শুক্রবার, জানুয়ারি ১৮

Breaking: ডিএম-এর বিরুদ্ধে খুনের হুমকির অভিযোগ দায়ের প্রহৃত বিনোদের বাবার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সোমবারেই জানিয়েছিলেন আইনি ব্যবস্থা নেবেন ডিএম-এর বিরুদ্ধে। মঙ্গলবারেই ফালাকাটা থানায় আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক নিখিল নির্মল ও তাঁর স্ত্রী নন্দিনী কৃষ্ণণ-এর বিরুদ্ধে মারধোর ও খুনের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করলেন বিনোদ সরকারের বাবা রাজমোহন সরকার।

স্থানীয় সূত্রের খবর, এই ব্যাপারে শেষ অবধি এফআইআর নিয়েছে ফালাকাটা থানার পুলিশ।

রবিবার রাতেই এই ব্যাপারে একটি ভিডিও প্রকাশ করে দ্যা ওয়াল। সেই ভিডিওতে দেখা যায়, আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক নিখিল নির্মল ও তাঁর স্ত্রী নন্দিনী কৃষণ থানার ভেতর ঢুকে মারধোর করছেন এক যুবককে। জানা যায়, বিনোদ সরকার নামের ওই যুবককে ইন্টারনেটে ডিএম-এর স্ত্রীর বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য করার জেরে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আর তারপর পুলিশের আইসির সামনেই বিনোদকে মারধোর করতে থাকেন জেলাশাসক।

এই ভিডিও প্রকাশের পরেই তোলপাড় পড়ে যায় সারা রাজ্যে। জেলাশাসকের মতো একজন উচ্চপদস্থ সরকারি কর্মচারী আদৌ এই ভাবে নিজের হাতে আইন তুলে নিতে পারেন কিনা সে প্রশ্নও তোলেন অনেকে। অবশেষে, সরকারের তরফেও ছুটিতে পাঠানো হয় ওই জেলাশাসককে।

পরে অবশ্য আদালতে জামিন হয় বিনোদ সরকার নামে অভিযুক্ত ওই যুবকের। তাঁকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয় ফালাকাটা হাসপাতালে।

এই বিষয়ে সোমবারই দ্য ওয়ালের কাছে মুখ খুলেছিলেন বিনোদের বাবা। প্রশ্ন তুলেছিলেন, তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে যদি অশ্লীল মন্তব্য করার অভিযোগও থাকে, তাহলেও কী এই ভাবে তাঁর ছেলের গায়ে হাত তুলতে পারেন একজন সরকারি আধিকারিক?

মঙ্গলবারে থানায় দায়ের করা অভিযোগে ডিএম ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে মারধোর ও সরাসরি খুনের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ আনলেন তিনি। ‘সরকারি একজন উচ্চপদস্থ আইনরক্ষক’ এই ভাবে তাঁর স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে থানায় ঢুকে মারপিট করতে পারেন কিনা সে নিয়ে প্রশ্ন তুলে, এই বিষয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন করেন রাজমোহন।

আরও পড়ুন: 

Breaking: আলিপুরদুয়ারের ডিএম-এর হাতে মার খাওয়া যুবক ফালাকাটা হাসপাতাল থেকে ‘উধাও’

Shares

Comments are closed.