৎসক ঝিপেইয়ের পক্ষেও সব কাজ ফেলে অতটা পথ পাড়ি দেওয়া সম্ভব ছিল না। সময়ও ছিল না হাতে। সেই কারণেই ৫জি প্রযুক্তির সাহায্যে দূর-নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতিতে অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকেরা।

ঝিপেই বলেছেন, “৪জি প্রযুক্তিতে ভিডিয়ো ল্যাগ এবং রিমোট কন্ট্রোল ডিলের মতো সমস্যা থাকে কিছু। কিন্তু ৫জি-তে সে সব কিছুই নেই। তার ফলে একেবারে রিয়েল টাইম অস্ত্রোপচারে কোনও বিঘ্ন ঘটে না। মনেই হয় না, তিন হাজার কিলোমিটার দূরে বসে অস্ত্রোপচার করছি।”

Shares

Comments are closed.