শনিবার, সেপ্টেম্বর ২১

বিহারে এমএলএ-র বাড়ি থেকে উদ্ধার এ কে ৪৭, ফাঁসানোর অভিযোগ

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ছিলেন গ্যাংস্টার হয়েছেন বিধায়ক। তিনি বিহারের মোকামার বিধায়ক অনন্ত সিং। তাঁর পৈতৃক বাড়ি তল্লাশি করে মিলেছে এ কে ৪৭ রাইফেল। ২০১৫ সালে তিনি নির্দল প্রার্থী হিসাবে বিহারের মোকামা থেকে নির্বাচিত হন। তাঁর পালটা অভিযোগ, গত লোকসভা ভোটে তাঁর স্ত্রী ইউনাইটেড জনতা দল বিধায়কের বিরুদ্ধে প্রার্থী হওয়ার পর থেকে পুলিশ তাঁকে ফাঁসানোর জন্য উঠে পড়ে লেগেছে।

পুলিশ বলেছে, আইন মেনেই বিধায়কের পৈতৃক বাড়িতে তল্লাশি করা হয়েছিল। বাড়ির তালা খোলার সময় এক ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত ছিলেন। ভিডিওয় ছবিও তোলা হয়েছে। বাড়ির ভিতরে এ কে ৪৭ রাইফেল ও অন্যান্য সন্দেহজনক জিনিসপত্র ছিল। সেগুলো পরীক্ষার জন্য পাটনা থেকে বম্ব স্কোয়াডকে ডেকে পাঠানো হয়েছে।

অনন্ত সিং মোকামায় স্ট্রংম্যান বলে পরিচিত। তিনি জেডিইউ-এর টিকিটে ২০০৫ সালে নির্বাচিত হন। ২০১৫ সালে জেডিইউ প্রধান নীতীশ কুমার আরজেডির লালুপ্রসাদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে বিজেপি বিরোধী ফ্রন্ট তৈরি করেন। লালু অনন্ত সিং-কে প্রার্থী করতে চাননি। তখন তিনি নির্দল প্রার্থী হিসাবে লড়াই করেন।

গত মে মাসে লোকসভা ভোটে তাঁর স্ত্রী নীলম সিং জেডিইউ-এর লালন সিং-এর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। নীলম অবশ্য জিততে পারেননি। অনন্ত সিং বলেন, আমার স্ত্রী লালন সিং-এর বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন বলে আমাকে ফাঁসানো হচ্ছে। সেজন্য লিপি সিং-কে মোকামার এসপি করে আনা হয়েছে।

তাঁর অভিযোগ, তল্লাশির নামে পুলিশ তাঁর বাড়ির ক্ষতি করেছে। তাঁর কথায়, আমার বাড়িতে তল্লাশি হয়নি। ১০০ জন পুলিশ মিলে বাড়ি ভেঙে দিয়েছে। আমাকে কেউ নোটিশ দেয়নি। আমার কোনও সম্পত্তিও বাজেয়াপ্ত করেনি। তারা আমার বাড়িতে ভাঙচুর করেছে। পুলিশ এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

Comments are closed.