রবিবার, সেপ্টেম্বর ২২

জেলায় জেলায় উদ্ধার বিরোধীদের ভোট দেওয়া হাজার হাজার ব্যালট

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পশ্চিম মেদিনীপুর ও পুরুলিয়ার পর উত্তর দিনাজপুরেও গণনা কেন্দ্রের পাশ থেকে মিললো ভোট দেওয়া ব্যালট পশকা। অভিযোগ হেমতাবাদে যে গণনা কেন্দ্রে কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকদের মেরে হটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধে সেই কেন্দ্রেরই বাইরে মিললো কংগ্রেসকে ভোট দেওয়া ৪৩টি ব্যালট।

শনিবার সকালে ভোট দেওয়া ব্যালট পেপার উদ্ধারের ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠল গোয়ালতোড়। রবিবার ১২ ঘণ্টার বনধ ডাকা হয়েছে গোয়ালতোড়ে।

গোয়ালতোড় সংলগ্ন কেড়ুমারা গ্রাম থেকে ওই ভোট দেওয়া ব্যালট পেপারগুলি উদ্ধার হয়। স্থানীয় বাসিন্দারা সকালে ঘুম থেকে উঠে ঘরের বাইরে এসেই গ্রামের মাঝ রাস্তায় ব্যালট পেপারগুলি পড়ে থাকতে দেখেন। প্রথমে নমুনা ব্যালট ভেবে তাঁরা গুরুত্ব দেননি। কিন্তু পরে বুঝতে পারেন সেগুলি বৈধ ব্যালট পেপার।

খবর পেয়েই গোয়ালতোড়ের বিজেপির দলীয় কার্যালয় থেকে কর্মীরা কেড়ুমারা গ্রামে যান। খবর দেওয়া হয় স্থানীয় বিডিও অফিস এবং গোয়ালতোড় থানায়। বিজেপির জেলা পরিষদের প্রার্থী পশুপতি দেবসিংহ বলেন, “কেড়ুমারা থেকে উদ্ধার হওয়া জেলা পরিষদের সমস্ত ব্যালট পেপারেই বিজেপির পক্ষে ভোট পড়েছে।” পুনর্নির্বাচনেরও দাবিও জানিয়েছেন তিনি। দাবি মানা না হলে আন্দোলনে নামবেন বলে জানিয়েছেন বিজেপি নেতারা। ব্যালট উদ্ধারের ঘটনায় এলাকায় পথ অবরোধ করে বিজেপি।

গণনা কেন্দ্রের বাইরে ছাপ দেওয়া ব্যালট পেপার উদ্ধার হয়েছে পুরুলিয়াতেও। পুরুলিয়ার পুঞ্চা থানার গণনা কেন্দ্র লোলাড়া রাধাচরণ অ্যাকাডেমির বাইরে প্রচুর ব্যালট পেপার পড়ে থাকতে দেখা যায়। পুঞ্চা ব্লকের এক কর্মী আজ সকালে ওই ব্যালট গুলি পরিষ্কার করার নাম করে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে অভিযোগ তোলে সিপিআইএম।

আরও পড়ুন তৃণমূলকে ভোট দেননি, কান ধরে ওঠবোস বধূকে

বেশির ভাগ ব্যালটের উপর কাস্তে-হাতুড়ি-তারা চিহ্নে ছাপ ছিল বলে অভিযোগ করেন সিপিআইএমের পুরুলিয়া জেলা পরিষদের ২৫ নম্বর আসনের প্রার্থী বিপদতারণ শেখর বাবু। তিনি জানান প্রায় দু হাজার ব্যালট পাওয়া গিয়েছে। পুঞ্চা ব্লকের বিডিওর মদতে স্ট্রং রুমে ব্যালট বক্সে কারচুপি হয়েছে। তাঁদের অনুপস্থিতিতেই ভোটের দিন স্ট্রং রুমে ব্যালট বক্স সিল হয়ে গিয়েছে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়।

ভোটের দিনও শাসকদলের হয়ে কারচুপি করার অভিযোগ উঠেছে বিডিওর বিরুদ্ধে। বিরোধীদের দাবি ওই আসনে পুনর্নির্বাচন হোক। এ নিয়ে পুঞ্চা থানায় অভিযোগ জানানো হয়েছে। নির্বাচন কমিশনকেও জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে পুঞ্চা ব্লকের বিডিও অজয় সেনগুপ্ত জানান, কয়েকটি ইডি ভোট পাওয়া গিয়েছে । দু হাজার ব্যালট পেপার পাওয়ার প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান তিনি।

ছাপা ব্যালট পেপার পড়ে থাকার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুঞ্চা থানার পুলিশ। সিপিআইএম প্রার্থী বিপদতারণ শেখর বাবু নিজে গিয়ে কয়েকজন কর্মীকে হাতে নাতে ধরেন। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে এলাকায়। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুঞ্চা থানার পুলিশ।

Leave A Reply