এভারেস্টের চুড়োতেও মিলবে ৫জি টেলি-পরিষেবা! তৈরি হয়ে গেছে বেসস্টেশন, খুশি অভিযাত্রী ও গবেষকরা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো: অভিযানের ইতিহাসে পর্বতারোহণ চিরকালই মানুষের কাছে এক অদম্য হাতছানি হয়ে থেকে গেছে। এই অভিযানের টানে মানুষ পা রেখেছে পৃথিবীর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টের মাথাতেও। এখন সেই এভারেস্ট অভিযানে প্রতি বছর সামিল হন দেশ-বিদেশের হাজার হাজার পর্বতারোহী। দুর্গম পথে দুর্জয় পদক্ষেপে কেউ কেউ ওড়ান জয়ের নিশান, কেউ কেউ ফিরে আসেন বিফল হয়ে।

    এবার সেই সমস্ত অভিযাত্রীদের জন্য সুখবর। মাউন্ট এভারেস্টের চুড়োয় পাওয়া যাবে ৫জি টেলিপরিষেবা! নর্থ কল অর্থাৎ চিনের দিক থেকে এভারেস্ট আরোহণের যে রুট, সেখানে ৬৫০০ মিটার উচ্চতার বেসক্যাম্পে ইতিমধ্যেই বসানো হয়েছে একটি বেসস্টেশন। ফলে দুর্গম সেই অভিযানেও দ্রুততম মোবাইল পরিষেবার সুবিধা পাবেন সকলে।

    5G Has Now Reached Mount Everest Thanks To Chinese ...

    চিনের তরফে জানানো হয়েছে, যেসমস্ত পর্বতারোহী চিনের দিক থেকে এভারেস্ট অভিযান করবেন, তাঁরা এই ৫জি পরিষেবা উপভোগ করতে পারবেন। চিনা মোবাইল হংকং এবং হুয়াই-এর পক্ষ থেকে এভারেস্ট বেস ক্যাম্পের চিনের অংশে বসানো হল এই ৫জি বেসস্টেশন।

    চিন দাবি করেছে, এটাই পৃথিবীর উচ্চতম ৫জি বেস স্টেশন। প্রসঙ্গত চিন ও নেপাল সীমান্তে অবস্থিত ৮৮৪৮ মিটার উঁচু এভারেস্টে এর আগেও ৫৩০০ মিটার ও ৫৮০০ মিটার উচ্চতায় আরও দুটি বেসস্টেশন বসানো হয়েছিল। এবারে বসল তারও বেশ খানিকটা ওপর, যার জেরে একেবারে চুড়ো পর্যন্ত পৌঁছবে পরিষেবা।

    China Mobile, Huawei Bring 5G Connectivity to Mount Everest ...

    চিনের ওই দুই মোবাইল কোম্পানির তরফে বলা হয়েছে, এবার থেকে পৃথিবীর এই উচ্চতম শৃঙ্গেও যোগাযোগ ব্যবস্থা অনেক উন্নত হয়ে উঠবে। মানুষ একে অপরের সঙ্গে সহজেই যোগাযোগ রাখতে পারবে। দুর্ঘটনায় বা দুর্যোগে হারিয়ে যাওয়া পর্বতারোহীদের উদ্ধার করতেও অনেক সুবিধা হবে। পাওয়া যাবে হাই ডেফিনিশন ভিডিও কলের সুবিধা।

    সংস্থাগুলি আরও জানিয়েছে, এই চরম দুর্গম অঞ্চলে এই ধরনের পরিষেবা চালু করা যে কতটা কঠিন, তা বলাই বাহুল্য। ১৫০ জন কর্মী কাজ করছেন। যন্ত্রাংশ ও খাদ্যসামগ্রী বাবদ আট টন জিনিসপত্র পৌঁছেছে দুর্গম পথে। তবু কাজটি করতে পেরে তারা খুশি। এই বেসস্টেশন তৈরিতে খরচ হয়েছে ১০ লক্ষ মার্কিন ডলারেরও বেশি। ভারতীয় মূল্যে তা সাত কোটি টাকারও বেশি।

    5G signal now available on Mount Everest peak

    চিনা মোবাইল সংস্থার তিব্বতের শাখার জেনারেল ম্যানেজার ঝাউ মিন জানান, শুধু উন্নত যোগাযোগ বা লাইভ ভিডিও কল নয়, এই পরিষেবার জন্য এভারেস্টে নানান গবেষণামূলক কাজেও দারুণ সুবিধা হবে। এমনকি পরিবেশ রক্ষার জন্য মনিটরিং করার ক্ষেত্রেও কাজে আসবে এই ৫জি পরিষেবা। স্থানীয় বাসিন্দারাও এর সুবিধা উপভোগ করতে পারবে।

    জানা গেছে, ৫৩০০ মিটার উচ্চতার ৫জি পরিষেবাটি বেসক্যাম্প অঞ্চলে কাজ করবে এখন থেকে। এখন শুধুই বিশেষ ক্ষেত্রে এটি ব্যবহার করা যায়, কিন্তু নতুন ৫জি পরিষেবা বাণিজ্যিক ভাবে চালু হয়ে গেলে সমস্ত পর্বতারোহী, পর্যটক এবং স্থানীয় বাসিন্দা বেসক্যাম্প অঞ্চলের পরিষেবা ব্যবহার করতে পারবেন।

    Mount Everest: 5G auf dem höchsten Berg der Erde - watson

    তার ওপরের যে দু’টি স্টেশন, ৫৮০০ মিটার এবং নতুনতম ৬৫০০ মিটার ওপরে– সেগুলি আরোহণের পথে সিগন্যাল কভারেজ সরবরাহের জন্য ব্যবহৃত হবে। আশা করা যাচ্ছে, এভারেস্ট অভিযানের অনেক সমস্যাই সহজ হয়ে যাবে আগের থেকে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More