শনিবার, অক্টোবর ১৯

১২ মাস নয়, টানা ৭ বছর চাঁদকে প্রদক্ষিণ করতে পারে চন্দ্রযান -২

দ্য ওয়াল ব্যুরো : দুঃসংবাদের পর সুসংবাদ। বৃহস্পতিবার চাঁদের খুব কাছে পৌঁছেও হারিয়ে গিয়েছে ল্যান্ডার বিক্রম। শুক্রবার জানা গেল চন্দ্রযান-২ এর অরবিটারের আয়ু যতদিন বলে ভাবা হয়েছি, বাস্তবে তার চেয়ে বেশিদিন তা প্রদক্ষিণ করবে চাঁদকে। ইসরো থেকে বলা হয়েছে, আগে ভাবা হয়েছিল, চন্দ্রযান-২ মাত্র ১২ মাস চাঁদকে প্রদক্ষিণ করবে। এখন মনে হচ্ছে, তা সাত বছর অবধি কাজ করতে পারবে।

ইসরো থেকে বলা হয়েছে, চন্দ্রযান-২ এর অরবিটারকে নিখুঁতভাবে মহাকাশে উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল। তাই তার কার্যকালের মেয়াদ বৃদ্ধি পাবে। গত ২২ জুলাই শ্রীহরিকোটা থেকে জিএসএলভি এমকে থ্রির মাধ্যমে চন্দ্রযান-২ কে পৃথিবীর কক্ষপথে স্থাপন করা হয়। চন্দ্রযান-২ এর ওজন ৩.৮ টন।

ইসরো তার সর্বশেষ বিবৃতিতে বলেছে, মিশন চন্দ্রযান-২ ছিল অত্যন্ত জটিল। অরবিটার, ল্যান্ডার ও রোভারের মাধ্যমে চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে অবতরণ করা ছিল খুব শক্ত কাজ। অরবিটারের আয়ু এখন আগের চেয়ে সাতগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন সে খুঁজবে, চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে কোথায় ধাতু আছে এবং কোথায় জল পাওয়া যেতে পারে।

চন্দ্রযান ২ এর অরবিটারে যে ক্যামেরা আছে, তা সর্বোচ্চ রেজলিউশনের। সে যা ছবি তুলবে, তাতে সব দেশের বিজ্ঞানীরাই লাভবান হবেন। একইসঙ্গে ইসরো জানিয়েছে, চন্দ্রযান ২ এর ৯০ থেকে ৯৫ শতাংশ সফল হয়েছে। এই সাফল্য চাঁদ সম্পর্কে আমাদের জ্ঞান বৃদ্ধি করবে।

বিক্রমের সঙ্গে যোগযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়া সম্পর্কে বলা হয়েছে, চন্দ্রপৃষ্ঠের ২.১ কিলোমিটার ওপরে পৌঁছানো পর্যন্ত ল্যান্ডারের সব যন্ত্রপাতি নিখুঁত কাজ করছিল। তাতে ভেরিয়েবল থ্রাস্ট প্রোপালসান টেকনলজি নামে এক ধরনের নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়।

Comments are closed.