বুধবার, মার্চ ২০

মুজফফরপুর হোম কাণ্ডে নীতীশ কুমারের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জোর ধাক্কা খেলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। মুজফফরপুর শেল্টার হোম কাণ্ডে এ বার পাটনার পসকো আদালত সিবিআই-কে নির্দেশ দিল নীতীশ কুমারের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে। শুধু নীতীশ নন। আদালত জানিয়েছে সরকারের দুই আমলার বিরুদ্ধেও তদন্ত করতে হবে কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সিকে।

মুজফফরপুর শেল্টার হোমে যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত ‘স্বঘোষিত’ ডাক্তার অশ্বিনী আদালতে পিটিশন জমা দিয়ে বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তদন্ত দাবি করেন। সেই সঙ্গে বলেন, ওই ঘটনায় যোগ রয়েছে সংশ্লিষ্ট জেলাশাসক ধর্মেন্দ্র সিং এবং সমাজকল্যাণ অধিকর্তা অতুলকুমার সিং-এর। তার ভিত্তিতেই শুক্রবার এই নির্দেশ দেয় আদালত।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি হাই প্রোফাইল এই মামলা স্থানান্তরিত হয়েছিল দিল্লির পসকো আদালতে। এ দিন বিচারক মনোজ কুমার স্পষ্ট নির্দেশ দিয়েছেন, এই তিনজনকে তদন্তের আওতায় এনে বিশদে সেই কাজ করতে হবে কেন্দ্রীয় এজেন্সিকে।

গত বছর জুলাই মাসে বিহারের হোম কাণ্ডে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল আদালত। মাঝে সিবিআই-এর গৃহযুদ্ধের সময় মুজফফরপুর হোম কাণ্ডে তদন্তকারী অফিসারকে সরিয়ে দেন অন্তর্বর্তী ডিরেক্টর এম নাগেশ্বর রাও। তা নিয়ে কয়েক দিন আগেই নাগেশ্বর রাওকে বেনজির সাজা দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। আদালতের নির্দেশ ছিল, অন্তর্বর্তী ডিরেক্টর হিসেবে নাগেশ্বর রাও কোনও নীতিগত সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না। কিন্তু সে সব শোনেননি সুরাট পুলিশের প্রাক্তন অধিকর্তা। আদালত অবমাননার জন্য সুপ্রিম কোর্ট নাগেশ্বর রাওকে আদালত কক্ষেই সারাদিন বসে থাকার সাজা দেন। প্রধান বিচারপতি বলেন, “আপনি আদালত অবমাননা করেছেন। সারাদিন আদালতের কোণায় গিয়ে চুপ করে বসে থাকুন। এটাই আপনার সাজা।” এক লক্ষ টাকা জরিমানাও করা হয় তাঁকে।

সিবিআই-এর নতুন ডিরেক্টর হয়েছেন ঋষিকুমার শুক্ল। অনেকেই মনে করেছিলেন এ বার বেশ কিছু তদন্তে গতি আসতে পারে। তার মধ্যে অন্যতম মুজফফরপুর হোম কাণ্ড। এ বার আদালতের নির্দেশেই সিবিআই এগোবে নীতীশ কুমারের দিকে। রাজনৈতিক মহলের মতে, এটা শুধু নীতীশের ব্যাপার নয়। আদালতের এই নির্দেশে চাপে থাকবে বিজেপি-ও। কারণ গেরুয়া শিবির ভোটের অনেকটা আগেই নীতীশের সঙ্গে আসন সমঝোতা করে ফেলেছে।

Shares

Comments are closed.