বুধবার, অক্টোবর ১৬

কাশ্মীরের পরিস্থিতি এখন কেমন? দোভালের সঙ্গে বৈঠকে অমিত শাহ

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কিছুদিন আগেই কাশ্মীর থেকে ফিরেছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। সোমবার তাঁর সঙ্গে বসে জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও স্বরাষ্ট্রসচিব রাজীব গাউবা। দোভাল কাশ্মীরে ছিলেন ১০ দিন। তিনি উপত্যকার বিভিন্ন অঞ্চলে ঘুরেছেন। বহু লোকের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাঁদের মনোভাব বুঝতে চেষ্টা করেছেন। সেই সঙ্গে বৈঠক করেছেন সেনাবাহিনী ও আধা সেনার কর্তাদের সঙ্গে।
এদিন কাশ্মীরে বিধিনিষেধ কিছু পরিমাণে শিথিল করা হয়েছে। স্কুলও খুলেছে। শিক্ষকরা স্কুলে উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু বেশি ছাত্র আসেনি। গত শুক্রবারই জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্য সচিব বি ভি আর সুব্রহ্মণ্যম বলেছিলেন, আগামী সপ্তাহে স্কুল খোলা হবে। সরকার চায় না, বাচ্চাদের পড়াশোনায় বিঘ্ন ঘটুক। এদিন সব অফিসও খুলে গিয়েছে। কর্মীদের জন্য যানবাহনের ব্যবস্থা করেছে সরকার।

 

কাশ্মীরের শীর্ষস্থানীয় অফিসাররা জানিয়েছেন, প্রাইমারি স্কুল খোলার পরে সেকেন্ডারি ও হায়ার সেকেন্ডারি স্কুলগুলোও ধীরে ধীরে খুলে দেওয়া হবে। কোন কোন স্কুল খোলা হবে, তার তালিকা তৈরি হয়েছে।

সরকারের মুখপাত্র রোহিত কানসাল বলেন, সরকার চায় শ্রীনগরে ১৯০ টি স্কুল খুলতে। তাঁর কথায়, আমরা আশা করি সরকারি অফিসে পুরোদমে কাজ শুরু হয়ে যাবে। আমরা কথা দিচ্ছি, ধীরে ধীরে কিন্তু নিশ্চিতভাবেই স্কুলগুলি খুলে যাবে।

কাশ্মীর উপত্যকায় সোমবার দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। রাস্তায় বাসও দেখা যায়নি। তবে বেসরকারি গাড়ি চলেছে। শনিবার সরকার ১৭ টি টেলিফোন এক্সচেঞ্জে কাজ চালু করেছে। জম্মুর পাঁচটি জেলায় মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবাও চালু হয়েছে।

সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদ করার পরে কাশ্মীরে বড় ধরনের হিংসাত্মক কোনও ঘটনা ঘটেনি। তবে শ্রীনগরে ছোটখাটো কয়েকটি বিক্ষোভ হয়েছে। সাতজন আহত হয়েছেন।

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার আগে সেখানে নানা কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। ল্যান্ড লাইন, মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিষেবা পুরোপুরি স্তব্ধ হয়ে যায়। কংগ্রেস কর্মী তহসিন পুনাওয়ালা এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানান। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট এক্ষেত্রে হস্তক্ষেপ করতে অস্বীকার করে।

Comments are closed.