ব্যাটম্যানের মুখোশ পরেই জন্মেছে লুনা, ছবি দেখেই ছোট্ট সুপারহিরোকে আদরে ভরিয়ে দিল নেট-দুনিয়া

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছোটবেলায় টিভির পর্দায় বা মোবাইলের স্ক্রিনে সুপারহিরোদের দেখে তাদের মতো হতে কে না চেয়েছে! তাই তো বাজার জুড়ে ছোটদের জন্য নানা রকম সুপারহিরোর পোশাক ও মুখোশ দিয়ে পসরা সাজিয়েছে হাজারো সংস্থা। ব্যাটম্যানের মুখোশ, সুপারম্যানের পোশাক— এ সবই বড্ড প্রিয় সারা বিশ্বের নানা প্রান্তের খুদেদের। কিন্তু ফ্লোরিডার ছোট্ট লুনা সুপারহিরোদের প্রতি আকৃষ্ট হওয়ার আগেই, নিজের অজান্তেই হয়ে গিয়েছে ব্যাটম্যান-শিশু। সে জন্মেইছে মুখজোড়া ব্যাটম্যান মুখোশ নিয়ে। ইন্টারনেটে তার ছবি সামনে আসার পরেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সেটি।

ছোট্ট ব্যাটম্যান-শিশু লুনাকে অনেক আদর-আশীর্বাদ জানিয়েছেন নেটিজেনরা এবং শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তার সুস্থ হয়ে ওঠার। হ্যাঁ, ছোট্ট একটি অসুস্থতার জেরেই তার মুখজোড়া এমন সুপারহিরোর মুখোশ। এ অসুখের নাম কনজেনিটাল মেলানোসাইটিক নেভাস। যার কারণে ত্বকে অস্বাভাবিক কালো রঙের দাগ তৈরি হয়। আমরা যাকে জরুল বলি, এ যেন খানিক তেমনটাই। তবে মুখের একটা বড় অংশ জুড়ে এই কালো ছোপ পড়ায়, তা চিকিৎসা করে সারাতে চাইছেন লুনার মা-বাবা।

লুনার মা ক্যারল ফেন জানিয়েছেন, আট মাসের লুনাকে নিয়ে ফ্লোরিডা ছেড়ে রাশিয়ার ক্রাসনোদার শহরে গিয়েছেন তিনি। শুরু হয়েছে চিকিৎসা। চিকিৎসকরা জানিয়েছে, সারা পৃথিবীর মাত্র দেড় শতাংশ মানুষ এই বিরল ত্বকের অসুখে ভোগেন। এটি জন্মগত। তবে দুরারোগ্য নয়, ফোটোডায়নামিক থেরাপির মাধ্যমে মুছে যায় এই দাগ। কয়েক দিনের চিকিৎসার পরেই লুনার কপালের কিছুটা কালো দাগ উঠে গিয়েছে। আরও এক-দেড় বছর চিকিৎসা চললে, ৭-৮টি অস্ত্রোপচার করা হলে, পুরোপুরি উঠে যাবে মুখের দাগ।

তবে তার আগেই লুনাকে নিয়ে বেশ কিছু ছবি তুলে ইন্টারনেটে পোস্ট করেছেন মা ক্যারল। মা-বাবা দু’জনে মিলে নকল ব্যাটম্যানের মুখোশ পরেও ব্যটম্যান লুনার সঙ্গে ছবি তুলে পোস্ট করা হয়েছে। তার পরেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে, ব্যাটম্যানের মতো দেখতে এই ছোট্ট সুপারহিরোর কথা। নেটিজেনদের শুভেচ্ছা উপচে পড়েছে।

দেখুন সোশ্যাল মিডিয়ায় লুনার ছবি।

A baby with a blemish on her face resembling a "batman mask" at a news conference after completing the first course of…

Itoro Noah এতে পোস্ট করেছেন সোমবার, 2 ডিসেম্বর, 2019

এর আগেও এক বার সামনে এসেছিল নাতালি জ্যাকসনের কথা। সেই মার্কিন শিশুটিও জন্মেছিল মুখ ভরা এমনই দাগ নিয়ে। কিন্তু তার মা-বাবা সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, চিকিৎসা করিয়ে দাগ মুছবেন না তাঁরা। বড় হওয়ার পরে যদি সে নিজে মনে করে এই দাগ তার ভাল লাগছে না, তা হলে সেটা মোছার ব্যবস্থা নিজেই করবে তাঁদের সন্তান। কারণ তাঁরা মনে করেছিলেন জন্মগত ত্বকের দাগ কোনও দুর্বলতা নয়, যে তা মুছতে হবে। বরং যে কোনও দাগই মানুষের শক্তি।

লুনার মা ক্যারল অবশ্য সে ভরসা করছেন না। তাঁর কথায়, “এখন ও ছোট আছে, তাই এত আদর। বড় হয়ে স্কুলে গেলে যে ওকে এই নিয়ে বুলি হতে হবে না, তা তো আমি নিশ্চিত করতে পারি না। তা ছাড়া হাজার হলেও এটা অস্বাভাবিকতা। চিকিৎসা আছে যখন, তখন তা কাজে লাগিয়ে ছোটবেলায় সারিয়ে ফেলাই ভাল।”

তবে ব্যক্তিগত মত যার যাই হোক না কেন, সকলের ভালবাসায় হাসপাতালে বেশ দিন কাটছে লুনার। এর মধ্যেই তাকে ভালবেসে এক শুভার্থী উপহার পাঠিয়েছেন একটি পুতুল। যে পুতুলের মুখটা অবিকল লুনারই মতো, ব্যাটম্যানের মুখোশ পরা। তাকে পেয়ে দিব্যি খুশি একরত্তি লুনা।

আরও পড়ুন: আগুন লেগেছে বাড়িতে, কুকুরছানাকে বাঁচাতে গিয়ে পুড়ে মারা গেল ছোট্ট শিশু! চোখের জলে কুর্নিশ নেট-দুনিয়ায়

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More