শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১

আর লড়াই করতে পারছি না, হাউহাউ করে কেঁদে ফেললেন বৈশাখী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চাকরি ছেড়ে দিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতার প্রাক্তন মহানাগরিক শোভন চট্টোপাধ্যায়কে পাশে বসিয়ে তাঁর বিশেষ বান্ধবী বৈশাখী সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা করলেন মিলি আল আমিন কলেজের শিক্ষিকা পদে ইস্তফা দেওয়ার কথা। আর সেই ঘোষণার সময়েই হাউহাউ করে কেঁদে ফেললেন তিনি।

বুধবার কলকাতায় শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাটে সাংবাদিক সম্মেলন ডাকেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সেখানেই বৈশাখীর অভিযোগ, কলেজে তাঁকে হেনস্থা করা হয়েছে একাধিক বার৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা ভিডিও ছড়ানো হয়েছে তাঁকে নিয়ে৷ তাঁকে সাম্প্রদায়িক প্রমাণ করার চেষ্টাও চলছে। এনিয়ে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে অনেক আর্জি জানিয়ে কাজ হয়নি বলেও অভিযোগ বৈশাখীর। এই সব অভিযোগ করতে করতেই কেঁদে ফেলেন বৈশাখী৷ কাঁদতে কাঁদতেই বলেন, আর চাকরি করবেন না। আর লড়াই করতে পারছেন না তিনি। বৈশাখী যখন অঝোরে কাঁদছেন তখন সাংবাদিক সম্মেলন ছেড়ে উঠে যান শোভন।

এদিন বৈশাখী বলেন, “আমি সব দোষ মেনে নিতে পারি কিন্তু আমাকে সাম্প্রদায়িক তকমা দেওয়া হলে সেটা মেনে নিতে পারব না। আমি প্রেসিডেন্সিতে লেখাপড়া করা মেয়ে। আমি যাদবপুর থেকে পিএইচডি করেছি।” বৈশাখীর দাবি, কলেজে তাঁকে হেনস্থা করার জন্য চক্রান্ত চলছে। তিনি বলেন, এখন দিদিকে বলো কর্মসূচি চলছে। তার মধ্যেই তিনি এই সব কথা দিদিকে জানাতে চান।

শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নিয়ে বিতর্কের প্রসঙ্গও টানেন বৈশাখী। তিনি বলেন, তাঁর স্বামীকে বলা হয়েছে বৈশাখীর বাড়াবাড়ির জন্যই শোভনকে তাড়াতে হয়েছে। এই সব নানা অভিযোগ করতে করতেই সাংবাদিকদের সামনে বারবার কেঁদে ফেলেন তিনি।

Comments are closed.