শনিবার, মার্চ ২৩

অন্তঃসলিলা

বই-কথা

গ্রাম ছিল তাঁর কপোতাক্ষ নদের ধারে। অধুনা বাংলাদেশ, একসময়ের পুর্ববঙ্গে। বিরাট পরিবার, নানা মধুর ঘটনায় ভরে থাকা শৈশব। তারপর একসময় ভেঙে গেল দেশ। ভাঙল মনও। উদ্‌বাস্তু হয়ে পাড়ি দিতে হল অন্যত্র। দেশভাগ ও তার আগে-পরের অনেক ঘটনা, অনেক উত্থান-পতনের সাক্ষী তিনি। পারিবারিক কিছু কারণেও বেশ কয়েকবার ঠাঁইনাড়া হতে হয়েছে তাঁকে। সেই সমস্ত জায়গা, তার মানুষজন ফিরে ফিরে এসেছে প্র‌তিমা ঘোষের স্মৃতির আখরে। এক জলছবির মতো বয়ে গিয়েছে সব। বাল্যপ্রে‌মের কথা তিনি লিখেছেন অকপটে। কমিউনিস্ট ভাবধারায় বিশ্বাসী হয়েও নিজের ঈশ্বরপ্রে‌ম নিয়ে বলতে দ্বিধা করেননি।

জীবনের নানা সংকট আর সেখান থেকে উত্তরণের কথা বলেছেন অনায়াস ভঙ্গিতে। সংস্কৃতি ও সংগঠন যে মানুষের চিন্তাকে উন্নত করে তার প্র‌মাণ তিনি লিপিবদ্ধ করেছেন এই লেখায়। সব মিলিয়ে যেন বর্ণময় এক আখ্যান হয়ে উঠেছে এই স্মৃতিকথা। স্মৃতি ঢেউ ভাঙে জীবনের তটভূমিতে। ফিরে আসে দুঃখ ও সুখ, ভেসে ওঠে পরিচিত, অপরিচিতের অবয়ব। ঘাত-প্র‌তিঘাতের মধ্যেও মানুষ ছুঁয়ে থাকে জীবনের অন্তঃসলিলা অমৃতধারাটিকে। সেই জীবনবোধের স্বরূপই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে এই স্মৃতিকথায়।

অন্তঃসলিলা

প্র‌তিমা ঘোষ

পরশপাথর প্র‌কাশন

২০০ টাকা

Shares

Comments are closed.